২০ অক্টোবর ২০১৯

‘জানি বড় লোক আর বড় দেশ পরিবেশ নষ্ট করে’

-

অত শত বুঝি না থাকি বস্তিতে। আমরা জানি বড় লোক আর বড় দেশগুলো আমাদের দেশের পরিবেশ নষ্ট করে।

বৃহস্পতিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার সামনে সংহতি সমাবেশ ও র‌্যালীতে কথাগুলি বলেন কিশোরী তানিয়া আক্তার সীমা।

তার সোজা সাপটা কথা হলো আমরা বস্তিতে থাকি, অত কিছু বুঝি না। কিন্তু আমরা জানি বড় লোক আর বড় দেশগুলা আমাদের দেশের পরিবেশ নষ্ট করে। আমরা চাই এই দেশগুলোর শাস্তি হোক। আমাদের দেশটা যেনো ধনী দেশগুলার জন্য ধ্বংস না হয়।

উন্নত বিশ্বকে জলবায়ু পরিবর্তনের সকল দায় নিতে হবে এবং অবিলম্বে সকলকে দেশকে জলবায়ু চুক্তি মানার আহবান জানিয়ে বিশ্বব্যাপী অনুষ্ঠিত জলবায়ু ধর্মঘটের সাথে সংহতি জানিয়ে ঢাকায় সংহতি সমাবেশ ও র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়।

পরিবেশ বাচাঁও আন্দোলন(পবা) ও বারসিকের যৌথ উদ্যোগে লেখক ও গবেষক পাভেল পার্থের সভাপতিত্বে ও পবা’র সম্পাদক ফেরদৌস আহমেদ উজ্জল এর সঞ্চালনায় সংহতি সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, ডিয়াকোনিয়ার প্রতিনিধি খোদেজা সুলতানা লোপা, বারসিকের পরিচালক সৈয়দ আলী বিশ্বাস, মো. জাহাঙ্গীর আলম, সুবন্ধন এর মো: হাবিবুর রহমান,   এসআরএস এর অ্যাড হাসিনা খানম, সেভ দ্য রিভারের শাকিল রহমান, বস্তীবাসী তরুণী তানিয়া আক্তার সীমা প্রমূখ।

সমাবেশে অন্যান্য বক্তারা আরো বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে সবচেয়ে বড় ক্ষতির শিকার হচ্ছি আমরা বাংলাদেশের মানুষ। জলবায়ু ঝুঁকিতে সবচেয়ে অস্তিত্বের হুমকিতে পড়েছে বাংলাদেশ। এই ঝুঁকি থেকে মুক্তি পেতে হলে প্রয়োজন বিশ্বব্যাপী এই আন্দোলনের সাথে আমাদের আরো একাত্ম হওয়া। তাই আমাদের কে আরো উচ্চকিত হয়ে এই আন্দোলনে শরিক হতে হবে। উন্নত দেশগুলো তাদের নিজেদের স্বার্থে এক থাকছে আর তাই আমাদেরকেও ঐক্যবদ্ধ হতে হবে একটি সর্বপ্রাণবাদী আন্দোলনে, জলবায়ু আন্দোলনে।

সমাবেশ থেকে দাবি জানান হয় অবিলম্বে পৃথিবীর সব দেশকে জলবায়ু চুক্তি মানতে হবে। কার্বণ নি:সরণের মাত্রা কমিয়ে আনতে হবে। ধনী ও  উন্নত দেশের  লাগাতার ভোগ বিলাসি জীবন পদ্ধতি বদলাতে হবে। জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য দেশ ও কোম্পানিগুলোকে ক্ষতিগ্রস্থ দেশসমূহকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ ও প্রনেণাদনা দিতে হবে। বাংলাদেশসহ বিশ^ব্যাপী গ্রামীণ ও গরিব জনগনের অভিযোজন কৌশলকে গুরুত্ব দিতে হবে।

সমাবেশ শেষে জলবায়ু ন্যায্যতার জন্য বিশ^ব্যাপি নাগরিক সংগতি গড়ে তোলার আহবান জানিয়ে সমাবেশ শেষ হয়।


আরো সংবাদ




portugal golden visa
paykwik