১৫ অক্টোবর ২০১৯

২০১৯ অর্থবছরে ওরাকলের আয় ৩৯.৫ বিলিয়ন ডলার

-

২০১৯ অর্থবছরে প্রযুক্তি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান ওরাকলের আয় ৩ শতাংশ বেড়ে ৩৯.৫ বিলিয়নে দাঁড়িয়েছে। এ সময় ক্লাউড সার্ভিস ও লাইসেন্স সাপোর্ট আয় ২৬.৭ বিলিয়ন ডলার এবং ক্লাউড লাইসেন্স ও অন-প্রিমিজ লাইসেন্স আয় ছিল ৫.৯ বিলিয়ন ডলার। সম্প্রতি প্রকাশিত প্রতিষ্ঠানের আর্থিক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে আসে।
প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১৯ অর্থবছরে জিএএপি ও নন জিএএপি মোট আয় যথাক্রমে ১১.১ ও ১৩.১ বিলিয়ন ডলারে দাঁড়িয়েছে। জিএএপি ও নন জিএএপি আয় শেয়ার প্রতি যথাক্রমে ২৫১ ও ১৬ শতাংশ বেড়ে ২.৯৭ ও ৩.৫২ ডলার হয়েছে।
প্রতিবেদনে বলা হয়, গত বছরের চতুর্থ প্রান্তিকের তুলনায় এ বছর চতুর্থ প্রান্তিকের মোট আয় ১ শতাংশ বেড়ে ১১.১ বিলিয়ন ডলারে দাঁড়িয়েছে। এ সময় ক্লাউড সার্ভিস এবং লাইসেন্স সাপোর্ট আয় ৬.৮ বিলিয়ন এবং ক্লাউড লাইসেন্স ও অন-প্রিমিজ লাইসেন্স আয় হয়েছে ২.৫ বিলিয়ন ডলার।
এ ব্যাপারে ওরাকলের সিইও সাফরা ক্যাটজ বলেন, ‘চতুর্থ প্রান্তিকে এসে আমাদের নন-জিএএপি অপারেটিং আয় ধ্রুব মুদ্রায় ৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে যা ইপিএসকে আমার নির্দেশনার চেয়েও ভালোভাবে পরিচালিত করেছে।’
ওরাকলের চেয়ারম্যান ও সিটিও ল্যারি এলিসন বলেন, ‘চতুর্থ প্রান্তিকে আমরা প্রায় চার হাজারেরও বেশি অটোনোম্যাস ডাটাবেজ ট্রায়াল যোগ করেছি। আমাদের নতুন দ্বিতীয় প্রজন্মের ক্লাউড কাঠামো গ্রাহকদের শক্তিশালী সুবিন্যস্ত আধুনিক প্রযুক্তি প্রদান করেছে। অন্য কোনো ক্লাউড কাঠামো এমনটা পারে না।’
হিসাব শেষে বোর্ড অব ডিরেক্টররা শেয়ার প্রতি ০.২৪ ডলার ত্রৈমাসিক নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেন। এই লভ্যাংশ আগামী ১৭ জুলাই থেকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত অংশীদারদের মধ্যে বিতরণ করা হবে।


আরো সংবাদ




astropay bozdurmak istiyorum