১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার বিরুদ্ধে জাতিসঙ্ঘে অভিযোগ পাকিস্তানের

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া - প্রিয়াঙ্কা চোপড়া

পাকিস্তান-ভারত সাম্প্রতিক ইস্যুতে বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার মন্তব্যে প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ ইমরান খানের সরকার। অবিলম্বে জাতিসঙ্ঘ ‘শান্তির দূত’ পদ থেকে প্রিয়াঙ্কাকে সরানোর দাবি তুলেছে তারা।

পাকিস্তানের মতে, জাতিসঙ্ঘ দূত হিসেবে রাজনৈতিক বক্তব্য রাখা অনুচিত। এই দাবিতে জাতিসঙ্ঘের সংশ্লিষ্ট দপ্তরে চিঠি পাঠিয়েছে পাকিস্তান সরকার। ইসলামাবাদের মতে, একজন জাতিসঙ্ঘ শান্তির দূত হিসেবে বিপরীত অবস্থান নিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

চিঠিতে লেখা হয়েছে, জম্মু-কাশ্মিরে যাবতীয় আন্তর্জাতিক সম্মেলনে গৃহীত সিদ্ধান্ত লঙ্ঘন করেছে মোদি সরকার। সম্প্রতি আসামে নাগরিক পঞ্জির নামে ৪০ লাখ মুসলিমের নাগরিকত্ব বাতিল করা হয়েছে। নাৎসি বাহিনীর কনসেনট্রেশন ক্যাম্পের মতো ‘সেন্টার’ তৈরি করে মুসলিমদের আটক করে রাখা হয়েছে। কাশ্মিরে শিশু এবং নারীদের উপর ছররা বন্দুক চালিয়ে হামলা করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। নাৎসি বাহিনীর গণহত্যার মতোই জম্মু-কাশ্মিরে যাবতীয় বিক্ষোভ-আন্দোলন দমন করছে মোদি সরকার। প্রিয়াঙ্কা চোপড়া প্রকাশ্যে ভারত সরকারের এই অবস্থানকে সমর্থন করেছেন। শুধু তাই নয়, ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের পাকিস্তানকে পরমাণু হামলার হুমকি সমর্থন করেছেন প্রিয়াঙ্কা।


আরো সংবাদ