২৪ জুলাই ২০১৯

সীতাকুণ্ডে র‌্যাবের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ধর্ষণ মামলার আসামি নিহত

-

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে র‌্যাবের সাথে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’র ঘটনায় ধর্ষণ মামলার এক আসামি নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম মো: রানা। তিনি পৌর সদরের আমিরাবদ এলাকার নুরুল ইসলামের ছেলে।

আজ বৃহস্পতিবার ভোর ৫টার দিকে আমিরাবাদ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনাকে নিহতের পরিবার পরিকল্পিত হত্যাকান্ড বলে দাবি করেছেন।

স্থানীয় ও মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ৩ ফেব্রুয়ারি নিহত রানা (২১) তার প্রতিবেশি সপ্তম শ্রেনী পড়ুয়া এক স্কুলছাত্রীকে আচার খাওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে নিজঘরে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। পরে তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে রানা পালিয়ে যায়। এ সময় স্থানীয়রা স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করে। এঘটনার দুই দিন পর ছাত্রীটির বাবা সীতাকুণ্ড মডেল থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেন। এ ঘটনার পর থেকে রানা পলাতক ছিল।

চট্টগ্রাম র‌্যাব-৭ পরিচালক মেজর মেহেদী হাসানের দাবি, আসামি রানা আমিরাবাদ এলাকায় অবস্থান করছে এমন তথ্য পেয়ে সেখানে অভিযান চালানো হয়। এসময় র‌্যাবের উপস্থিতির টের পেয়ে রানার সহযোগীরাও গুলি ছোড়লে র‌্যাবও পাল্টা গুলি ছোড়ে। পরে রানাকে আহত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে উদ্ধার করে সীতাকুণ্ড হাসপাতালে ভর্তি করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রানাকে মৃত ঘোষণা করেন।

র‌্যাব চট্টগ্রাম মিডিয়া অফিসার মাশকুর রহমান বলেন, এঘটনায় সেখান থেকে একটি এলজি ও ১১ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। পোস্টমর্টেমের জন্য লাশ চমেক হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

এদিকে, নিহতের পরিবারের দাবি, রানাকে বুধবার সন্ধ্যারাতে র‌্যাব আটক করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায় এবং বৃহস্পতিবার ভোররাতে পশ্চিম আমিরাবাদ এলাকায় রানার গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া যায়।


আরো সংবাদ




gebze evden eve nakliyat instagram takipçi hilesi