২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ইংল্যান্ডের কাছে হোয়াইটওয়াশ হবে ভারত!

সিরিজের প্রথম দুটি টেস্টে শোচনীয়ভাবে হেরেছে ভারত - সংগৃহীত

পাঁচ টেস্টের সিরিজের প্রথম দুটিতেই শোচনীয়ভাবে হেরেছে ভারত। দলের এই বেহাল অবস্থা দেখে আতঙ্কিত সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি। আশঙ্কা করছেন, বাকি তিনটি ম্যাচেও হারবে ভারত। একটি টিভি চ্যানেলের টকশোতে এই আশঙ্কা প্রকাশ করেন গাঙ্গুলি।

তিনি বলেন, 'যদি এভাবেই তারা খেলতে থাকে তাহলে আমি নিশ্চিত ৫-০ ব্যবধানে সিরিজ হেরে যাবে। অথচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের পর আমরা সবাই ভেবেছিলাম এবারের টেস্ট সিরিজে ভালো করবে ভারত। এমনকি দক্ষিণ আফ্রিকায় ওয়ানডে সিরিজ জেতার পরেও ভেবেছিলাম ঘরের বাইরে বারবার হেরে যাওয়ার ধারা হয়তো শেষ হতে যাচ্ছে। কিন্তু লর্ডস টেস্টে লজ্জাজনক পারফরম্যান্সের পর খুবই খারাপ লাগছে।'

গাঙ্গুলি বলেন, 'এমন অনেক ক্রিকেটার আছে যারা নিজেদের পুরো ক্যারিয়ারেই লর্ডসে খেলার সুযোগ পায় না। সেখানে ভারতীয় ক্রিকেট দল ৮০ ওভারের মধ্যে দুইবার অলআউট হয়ে গেলো। হার-জিত খেলারই অংশ। কিন্তু মাঠে প্রতিদ্বন্দ্বিতা তো থাকতে হবে। প্রথম দুই ম্যাচে ভারতের খেলায় আমি সেটার ছিটেফোঁটাও দেখিনি।'

 

আরো পড়ুন : শাস্ত্রী ফ্লপ, কে হচ্ছেন নতুন কোচ?

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টানা দুটি টেস্টে শোচনীয় পরাজয় হয়েছে ভারতের। বিরাট কোহলি ছাড়া আর কেউই ব্যাট হাতে সফল হতে পারেননি। এই হারের পর ভারতের হেডকোচ রবি শাস্ত্রীর দিকে ধেয়ে এসেছে একের পর এক অভিযোগ। টেস্ট সিরিজে পিছিয়ে থাকার জন্য সমর্থকরা দাবি জানিয়েছেন, শাস্ত্রীকে সরিয়ে দেয়া হোক।

শাস্ত্রী সরে গেলে সিনিয়র ক্রিকেট দলে কোচ কে হবেন? ভক্তরা সোশ্যাল সাইটে বিসিসিআই ও রাহুল দ্রাবিড়ের কাছে আবেদন জানিয়ে বলেছেন, দুই পক্ষ থেকেই চুক্তি করা হোক দ্রুত।

ভক্তদের বিশ্বাস, ভারতীয় দলকে ভরাডুবির হাত থেকে থেকে বাঁচাতে পারবেন ‘দ্য ওয়াল’ খ্যাত রাহুল দ্রাবিড়।

বিদেশের মাটিতে খেলতে গেলে সিনিয়র দলের দায়িত্ব রাহুলের ওপর দিতে চেয়েছিল ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড। কিন্তু দ্রাবিড় সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন। সে সময় তিনি জানিয়েছিলেন, ভারত 'এ' ও অনূর্ধ্ব-১৯ দলের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করায় তার উপরে এখন প্রবল চাপ।

 

আরো পড়ুন : ভক্তদের উদ্দেশে কোহলির আবেগঘন বার্তা

এজবাস্টনে প্রথম টেস্টে লড়াই করে হারলেও লর্ডসে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে ব্রিটিশদের কাছে অসহায় আত্মসমর্পণ করেছে ভারতীয় ক্রিকেট দল। বৃষ্টিবিঘ্নিত টেস্টে মাত্র তিনদিনেই ভারতকে ধরাশায়ী করে ইংলিশরা। ইনিংস ও ১৫৯ রানে হেরে পাঁচ টেস্টের সিরিজে ০-২ এ পিছিয়ে পড়েছে আইসিসি'র এক নম্বর টেস্ট দল। বিরাটের অধিনায়কত্বে এই প্রথম ইনিংস হারের লজ্জায় ডুবেছে টিম ইন্ডিয়া। লর্ডসে এই লজ্জাজনক হারের পর টিম ইন্ডিয়ার সমালোচনায় মুখর হয়েছেন সাবেকরা। সমালোচনার ঝড় উঠেছে টুইটারেও।

শনিবার থেকে শুরু হতে চলা ট্রেন্ট ব্রিজ টেস্টে হারলেই সিরিজ শেষ হয়ে যাবে কোহলিদের। এতো খারাপ পরিস্থিতিতে এর আগে 
কখনও পড়েননি অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ভারতীয় দলের ব্যাটিং যখন শোচনীয় তখন কোহলির 'অজানা' ব্যাক পেইন ভারতীয় শিবিরে দুশ্চিন্তা বাড়িয়েছে। প্রথম একাদশ নির্বাচন থেকে পিচ রিডিং। অধিনায়ক কোহলির প্রায় সব সিদ্ধান্ত নিয়েই ব্যাপক সমালোচনা চলছে। হতাশার হারের পর টিম ইন্ডিয়ার উপর ক্ষুব্ধ দেশের ক্রিকেট ভক্তরা।

তাদের উদ্দেশ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় আবেগঘন বার্তা দিয়েছেন কোহলি। লিখেছেন, ''কখনও আমরা জিতি, আর বাকি সময় আমরা শিখি। তোমরা আমাদের ছেড়ে যেও না। আমরাও প্রতিজ্ঞা করলাম, তোমাদের কখনও ছেড়ে যাব না। এখন থেকে সব সময়...।"

প্রথম দুই টেস্টে বিজয়-কার্তিকদের ব্যর্থতার পর এবার দাবি উঠছে ঋষভ পন্থ, করুণ নায়ারদের খেলানোর। বুধবার থেকে পুরোদমে অনুশীলনে নেমে পড়ার কথা টিম ইন্ডিয়ার। আসলে জেমস অ্যান্ডারসন, স্টুয়ার্ট ব্রড, স্যাম কুরানদের সামনে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের বড় অসহায় দেখাচ্ছে। ইংল্যান্ডের মাটিতে টেস্টে সফল হতে হলে ওপেনারদের শুরুটা ভালো করতে হবে বলেই মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। আর এই কাজটাই এখনও করে উঠতে পারেননি ভারতীয় ওপেনাররা। ফলে নতুন বলে মিডল অর্ডারে চাপ পড়ে যাচ্ছে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞদের একাংশ।


আরো সংবাদ