২৬ জুন ২০১৯

কানে প্রশংসিত ডিয়েগো ম্যারাডোনা

কানে প্রশংসিত ডিয়েগো ম্যারাডোনা - সংগৃহীত

দারিদ্র্যের বেড়াজাল ভেঙে সাফল্যের শিখরে পৌঁছান আর্জেন্টাইন ফুটবল কিংবদন্তি ডিয়েগো ম্যারাডোনা। তার ওপর নির্মিত নতুন প্রামাণ্যচিত্র প্রশংসিত হয়েছে কানসৈকতে। এর নাম ‘ডিয়েগো ম্যারাডোনা’।

১৯ মে কান চলচ্চিত্র উৎসবের আউট অব কম্পিটিশন বিভাগে এই ছবি প্রিমিয়ার অনুষ্ঠিত হয়েছে। কাঁধের ইনজুরির কারণে দক্ষিণ ফরাসি উপকূলে আসতে পারেননি ম্যারাডোনা। তিনি এখন চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে আছেন। যদিও আশা করা হচ্ছিল, লালগালিচায় তাকে ঘিরে উন্মাদনা ছড়াবে। কানে আসতে না পেরে ৫৮ বছর বয়সী এই কিংবদন্তি অনুতপ্ত বলে জানিয়েছেন প্রামাণ্যচিত্রটির নির্মাতা ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক আসিফ কাপাডিয়া।

ডিয়েগো ম্যারাডোনা ২ ঘণ্টা ১০ মিনিট ব্যাপ্তির প্রামাণ্যচিত্রটিতে ইতালিয়ান দল নেপোলি ও আর্জেন্টিনার অধিনায়ক হিসেবে বিশ্বকাপ জয়ের গৌরবময় ক্যারিয়ারের পাশাপাশি ম্যারাডোনার বেহিসেবি জীবন ও মাদকাসক্ত অধ্যায় তুলে ধরা হয়েছে। তার ব্যক্তিগত সংগ্রহশালায় থাকা ৫০০ ঘণ্টারও বেশি অদেখা ফুটেজ থেকে বাছাই করে এটি সাজানো হয়েছে।

১৯৮৪ সালে ৫ জুলাই ইতালির নেপোলিতে বিশ্বরেকর্ড দামে যোগ দেন ম্যারাডোনা। বাকিটা ইতিহাস। ইউরোপের দলটিকে প্রথমবার শিরোপা এনে দেন ফুটবলের এই জাদুকর। কিন্তু নেপলসে থাকাকালেই মাদকের অন্ধকার দিক গ্রাস করেছিল তার জীবন। বেশি বিখ্যাত হয়ে গেলে কেমন খেসরাত দিতে হয়, এই প্রামাণ্যচিত্রে সেই বক্তব্য রয়েছে বলে উল্লেখ করেন নির্মাতা।

আশির দশকের শুরুতে আর্জেন্টাইন দুই চিত্রগ্রাহককে ভাড়া করেছিলেন ম্যারাডোনার প্রথম এজেন্ট। তার ইচ্ছে ছিল, বড় পর্দার জন্য একটি পূর্ণদৈর্ঘ্য কাহিনিচিত্র বানানো। ম্যারাডোনা যখন কৈশোরে আর্জেন্টিনায় বোকা জুনিয়রসের হয়ে খেলা শুরু করেন, তখন থেকে এই দুই চিত্রগ্রাহকের ফুটেজ সংগ্রহের কাজ চলতে থাকে। কিন্তু ছবিটি আর শেষ হয়নি। প্রামাণ্যচিত্রে সেইসব ফুটেজ রয়েছে।

প্রামাণ্যচিত্রটি নির্মাণ প্রক্রিয়ায় সরাসরি সম্পৃক্ত ছিলেন ম্যারাডোনা। দুবাইয়ের বাড়িতে দেড় বছরেরও বেশি সময় ধরে তার সাক্ষাৎকার নেন নির্মাতা আসিফ কাপাডিয়া। তিনি এর আগে দক্ষিণ আমেরিকার আরেক কিংবদন্তি ব্রাজিলিয়ান রেসিং ড্রাইভার আইর্তো চেনার ওপর একটি প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণ করেন। এছাড়া ২০১৫ সালে কানের আউট অব কম্পিটিশনে প্রদর্শিত হয়েছিল ব্রিটিশ গায়িকা এমি ওয়াইনহাউসের ওপর তার নির্মিত একটি প্রামাণ্যচিত্র।

