০৬ ডিসেম্বর ২০১৯

না’গঞ্জে ঘাতকরূপে ইজিবাইক

কেড়ে নিচ্ছে প্রাণ, নিহতদের বেশির ভাগই শিশু; প্রতিটি ইজিবাইকে নেয়া হচ্ছে ২২ হাজার টাকা চাঁদা
-

অবৈধ ইজিবাইকে ভরে গেছে নারায়ণগঞ্জ। জেলার প্রতিটি উপজেলার সব জায়গায় ইজিবাইক চলছে। প্রধান সড়কগুলোতে এসব যানের কারণে অন্যান্য যানবাহন চলাচলে সমস্যা হচ্ছে। শুধু তা-ই নয়, ইজিবাইককে কেন্দ্র করে চলছে বেশুমার চাঁদাবাজি। এসব বিড়ম্বনার মধ্যে বর্তমানে ঘাতকরূপ নিয়েছে ইজিবাইক। একের পর এক কেড়ে নিচ্ছে প্রাণ। নিহতদের মধ্যে বেশির ভাগই শিশু।
সরেজমিনে দেখা গেছে, জেলার প্রায় প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ ও ব্যস্ত এলাকায় সারি বেঁধে দাঁড়িয়ে আছে ইজিবাইক। আবার বিভিন্ন স্থানে যত্রতত্র যাত্রী তোলা হচ্ছে। বেশির ভাগ শিশু-কিশোরই ইজিবাইকগুলো চালাচ্ছে। তাদের কোনো ড্রাইভিং লাইসেন্স নেই। গাড়ি চালানোর সঠিক নিয়মও জানা নেই। ফলে অহরহ ঘটছে দুর্ঘটনা। প্রাণ যাচ্ছে মানুষের।
গত ১৫ নভেম্বর ফতুল্লার বক্তাবলী ইউনিয়নের লাল মিয়ার চর এলাকায় ইজিবাইকের চাপায় আসফিয়া (৭) নামে এক শিশু নিহত হয়েছে। বাড়ির কাছেই সড়ক দিয়ে হেঁটে নানার বাড়ি যাচ্ছিল আসফিয়া ও তার ছোট বোন মানসুরা। এ সময় দ্রুতগামী বেটারি চালিত ইজিবাইক আসফিয়াকে চাপা দেয় এবং মানসুরা ইজিবাইকের ধাক্কায় সড়কের পাশে ছিটকে পড়ে। এতে ঘটনাস্থলেই আসফিয়া মারা যায়
গত ৮ নভেম্বর নারায়ণগঞ্জের মাসদাইর পুলিশ লাইনস স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা মাহমুদা বেগম ইজিবাইক চাপায় নিহত হয়েছেন। রাত ৮টায় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ পুরনো সড়কে ফতুল্লার মাসদাইর এলাকায় পুলিশ লাইনস স্কুলের সামনে দুর্ঘটনাটি ঘটে। স্কুলের কাজ শেষ করে বাসায় ফেরার উদ্দেশে রাস্তা পার হচ্ছিলেন তিনি। এ সময় একটি (অটোরিকশা) ইজিবাইক দ্রুতগতিতে এসে তাকে চাপা দেয়।
গত ২৫ অক্টোবর বন্দরের কল্যান্দী এলাকার ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার চাপায় নজরুল ইসলাম (৫০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। নিহত নজু বন্দর থানার দড়ি-সোনাকান্দাস্থ শহর আলী মিয়া বাড়ির ভাড়াটিয়া ও ওই এলাকার মৃত তমিজ উদ্দিন মিয়ার ছেলে।
গত ৩ আগস্ট বন্দরের রূপালী আবাসিক এলাকায় ইয়াসিন আরাফাত লিমন (৭) রাস্তা পারাপারের সময় দ্রুতগতিতে আসা ইজিবাইকের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই মারা যায়। নিহত লিমন রূপালী আবাসিক এলাকার মুমিনুল হকের ভাড়াটিয়া সোহাগ মিয়ার ছেলে এবং সোনাকান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র।
গত ২৬ জুলাই বন্দরের দাশেরগাঁও ইজিবাইক উল্টে ইকবাল হোসেন (৩২) নামে এক গার্মেন্টশ্রমিক মারা গেছেন। মদনপুর থেকে একটি ইজিবাইক নবীগঞ্জে যাওয়ার পথে দাশেরগাঁও বাসস্ট্যান্ডে এলে একটি মোটরসাইকেলকে সাইড দিতে গিয়ে রাস্তার ওপরেই উল্টে যায়। এতে যাত্রী গার্মেন্টশ্রমিক ইকবাল হোসেন ইজিবাইকের নিচে চাপা পড়েন।
গত ২ জুলাই সিদ্ধিরগঞ্জে ইভা-ইরা নামক যাত্রীবাহী দুরন্ত পরিবহনের সাথে ইজিবাইকের দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই ইজিবাইক চালক মো: বাবুল মিয়া (৬০) নিহত হন।
