২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

জাপানের পর দক্ষিণ কোরিয়ার জয় করলো স্বর্ণ পাম

দক্ষিণ কোরিয়ার পরিচালক বঙ জুন-হো’র সাথে বিচারকদের প্রধান মেক্সিকান নির্মাতা আলেহান্দ্রো গঞ্জালেজ ইনারিতু - এএফপি

জাপান থেকে দক্ষিণ কোরিয়া গেলো বিশ্ব চলচ্চিত্রের সবচেয়ে বড় সম্মাননা। কান চলচ্চিত্র উৎসবের ৭২তম আসরে সমালোচকদের মন জয় করে সেরা ছবি হয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার ‘প্যারাসাইট’। দক্ষিণ কোরিয়ার পরিচালক বঙ জুন-হো’র হাতে সম্মাননা তুলে দিয়েছেন ফরাসি অভিনেত্রী ক্যাথেরিন দেন্যুভ ও এবারের আসরের মূল প্রতিযোগিতা বিভাগের বিচারকদের প্রধান মেক্সিকান নির্মাতা আলেহান্দ্রো গঞ্জালেজ ইনারিতু। ৭১তম আসরে এই সম্মাননা পেয়েছিলো জাপানি পরিচালক হিরোকাজুর ছবি ‘শপলিফটার্স’।

‘প্যারাসাইট’ ছবির গল্প চার সদস্যের একটি পরিবারকে ঘিরে। তাদের সবাই বেকার। পাশের বাড়ির ওয়াইফাই গোপনে ব্যবহার করে তারা। ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল করতে এক ধনকুবেরের বাড়িতে মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে প্রবেশ করে এই পরিবার।

বিশ্বের জৌলুসময় কান চলচ্চিত্র উৎসবের ৭২তম আসরের সমাপনী অনুষ্ঠান শনিবার (২৫ মে) দিবাগত রাত বাংলাদেশ সময় সোয়া ১১টা থেকে শুরু হয় পালে দে ফেস্তিভাল ভবনের গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েতে। শুরুতেই মঞ্চে আসেন প্রতিযোগিতা বিভাগের বিচারকদের সভাপতি মেক্সিকান নির্মাতা আলেহান্দ্রো গঞ্জালেজ ইনারিতু, আমেরিকান অভিনেত্রী এল ফ্যানিং, সেনেগালের অভিনেত্রী-পরিচালক মায়মুনা এনদাই, মার্কিন নির্মাতা কেলি রাইকার্ড, ইতালিয়ান নারী নির্মাতা অ্যালিস রোরওয়াচার, গ্রিসের পরিচালক ইওর্গেস লানতিমোস, পোল্যান্ডের পরিচালক পাওয়েল পাওলিকস্কি, ফরাসি নির্মাতা রবিন ক্যাম্পিলো ও ফরাসি গ্রাফিক ঔপন্যাসিক-নির্মাতা এনকি বিলাল।

স্বর্ণ পাম জয়ের পর বঙ জুন-হোর সাথে উদযাপন করতে মঞ্চে ‘প্যারাসাইট’ তারকারাপুরস্কার বিতরণী শেষে গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েরে উৎসবের অফিসিয়াল সিলেকশনের অংশ লাস্ট্র স্ক্রিনিং হিসেবে দেখানো হলো অলিভিয়ে নাকাশ ও এরিক তোলেদানো পরিচালিত ‘দ্য স্পেশালস’।

এদিকে পেদ্রো আলমোদোভারের স্বর্ণ পাম জেতা হলো না এবারও। তবে তার ‘পেইন অ্যান্ড গ্লোরি’তে পরিচালকের চরিত্রে নৈপুণ্য দেখিয়ে সেরা অভিনেতা হয়েছেন আন্তোনিও ব্যান্দেরাস। সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেয়েছেন যুক্তরাজ্যের এমিলি বিচাম। অস্ট্রিয়ান নারী নির্মাতা জেসিকা হজনারের ‘লিটল জো’ ছবিতে অনবদ্য অভিনয় করেছেন তিনি।

পারিচালকের সাথে ‘প্যারাসাইট’ ছবির টিম

অভিবাসন বিষয়ক ছবি ‘আটলান্টিক’ গ্রাঁ প্রিঁ পেয়েছে। এর পরিচালক মাতি দিওপ কানের ইতিহাসে মূল প্রতিযোগিতায় জায়গা পাওয়া প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ নারী নির্মাতা।

বহুল আলোচিত কোয়েন্টিন টারান্টিনোর ‘ওয়ান্স আপন অ্যা টাইম ইন...হলিউড’ ফিরেছে খালি হাতে। কেন লোচ, টেরেন্স মালিক, হাভিয়ার দোলান, আবদেল লতিফ কেশিশকেও পুরস্কার-শূন্য থাকতে হয়েছে। তবে কান উৎসবের মূল প্রতিযোগিতায় জায়গা পাওয়াই বড় পুরস্কার!

পালে দে ফেস্তিভাল ভবনের গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়ে

গত ১৪ মে কান উৎসবের ৭২তম আসরের পর্দা ওঠে। এবারের আয়োজনের অফিসিয়াল পোস্টারে প্রয়াত ফরাসি নারী নির্মাতা আনিয়েস ভারদাকে সম্মান জানানো হয়। ১২ দিনের এই উৎসবকে ঘিরে নতুন সব ছবি ও নানান আয়োজনে মুখর ছিল দক্ষিণ ফরাসি উপকূলীয় শহর কান।


আরো সংবাদ




gebze evden eve nakliyat Paykasa buy Instagram likes Paykwik Hesaplı Krediler Hızlı Krediler paykwik bozdurma tubidy