শেয়ারএদিকে প্রতিযোগিতার বাইরের আরেক শাখা স্পেশাল স্ক্রিনিংয়ে  রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় সাল দ্যু সোসানতিয়েমে ছিল মার্কিন নারী নির্মাতা পিপ্পা বিয়াঙ্কোর প্রথম কাহিনিচিত্র ‘শেয়ার’। সোমবার সকাল সোয়া ১১টায় আবারও এটি দেখানো হয়। ২০১৫ সালে কানে শিক্ষার্থী নির্মাতাদের বিভাগ সিনেফঁদাসোতে প্রথম পুরস্কার জেতেন পিপ্পা বিয়াঙ্কো। ফলে তার প্রথম ছবি কান উৎসবে বিনা লড়াইয়ে স্থান পাওয়ার কথা ছিল। ‘শেয়ার’-এর গল্প ষোড়শী ম্যান্ডিকে ঘিরে। তার একটি আপত্তিকর ভিডিও অন্তর্জাল দুনিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। এটি কখন আর কীভাবে ধারণ করা হলো তার অনুসন্ধান করতে থাকে সে।

স্পেশাল স্ক্রিনিংয়ে আগের দিন প্রিমিয়ার হওয়া জার্মান সিনেমা-গুরু ওয়ার্নার হারজগের ‘ফ্যামিলি রোম্যান্স, এলএলসি’ রোববার দুপুর ২টায় সাল বুনুয়েলে আবারও ছিল।

প্রতিযোগিতা বিভাগ

উৎসবের ষষ্ঠ দিন রোববার বিকাল ৪টায় গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েরে আর বিকাল সোয়া ৪টা ও রাত সোয়া ১০টায় সাল বাজিনে প্রদর্শিত হয়েছে ফরাসি নারী নির্মাতা সেলিন সিয়ামার ‘পোর্ট্রেট অব অ্যা লেডি অন ফায়ার’। এর প্রেক্ষাপট সত্তর দশক। সেখানে সন্ন্যাসী জীবন ত্যাগ করা এক তরুণীর বিয়ের ছবি আঁকতে ডাকা হয় মারিয়ানকে। কিন্তু তরুণীর এতে কোনও আগ্রহ নেই। এ কারণে লুকিয়ে তাকে আঁকার জন্য মেয়েটির পিছু লাগে সে। এতে অভিনয় করেছেন ভ্যালেরিয়া গলিনো, আদেল এনেলসহ অনেকে।

স্বর্ণ পাম জয়ী মার্কিন নির্মাতা টেরেন্স মালিকের ‘অ্যা হিডেন লাইফ’ রোববার সন্ধ্যা ৭টায় গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়ের ও সাল বাজিনে আর দুপুর ১টায় সাল দুবুসিতে প্রদর্শিত হয়। এতে রয়েছে একটি সত্যি ঘটনা। অচেনা নায়ক ফ্রাঞ্জ ইয়েগারস্টাটার দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে নাৎসিদের জন্য যুদ্ধে অস্বীকৃতি জানান। এ কারণে অস্ট্রিয়ান এই কৃষক রাষ্ট্রদ্রোহের দায়ে মৃত্যুদন্ডের হুমকির মুখোমুখি হয়। কিন্তু স্ত্রী ফনি ও সন্তানদের প্রতি ভালোবাসা তাকে উদ্দীপ্ত রাখে।

আগের দিন প্রতিযোগিতা বিভাগে প্রিমিয়ার হওয়া রোমানিয়ান নির্মাতা কর্নেলিউ পরমবয়ুর ‘দ্য হুইসলারস’ গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েরে সকাল সাড়ে ৮টা ও সাল দ্যু সোসানতিয়েমে রাত পৌনে ৯টায়, চীনের ডিয়াও ইনান পরিচালিত ‘দ্য ওয়াইল্ড গুজ লেক’ সাল দ্যু সোসানতিয়েম সকাল সাড়ে ৮টায়, গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েরে দুপুর সোয়া ১টা ও পালে দে ফেস্তিভাল ভবনের বাইরে অলিম্পিয়া প্রেক্ষাগৃহে রাত ৮টায় ফের দেখানো হয়।

