১৪ নভেম্বর ২০১৯

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভারতীয় নাগরিকের নাম

ভারতীয় নাগরিক মো: কালাম -

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্তদের তালিকায় একজন ভিনদেশী নাগরিকের নাম আসায় তা নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। তার নাম মো: কালাম। তিনি ভারতীয় নাগরিক। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ‘ঢাকা অ্যাটাক’ চলচ্চিত্রের জন্য সেরা সম্পাদক হিসেবে মো: কালামের নাম ঘোষণার পর বিতর্ক তৈরি হয়।
নীতিমালা অনুযায়ী কোনো ভিনদেশী নাগরিক জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়ার কথা না। কারণ চলতি বছর ১৪ ফেব্রুয়ারিতে পুরস্কারের জন্য চলচ্চিত্র আহ্বান করে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড বিজ্ঞপ্তি দেয়। সেখানে প্রথম শর্তেই বলা হয়েছে, ‘কেবল বাংলাদেশী নাগরিকগণ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের জন্য বিবেচিত হবেন।’ কিন্তু গত বৃহস্পতিবার তথ্য মন্ত্রণালয় ২০১৭ ও ২০১৮ সালে চলচ্চিত্র শিল্পে অবদানের জন্য বিশিষ্ট শিল্পী ও কলাকুশলীদের নাম ঘোষণা করে। সেই তালিকায় ‘ঢাকা অ্যাটাক’ চলচ্চিত্রের জন্য সেরা সম্পাদক হিসেবে মো: কালামের নাম আসে। এর পরই চলচ্চিত্রের সাথে সংশ্লিষ্ট অনেকেই এ নিয়ে সোস্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন। কালাম যে একজন ভারতীয় নাগরিক তা ছবির পরিচালকও নিশ্চিত করেছেন।
কলকাতায় বসবাসরত মো: কালাম এর আগেও বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে কাজ করেছেন। সম্পাদনা করেছেন ‘পোড়ামন ২’, ‘দহন’সহ কয়েকটি চলচ্চিত্র। তার সম্পাদিত ‘বস’, ‘খোকা ৪২০’, ‘খোকাবাবু’, ‘বিন্দাস’, ‘প্যান্থার’, ‘কিডন্যাপ’ ছবিগুলো কলকাতায় জনপ্রিয়তা পেয়েছে।
এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে ২০১৭ সালের পুরস্কারের জুরি বোর্ডের সদস্য ও চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার বলেন, এ বিষয়ে প্রযোজক ভুল তথ্য দিয়েছেন। কারণ কালাম যে একজন বিদেশী তা তারা জানতেন না। প্রযোজক যে তথ্য দেবেন সেটিই সঠিক ধরে নেয়া হয়। এ ক্ষেত্রে তেমনটি ঘটেছে। নিশ্চয়ই এ ব্যাপারে তথ্য মন্ত্রণালয় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে। এ ছাড়া এ নিয়ে ছবির প্রযোজক জুরি বোর্ডের কাছে নিজের ভুল স্বীকার করে ক্ষমাও চেয়েছেন। তবে এ বিষয়ে ছবিটির প্রযোজক সানী সানোয়ারের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে একমাত্র রাষ্ট্রীয় ও সর্বোচ্চ পুরস্কার হচ্ছে ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার’। ১৯৭৫ সাল থেকে রাষ্ট্রীয়ভাবে এই পুরস্কার প্রদান করা হচ্ছে। প্রথম দিকে আজীবন সম্মাননা পুরস্কার না থাকলেও ২০০৯ সালে প্রথম এই বিভাগটি চালু করা হয়। আগামী ডিসেম্বরে দুই বছরের বিজয়ীদের হাতে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার তুলে দেয়ার কথা।


আরো সংবাদ