০৮ ডিসেম্বর ২০১৯

দলীয় এমপিদের উদ্দেশে গয়েশ^র কথা বলতে না পারলে বেরিয়ে আসুন

সাদেক হোসেন খোকা স্মরণে নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরামের শোক সভায় বক্তব্য রাখছেন গয়েশ্বর চন্দ্র রায় হ নয়া দিগন্ত -

দলীয় সংসদ সদস্যদের (এমপি) সংসদ থেকে বেরিয়ে আসার পরামর্শ দিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, মোশাররফ (এমপি) বলেছে, পার্লামেন্টে কথা বলব। সেখানে তারা তাদের বিরুদ্ধে কথা বলতে দেবে কেন? এই পার্লামেন্ট তাদের, এই পার্লামেন্ট তো জনগণের নয়। তাই বলি, পার্লামেন্টে যাওয়ার নিয়ম আছে, পার্লামেন্টের বাইরে আসারও তো নিয়ম আছে। আমাদের যারা পার্লামেন্টে গেছেন কথা যখন বলতে পারেন না তখন সেখানে যাওয়ার দরকারটা কী?
গতকাল শুক্রবার দুপুরে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। জাতীয় প্রেস ক্লাবের মাওলানা আকরাম খাঁ হলে নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরামের উদ্যোগে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মরহুম সাদেক হোসেন খোকার স্মরণে এই আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা শেষে মরহুমের রূহের মাগফিরাত কামনায় মুনাজাত করা হয়।
গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, আপনারা বলেছেন, ঘরে-বাইরে আন্দোলন। ঘরে বা পার্লামেন্টে আমাদের সেই অবস্থা আমার নেই, সেই শক্তিও আমাদের নেই। তাই ঘরের আন্দোলন বাদ দিন, আসুন আমরা রাস্তার আন্দোলন করি। মরহুম সাদেক হোসেন খোকার বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন তুলে ধরে তাকে সার্বজনীন নেতা হিসেবে অভিহিত করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য।
পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধি ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের কারসাজি অভিযোগ করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলছেন পেঁয়াজ খাবেন না। আমি আমার বাবুর্চিকে বলে দিয়েছি পেঁয়াজ ছাড়া রান্না করেন। এখন অন্যায় অত্যাচারের প্রতিবাদ করলে বলবে, দেশে থাকেন কেন? যদি বলা হয় সংবাদপত্রের স্বাধীনতা নেই, তাহলে বলবে সংবাদপত্রে চাকরি করেন কেন? উনি এসবই বলবেন। তবে পেঁয়াজের অপ্রতুলতা থেকে পেঁয়াজের অভাবের প্রচারটা সিন্ডিকেটকে আরো সুযোগ করে দিয়েছে। পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির কারণ সিন্ডিকেটের কারসাজি। কারণ কোনো জিনিসের টান পড়লে তার দাম এমনিতেই বেড়ে যায়।
বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি প্রসঙ্গে গয়েশ^র বলেন, সরকারের ইচ্ছার বাইরে আদালতের মাধ্যমে খালেদা জিয়ার মুক্তি হবে না। এ কথাটা আমরা আগে বুঝিনি। দলের নেতাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, নিজেকে জাহির করার মন-মানসিকতা থেকে বেরিয়ে আন্দোলনে মনোনিবেশ করতে হবে। কিছু কিছু নেতা পত্রিকায় নাম, ছবি না এলে ক্ষুব্ধ হন। তিনি জানতে চান পত্রিকায় নাম না এলে কি আন্দোলন হয় না? এরশাদবিরোধী আন্দোলনের সময় এত প্রচারমাধ্যম ছিল না। তাহলে সেই সময় কি আন্দোলন হয়নি?
তিনি আরো বলেন, বর্তমান সময় বিএনপির আন্দোলন দুই ধারায় প্রবাহিত হচ্ছে। একটি প্রেস ক্লাবকেন্দ্রিক আন্দোলন, সংবাদ সম্মেলন এবং আরেকটি বিএনপি কার্যালয় কেন্দ্রিক আন্দোলন। বর্তমানে বিএনপির রাজনীতি হয়ে উঠেছে আত্মরক্ষামূলক রাজনীতি। এই মানসিকতা বাদ দিয়ে আক্রমণাত্মক রাজনীতি করলে জয়ী হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

 


আরো সংবাদ