আড়াইহাজারে ইজিবাইক চাপায় রুমী আক্তার (৮) নামে এক শিশু নিহত। কালাপাহাড়িয়া-রাধানগর সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত রুমী উপজেলার কালাপাহাড়িয়া হাজীরকেট পূর্বপাড়া এলাকার জাহেদ আলীর মেয়ে।
গত ১০ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় ব্যাটারি চালিত অবৈধ ইজিবাইকের চাপায় তাহসিম (৫) নামে এক মাদরাসাছাত্র নিহত হয়। এ সময় এলাকাবাসী ১৫ থেকে ২০টি ইজিবাইক ভাঙচুর করে সড়কে বিক্ষোভ দেখায়। সন্ধ্যায় ফতুল্লার পাগলা স্কুলের সামনে এ ঘটনা ঘটে। নিহত তাহসিম ফতুল্লার দক্ষিণ নয়ামাটি ভাবী বাজার এলাকার শাহাদাৎ হোসেনের বাড়ির ভাড়াটিয়া পান বিক্রেতা কাউসার আহমেদের ছেলে।
গত ৪ এপ্রিল ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ পুরনো সড়কে ফতুল্লার পাগলা এলাকায় শ্রমিকবাহী বাসের চাপায় ইজিবাইক চালক হাকিম নিহত হন। এ সময় আহত হন ইজিবাইকের দুই যাত্রী।
২৭ ফেব্রুয়ারি নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় যাত্রীবাহী বাসচাপায় ব্যাটারিচালিত ইজিবাইকের দুই যাত্রী নিহত হন। এ সময় আহত হন আরো পাঁচজন। নিহতরা হলেনÑ ফতুল্লার আলীগঞ্জের মৃত মোকলেছ শেখের ছেলে মোতাচ্ছের (৫০) ও আলী হোসেন (৫০)।
এ দিকে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় প্রতিটি ইজিবাইক ও অটোরিকশা থেকে ২২ হাজার টাকা করে চাঁদা নিচ্ছে চিহ্নিত চাঁদাবাজরা। চাঁদা নেয়ার পর চালকদের টোকেন দেয়া হচ্ছে। তাই এলাকায় এখন চাঁদাবাজদের এ টোকেন বিক্রির হিড়িক পড়েছে। টোকেনের জন্য ইজিবাইক, ব্যাটারিচালিত রিকশাচালক ও মালিকেরা চাঁদাবাজদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন। কেউ পাচ্ছেনতো কেউ পাচ্ছেন না। এসব টোকেন একটি ইজিবাইকের জন্য ২২ হাজার টাকা দিয়ে কিনে ফের প্রতি মাসে সন্ত্রাসীদের টোকেন ভাড়া দিচ্ছেন ৮০০ টাকা করে।
ইজিবাইক চালক মোতালেব মিয়া জানান, প্রায় ১০ থেকে ১২ বছর ধরেই আজিজুল ইজিবাইকে চাঁদাবাজি করে আসছেন। প্রতিটি এলাকায় তার লোকজনকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে গ্যারেজে গিয়ে মালিক-মহাজনদের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করার। সে অনুয়ায়ী চাঁদা আদায় হয়। কয়েক বছর আগে ইজিবাইকের জন্য টোকেন বিক্রি হতো ছয় হাজার টাকায়। এখন সেই টোকেনের মূল্য বাড়িয়ে ২২ হাজার টাকা করা হয়েছে, আর আগের টোকেন বাতিল করা হয়েছে।
ফতুল্লার পাগলা, কাশিপুর, বাংলাবাজার, মুসলিমনগর, ধর্মগঞ্জ, তল্লা, হাজীগঞ্জ, সাইনবোর্ড, দেলপাড়া, তক্কারমাঠ-নন্দলালপুর এলাকায় অন্তত পাঁচ হাজার ইজিবাইক রয়েছে।
ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন জানান, আজিজুলকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। প্রতিটি এলাকায় যারা ইজিবাইকে চাঁদাবাজি করে তাদের খোঁজখবর নিয়ে গ্রেফতারের চেষ্টা করছি।
জেলা ট্রাফিক পুলিশের একজন কর্মকর্তা বলেন, ইজিবাইক মোটরযানের সংজ্ঞার মধ্যে পড়ে না। তাই নিবন্ধনও করা হয় না। এ কারণে সরকারও বিপুল পরিমাণ রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। সেই সাথে ট্রাফিকিং ব্যবস্থা ব্যাহত হচ্ছে।


আরো সংবাদ

সকল




Paykwik Paykasa
Paykwik