২১ আগস্ট ২০১৯

শিক্ষার্থীদের কৃষ্ণ প্রসাদ বিতরণকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিন : আহমদ শফী

হেফাজত আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী - ফাইল ছবি

চট্টগ্রামে উগ্র হিন্দু সংগঠন ইসকন কর্তৃক মুসলমান স্কুল শিক্ষার্থীদের প্রসাদ খাওয়ানোর সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও উগ্র হিন্দু সংগঠন ইসকন’র সকল কার্যক্রম নিষিদ্ধ করার দাবি করেছেন হেফাজত আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী। তিনি বলেছেন ইসকন তাদের হীনকর্মকাণ্ডের মাধ্যমে বাংলাদেশে সম্প্রীতি বিনষ্টে উস্কানি দিচ্ছে। ভারতের মতো এদেশেও সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা-হাঙ্গামা সৃষ্টির পাঁয়তারা চালাচ্ছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় সংবাদপত্রে প্রেরিত হেফাজতে ইসলামের লিখিত বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, হিন্দু সম্প্রদায়ের পুণ্যের আশায় দেবতার নামে উৎসর্গকৃত খাবারই হলো প্রসাদ। এ প্রসাদ আহার করা মুসলমানদের জন্য হারাম। সংবিধান অনুযায়ী প্রত্যেক ধর্মাবলম্বী নিজ নিজ ধর্ম স্বাধীনভাবে পালন করতে পারবেন। তবে নিজেদের ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান অন্য ধর্মের কারও উপর চাপিয়ে দেয়া ধর্মীয় অধিকার ও অনুভূতিতে হস্তক্ষেপের শামিল, যা সংবিধান পরিপন্থী ও সুস্পষ্ট সংবিধান লঙ্ঘন।

হেফাজত আমির বলেন, আমি মনে করি সংগঠনটি বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির জন্য হুমকি। তাই স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব ও সম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় ইসকনকে নিষিদ্ধ করে তাদের সকল কার্যক্রম বন্ধ করতে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক। অন্যথায় এই উগ্র গোষ্ঠীর এহেন কর্মকাণ্ডের জন্য সরকারকেই চরম মূল্য দিতে হবে।

আল্লামা শফী বলেন, ইতোমধ্যে এ উগ্র সংগঠনটি দেশের বিভিন্ন স্থানে ধর্মীয় উস্কানীসহ নানাভাবে উত্তেজনা ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে যাচ্ছে। কঠোর হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করে তিনি আরো বলেন, অনতিবিলম্বে এ ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত স্কুল কর্তৃপক্ষ ও ইসকনের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। না হলে আমাদের ঈমান আকিদা রক্ষা ও দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি অক্ষুণ্ণ রাখার স্বার্থে ইসকনসহ এধরনের উগ্রবাদী সংগঠনের কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে হেফাজতে ইসলাম এ দেশের সর্বস্তরের তৌহিদী জনতাকে সাথে নিয়ে বৃহত্তর কর্মসূচী ঘোষণা করতে বাধ্য হবে।

উল্লেখ্য, সম্প্রতিস্কুলে শিক্ষার্থীদের প্রসাদ খাওয়ায় আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ-ইসকন। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের রথযাত্রা উপলক্ষে সপ্তাহব্যাপী (ফুড ফর লাইফ) কর্মসূচির আড়ালে গত ১১ জুলাই থেকে নগরীর প্রায় ৩০টি স্কুলের শিক্ষার্থীর মাঝে প্রসাদ বিতরণ করা হয়। ইসকন কর্মীদের শেখানো মতে, কোমলমতি শিক্ষার্থীরা মন্ত্র পাঠ করে এ প্রসাদ গ্রহণ করে। শ্লোক-মন্ত্র পাঠের মাধ্যমে মুসলিমসহ বিভিন্ন ধর্মের কোমলমতি শিক্ষার্থীদের প্রসাদ বিতরণ বিশ্বের অন্যতম সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এ দেশে সম্প্রীতি বিনষ্টের মাধ্যমে সাম্প্রদায়িক উস্কানীর পাঁয়তারা করছে উগ্রবাদী সংগঠন ইসকন।

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ প্রচার সম্পাদক মাওলানা আনাস মাদানী স্বাক্ষরিত শুক্রবার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে হেফাজত আমীর আল্লামা শাহ আহমদ শফী (দা.বা) বলেন, ইসকন মুসলিম শিক্ষার্থীদের মাঝে প্রসাদ বিতরণ করে মুসলিম ধর্মীয় চেতনাবোধেও মারাত্মক আঘাত করেছে। মুসলমানদের ধর্মীয় বিশ্বাসে এসব মন্ত্র মুখে উচ্চারণ করার কোনো প্রকারের বৈধতা নেই।

হেফাজত আমীর আরো বলেন, মুসলিম অধ্যুষিত দেশে কোমলমতি মুসলিম শিক্ষার্থীদের (হরে কৃষ্ণ হরে রাম, মাতাজি প্রসাদ কি জয়) শব্দ উচ্চারণ করিয়ে সুক্ষ্মভাবে ঈমান হরণের অপচেষ্টা চালাচ্ছে। এদেশে সকল ধর্মের মানুষের সহাবস্থান নিশ্চিত করতে এমন ঘৃণ্য কর্মকাণ্ডে জড়িতদের দ্রুত শাস্তি নিশ্চিত করে উগ্রবাদী সংগঠন ‘ইসকন’ এর সকল কার্যক্রম নিষিদ্ধ করতে হবে।


আরো সংবাদ

এমপিও তালিকার প্রজ্ঞাপন কয়েক দিনের মধ্যে, কার্যকর গত জুলাই থেকে ২১ আগস্ট নিহত‌দের স্মরণে শহীদ বে‌দী‌তে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন 'ভারতের জামাই' পাকিস্তানি পেসারকে দারুণ অভিনন্দন সানিয়া মির্জার কাশ্মির নিয়ে আবার মধ্যস্ততার প্রস্তাব ট্রাম্পের ট্রেনে আসমাকে হত্যার আগে ধর্ষণ করা হয় যেকোনো সময় গ্রেফতার হতে পারেন ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রী চিদম্বরম শিশু ধর্ষকের রহস্যজনক মৃত্যু, কী হবে বাচ্চাটির? ১২৮ বছর বয়সের বৃদ্ধের আকুতি : ‘বাবা আমাকে বাঁচাও, ওরা আমারে খেতে দেয় না’ ভারতীয় গোয়েন্দা রিপোর্ট : বারুদের স্তূপে কাশ্মির, যেকোনো সময় বিস্ফোরণ বক্তব্যকে ভুলভাবে নেয়া : যা বললেন জাকির নায়েক সপ্তম কাউন্সিল : বিএনপির লক্ষ্য নেতাকর্মীদের হতাশার বৃত্ত থেকে বের করে আনার চেষ্টা

সকল




bedava internet