আঁ সার্তে রিগার
অফিসিয়াল সিলেকশনের এই বিভাগে রোববার সকাল সাড়ে ৮টা ও রাত সাড়ে ১০টায় সাল দুবুসি থিয়েটারে ফরাসি নির্মাতা ক্রিস্তফ নোরের ‘অন অ্যা ম্যাজিক্যাল নাইট’ ছবির উদ্বোধনী প্রদর্শনী হয়। এর গল্পে দেখা যায়, বিয়ের ২০ বছর পর মারিয়া স্বামীকে ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। তাই একটি হোটেলের ২১২ নম্বর রুমে ওঠে সে। সেখান থেকে সংসার জীবন কাটানো অ্যাপার্টমেন্টটি দেখা যায়। ঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে কিনা তা ভাবে মারিয়া। অনেকের মন্তব্য শোনে সে।

এ বিভাগে উৎসবের পঞ্চম দিন প্রিমিয়ার হওয়া স্প্যানিশ নির্মাতা আলবের্ত চেরার ‘লিবার্টি’ রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় সাল দুবুসিতে, সাল দ্যু সোসানতিয়েমে দুপুর সোয়া ২টায় মার্কিন নারী নির্মাতা ড্যানিয়েল লেসোভিৎজের প্রথম ছবি ‘পোর্ট অথরিটি’ ও বিকাল সাড়ে ৪টায় ফরাসি নির্মাতা ব্রুনো দুমোর ‘জোয়ান অব আর্ক’ আবারও দেখানো হয় ।

 সিনেমা ডি লা প্লাজ
সাগরপাড়ে ছবি দেখার আয়োজনে রোববার রাত সাড়ে ৯টায় ছিল জিম মরিসন ও তার ব্যান্ডের উত্থানের গল্প নিয়ে অলিভার স্টোনের ‘দ্য ডোরস’ (১৯৯১)। পালে দে ফেস্তিভালের অদূরে ম্যাসি সৈকতে খোলা আকাশের নিচে এটি সবার জন্য উন্মুক্ত ছিল।

 ডিরেক্টরস ফোর্টনাইট

ফরাসি চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি আয়োজিত ডিরেক্টরস ফোর্টনাইট কানের প্যারালাল বিভাগ। এতে রোববার সকাল পৌনে ৯টা ও রাত সাড়ে ৮টায় ছিল রবার্ট এগারসের ‘দ্য লাইটহাউস’। এর গল্প আশির দশকের প্রত্যন্ত অঞ্চল ও রহস্যময় নিউ ইংল্যান্ড আইল্যান্ডের দুই লাইটহাউস কিপারকে ঘিরে। এ দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন উইলেম ড্যাফো ও রবার্ট প্যাটিনসন।

উৎসবের ষষ্ঠ দিন দুপুর ১২টা ও সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় দেখানো হয় ফরাসি নির্মাতা এরওয়ান ল্যঁ দুকের ‘দ্য বেয়ার নেসেসিটি’। এছাড়া বিকাল ৩টায় ছিল কয়েকটি স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি। এ বিভাগের ছবিগুলোর প্রদর্শনী হয়েছে জেডব্লিউ ম্যারিয়ট হোটেলের থিয়েটার ক্রজেতে।

স্যুমেন দ্যু লা ক্রিতিক

চলচ্চিত্র সমালোচকদের আয়োজনে কানের এই প্যারালাল বিভাগে রবিবার পালে দে ফেস্তিভাল ভবনের সাল বুনুয়েলে সকাল সাড়ে ৮টায় ও হোটেল মিরামারে দুপুর আড়াইটা ও রাত ৮টায় ছিল ফরাসি নারী নির্মাতা হাফসিয়া হার্জির ‘ইউ ডিজার্ভ অ্যা লাভার’। এর গল্পে দেখা যায়, প্রেমিকের বিশ্বাসঘাতকতার কারণে তার সঙ্গে ছাড়াছাড়ির পর উৎসাহিত হতে বন্ধুদের সঙ্গে আলোচনা করে লিলা। কিন্তু ভালোবাসার পাগল মেয়েটি নিজেকে হারিয়ে ফেলে।

 


আরো সংবাদ