১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

মোদি সম্পর্কে কঙ্গনার মন্তব্যে গুঞ্জন

ভারত
মোদির সাথে কঙ্গনা - ছবি: সংগৃহীত

কিছুদিন আগেই কর্ণাটকের সদগুরুর আশ্রমে গিয়ে শ্রাবণ মাসের শিবপূজা করতে দেখা যায় কঙ্গনা রানাওয়াতকে। তার সঙ্গে বেশ কিছুদিন ধরেই চলছিল রাজনীতিতে তার যোগদান নিয়ে জল্পনা। এবার খোলাখুলি নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে মন্তব্য করে ফের একবার এই জল্পনা উস্কে দিলেন বলিউড ‘কুইন’ কঙ্গনা।

কঙ্গনার ভাষায়- ‘প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নরেন্দ্র মোদীই যোগ্যতম ব্যক্তি। ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনেও তার জয়ী হওয়া উচিত।’ বাবা মায়ের কারণে নয়, নিজের যোগ্যতায় মোদী এত দূর উঠে এসেছেন বলে মন্তব্য করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর শৈশব নিয়ে তৈরি স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবি চলো জিতে হ্যায়-এর স্ক্রিনিংয়ে এসেছিলেন কুইন-এর অভিনেত্রী। সেখানে তিনি বলেন, নরেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী পদে যোগ্যতম ব্যক্তি। বাবা মায়ের জোরে নয়, তিনি যা অর্জন করেছেন সবই নিজের ক্ষমতায়। তিনি প্রকৃত গণতান্ত্রিক নেতা। মানুষ ভোট দিয়ে তাকে বেছে নিয়েছেন, এই সাফল্য তার কাছ থেকে কেড়ে নেওয়া যাবে না। কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে এই জায়গায় এসে পৌঁছেছেন তিনি। তাই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তার যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার অবকাশ নেই।

ছবিটি সম্পর্কে কঙ্গনা বলেছেন, এতে দেখানো হয়েছে, ছোটবেলা থেকেই প্রধানমন্ত্রী কতটা সংবেদনশীল ছিলেন, অত্যন্ত কঠিন পরিস্থিতি থেকে উঠে এসেছেন তিনি। তবে তার মনে হয়, এই ছবি প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে নয়, বরং সাধারণ মানুষ সম্পর্কে- কীভাবে ঐক্যবদ্ধ সমাজ উন্নতি করতে পারে। এই ছবি তার জীবনের সামান্য একটা অংশ।

তিনি কি চান মোদী আবার ক্ষমতায় আসুন? জাতীয় পুরস্কার জয়ী অভিনেত্রীর জবাব, অবশ্যই। দেশকে গর্ত থেকে টেনে তুলতে ৫ বছর অত্যন্ত কম সময়। আমাদের দেশ গর্তে পড়েছে, তাকে টেনে তুলতে হবে।

আরো পড়ুন :

পত্রিকা দেখে হৃতিকে মুগ্ধ কিশোরী কঙ্গনা
বিনোদন ডেস্ক, ২৪ এপ্রিল ২০১৬
হৃতিকের ভুয়া আইডিতে তিন হাজারের বেশি ইমেইল কঙ্গনা রানাউতের অ্যাকাউন্ট থেকে এসেছে। সেখান থেকেই জানা গেছে, হৃতিক রোশনকে সশরীরে দেখার আগেই তার প্রেমে মশগুল হয়েছিলেন কিশোরী কঙ্গনা রানাউত!

কঙ্গনার ইমেইল অ্যাড্রেস থেকে হৃতিককে পাঠানো একটি মেইলে লেখা, ‘মানালিতে একটি হিন্দি দৈনিকে তোমার ছবি দেখে পাগল হয়ে গিয়েছিলাম। মনে হয়েছিল, আরে! এই লোকটা তো আমারই’! মেইলের বয়ান অনুযায়ী, সেই ঘটনাটি পরে হৃতিককে জানিয়েও ছিলেন কঙ্গনা। যদিও সেই আকর্ষণ প্রেম কি না, সে বিষয়ে তখনই দ্বিধামুক্ত হতে পারেননি বলিউডের অধুনা ‘কুইন’। তবে এটুকু বুঝেছেন যে সেই অনুভূতি নিছকই কোনো কিশোরীর ‘ক্রাশ’ ছিল না।

ওই ইমেইলে হৃতিকের প্রতি তার আকর্ষণের ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে কঙ্গনা লিখেছে, ‘অনুভূতিটা তখনো স্পষ্ট বুঝিনি। তখন সিনেমা দেখতাম না, চিত্রতারকাদের সম্পর্কে কোনো মোহও ছিল না। তবে তোমায় দেখলেই শরীরে-মনে অদ্ভুত এক টান কাজ করত। মনে হতো, তোমার দৃষ্টি আমার শরীর থেকে আত্মাকে নিংড়ে বের করে নিচ্ছে। অস্বস্তি হতো, হতাশায় ভরে উঠতাম।’


আরো সংবাদ

গৃহবধূকে ধর্ষণের পর ভিডিও ছড়িয়ে সাবেক ইউপি সদস্য গ্রেফতার সাংবাদিকতা পেশাকে দেশের বৃহত্তর স্বার্থে ব্যবহারে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান শ্রীমঙ্গলে সড়কে গাছ ফেলে ডাকাতি বিশাল অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিতেই ইভিএম প্রকল্প : রিজভী পাকিস্তানের চেয়ে ভারতকে কেন বেশি সুবিধা দিচ্ছে আইসিসি? কুলাউড়ায় নিখোঁজের ১০ ঘণ্টা পর যুবদল নেতার লাশ উদ্ধার মোহাম্মাদ আমিরকে ২৫টি প্রশ্ন ও উত্তর খালেদা জিয়ার মুক্তি ও চিকিৎসা দাবিতে ঢাবি সাদাদলের মানববন্ধন সিদ্ধিরগঞ্জে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার বন্দরে সেফটি ট্যাংকি বিস্ফোরণে ২টি ভবনের ব্যাপক ক্ষতি : আহত ৪ লেবাননের জালে ৮ গোল বাংলাদেশের মেয়েদের

সকল