১৮ আগস্ট ২০১৯

কুমারখালীর ঐতিহ্যের ধারক তিন গম্বুজ মসজিদ

-

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার বিখ্যাত দুটি প্রাচীন স্থাপনা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান হচ্ছে তেবাড়িয়া তিন গম্বুজ জামে মসজিদ ও বানিয়াকান্দী তিন গম্বুজ মসজিদ। এগুলো কুমারখালী তথা কুষ্টিয়া জেলার প্রাচীন মুসলিম ইতিহাস ঐতিহ্যের সাক্ষ্য বহন করে আছে।
কুমারখালী শহরের পূর্বদিকে তেবাড়িয়া এলাকায় অবস্থিত শহরের তেবাড়িয়া তিন গম্বুজ জামে মসজিদ। ১৮৮০ সালের দিকে নির্মিত দৃষ্টিনন্দন তেবাড়িয়া তিন গম্বুজ জামে মসজিদ সবার দৃষ্টি কাড়ে। মসজিদটি প্রতিষ্ঠাতা হাজী আলিমউদ্দিন কর্তৃক ওয়াকফ্কৃত। বর্তমানে মসজিদের পাশে নতুন একটি ঈদগাহ নির্মিত হওয়ায় আকর্ষণ আরো বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতিষ্ঠাতার বংশধরেরা বর্তমানে মোতাওয়াল্লি হিসেবে মসজিদটির পরিচালনার দায়িত্ব পালন করছেন। অন্যদিকে বানিয়াকান্দী শাহী জামে মসজিদটি উপজেলার বানিয়াকান্দী গ্রামের ঐতিহ্যবাহী খন্দকার বাড়িতে অবস্থিত। শাহী জামে মসজিদটি পরিচালনা করেন এই গ্রামের বাসিন্দারা। দিল্লি জামে মসজিদের আদলে নির্মিত একটি ছোট আকারের মসজিদ এটি। মসজিদটি সম্ভবত মুঘল বাদশা আওরঙ্গজেবের আমলে মসজিদটি নির্মিত হয় বলে জানান প্রসিদ্ধ ইতিহাসবিদ খোন্দকার আবদুল হালিম।
মুঘল আমলে নির্মিত এ স্থাপনা দুটি অনেক দিন ধরেই সরকারিভাবে উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত। এতে সরকারি কোনো উন্নয়ন বা সংরক্ষণের ছোঁয়া লাগেনি। বর্তমানে স্থানীয়দের দাবি, যথাযথ মেরামত করে কুমারখালীর ঐতিহ্যের ধারক এ মসজিদ দুটি টিকিয়ে রাখতে সরকারিভাবে ব্যবস্থা নেয়া হোক।


আরো সংবাদ

রাঙ্গামাটিতে সন্ত্রাসীদের সাথে গুলি বিনিময়ে এক সেনাসদস্য নিহত স্মিথের বদলি লাবুশানে; টেস্ট ক্রিকেটে ইতিহাস ভারতের পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডার এখন ফ্যাসিস্ট মোদির হাতে : ইমরান খানের হুঁশিয়ারি রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের সর্বোচ্চ প্রস্তুতি স্বাধীনতা বিরোধীরা এখনো ঘড়যন্ত্র করছে : আইনমন্ত্রী দুর্ঘটনা কেড়ে নিলো একটি পরিবার, ঈদ আনন্দে বিষাদের ছায়া ছাত্রদলের সভাপতি ও সম্পাদক হতে ইচ্ছুক ১০৮ তরুণ নেতা মানিকগঞ্জে বেড়েই চলছে ডেঙ্গু রোগী সিরাজগঞ্জে ডেঙ্গু রোগে আক্রন্ত কলেজ ছাত্রের মৃত্যু উপকূল সুরক্ষায় ৬৪২ কিলোমিটার সুপার ডাইক নিমার্ণের উদ্যোগ ছাগলের ক্ষেত খাওয়াকে কেন্দ্র করে বৃদ্ধা খুন

সকল




bedava internet