২৩ মার্চ ২০১৯

রোহিতের বিধ্বংসী ব্যাটিং, সিরিজ জয় ভারতের

রোহিতের বিধ্বংসী ব্যাটিং, সিরিজ জয় ভারতের - সংগৃহীত

ইংল্যান্ডকে ৭ উইকেটে হারিয়ে টি-২০ সিরিজ জিতল ভারতীয় ক্রিকেট দল। রোববার ব্রিস্টলের কাউন্টি গ্রাউন্ডে প্রথমে ব্যাট করে ইংল্যান্ড ৫ উইকেটে তোলে ১৯৮ রান। জবাবে ব্যাট করতে নেমে রহিত শর্মার অপরাজিত সেঞ্চুরির সুবাদে আট বল বাকি থাকতেই জয়ের কড়ি জোগাড় করে নেয় ভারত। এই সাফল্য ওয়ান ডে সিরিজের আগে বিরাট কোহলিদের মনোবল অনেকটাই বাড়িয়ে দিলো।

রহিত শর্মা যেদিন ফর্মে থাকেন সেদিন হাফ-সেঞ্চুরি নয়, সেঞ্চুরি করেই মাঠ ছাড়েন। এই ধারণা যে অমূলক নয় সেটা আবার প্রমাণ করে দিলেন ‘হিটম্যান’। উলটো দিকে যখন পর পর উইকেট পড়ছিল তখন চোয়াল শক্ত রেখে ইংরেজ বোলারদের তুলোধনা করেন তিনি একাই। ৫৬ বলে ১১টি চার ও ৫টি ছক্কার সাহায্যে ১০০ রানে অপরাজিত থাকেন রোহিত। ব্যাটে-বলে নজর কড়েছেন হার্দিক পান্ডিয়াও। চারটি উইকেট নেওয়ার পাশাপাশি ১৪ বলে ৩৩ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। ছক্কা মেরে হার্দিকই ম্যাচ শেষ করেন।

জবাবে ভারতের শুরুটা মোটেই ভালো হয়নি। মাত্র ৫ রান করে শিখর ধাওয়ান মাঠ ছাড়েন। তুলে মারতে গিয়ে ১৯ রানে আউট হন লোকেশ রাহুল। ৬২ রানে ভারতের ২ উইকেট পড়ে গিয়েছিল। সেখান থেকে বিরাট কোহলির সঙ্গে জুটি বেঁধে ভারত ধীরে ধীরে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে দেন রহিত শর্মা। তৃতীয় উইকেটে রহিত-কোহলি যোগ করেন ৮৯ রান। কোহলি ২৯ বলে ৪৩ রান করেন।

টসে জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। তবে ওপেনিং জুটিতে জ্যাসন রয় ও জস বাটলার ঝোড়ো ব্যাটিং করে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টের পরিকল্পনা ভণ্ডুল করে দিতে অনেকটাই সফল হন।

ভারতীয় দলে এদিন দু’টি পরিবর্তন হয়। ভুবনেশ্বর কুমারের চোট থাকায় প্রথম একাদশে জায়গা করে নেন সিদ্ধার্থ কল। আর গত ম্যাচে ব্যর্থ হওয়ায় এদিন কুলদীপ যাদবকে বসিয়ে খেলানো হয় উদীয়মান পেসার দীপক চাহার। ওপেনিং জুটিতে জ্যাসন রয় ও জস বাটলার ৯৪ রান যোগ করেন। হার্দিক পান্ডিয়া প্রথম ওভারে ২২ রান দিলেও পরের তিনটি ওভারে মাত্র ১৬ রান দিয়ে তুলে নেন চারটি উইকেট। আর সেই কারণেই ইংল্যান্ডের স্কোর ৯ উইকেটে ১৯৮ রানে আটকে রাখতে সফল হয় ‘টিম ইন্ডিয়া’। জস বাটলার ৩৪ রানে আউট হন। জ্যাসন রয় ৩১ বলে ৬৭ রানে চাহারের বলে ধোনির হাতে ধরা পড়েন। তিনি সাতটি ওভার বাউন্ডারি ও চারটি বাউন্ডারি হাঁকান।

চতুর্দশ ওভারে দু’টি উইকেট নেন হার্দিক। প্রথমে তিনি ফেরান ইংল্যান্ডের অধিনায়ক ইয়ন মর‌গ্যানকে (৬)। তাঁর দ্বিতীয় শিকার অ্যালেক্স হেলস (৩০)। বেন স্টোকস চালিয়ে খেলতে গিয়ে ১৪ রানে আউট হয়ে ডাগ-আউটে ফেরেন। ১৪ বলে ২৫ রান করেন জনি বেয়ারস্ট।
এই ম্যাচে অনবদ্য উইকেটকিপিং করেছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। টি-২০ ফরম্যাটে পাঁচটি ক্যাচ ধরে তিনি রেকর্ড বুকে জায়গা করে নিয়েছেন। পাশাপাশি উইকেটের পিছনে দাঁড়িয়ে ৫০-এর বেশি ক্যাচ নিয়ে অনন্য নজিরও গড়ে ফেললেন মাহি।


আরো সংবাদ




iptv al Epoksi boya epoksi zemin kaplama Daftar Situs Agen Judi Bola Net Online Terpercaya Resmi

Hacklink

instagram takipçi satın al ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme

instagram takipçi satın al