১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

চন্দনাইশ উপজেলা পরিষদের স্থগিত দুই কেন্দ্রে চেয়ারম্যান পদে পূর্ণভোট

১৩ জুন বৃহস্পতিবার চন্দনাইশ উপজেলা পরিষদের স্থগিত দুই ভোট কেন্দ্রে শুধুমাত্র চেয়ারম্যান পদে পূর্ণভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

ভোট গ্রহণের শেষ মুহুর্তে দুই প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আওয়ামী লীগ মনোনিত (নৌকা) এ কে এম নাজিম উদ্দিন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী (দোয়াত কলম) আবদুল জব্বার চৌধুরীর ও কর্মী সমর্থকদের বিরামহীন প্রচারণা চোখে পড়ার মত ছিল। এদিকে নির্বাচন অবাধ নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু করার জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণের বিষয়টি নিশ্চিত করেন উপজেলা নিবার্হী অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার আ ন ম বদরুদ্দোজা।

গত ২৪ মার্চ চন্দনাইশ উপজেলা পরিষদ নিবার্চনে ভোটগ্রহণ চলাকালে ব্যালট পেপার ছিনতাই ও পুলিশের উপর হামলা গুলিবর্ষণের ঘটনায় দুইটি কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয়েছিল।

স্থগিত দুই কেন্দ্র হলো পূর্ব চন্দনাইশ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও উত্তর বরকল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্র। এই দুই কেন্দ্রের মোট ভোটার হলো ৪ হাজার ৪০৯ ভোট।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ফলাফল অনুযায়ী ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের পদে দুই জন নিবার্চিত হয়।
অপর দিকে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে প্রাপ্ত ফলাফলের প্রেক্ষিতে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী (নৌকা) সাবেক দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা আওয়ামীগ নেতা এ কে এম নাজিম উদ্দিন পেয়েছিলেন, ১৯ হাজার ৬৪৭ ভোট অপর দিকে বর্তমান পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল জব্বার চৌধুরী (দোয়াত কলম) পেয়েছিলেন, ২২ হাজার ৬৩৪ ভোট পেয়ে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থীর চেয়ে ২ হাজার ৬৩৪ ভোট বেশী পেলেও স্থগিত দুই কেন্দ্রের ভোট প্রাপ্ত ভোটের চেয়ে বেশী হওয়ায় (১৭৭৫ ভোট) বেসরকারীভাবে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে ফলাফলও স্থগিত করা হয়। দুই পৌরসভা ও ৮ টি ইউনিয়নে মোট ভোটার ১ লাখ ৬৩ হাজার ২০৫ ভোট এরমধ্যে ৪৩ হাজার ৪৪৮ ভোট প্রদান করেন ভোটারগণ (২৬ দশমিক ৬২ শতাংশ)।

পরবর্তীতে নির্বাচন কমিশনার ১৭ এপ্রিল নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করাহলে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ১৬ এপ্রিল হাইকোর্টের রিটের কারণে এবং স্থগিত কেন্দ্র দুইটির থেকে সহিংসতা সংক্রান্ত রিপোর্ট হাইকোর্টে প্রদান করার কারণে হাইকোর্ট পুণরায় নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করেন। পরবর্তিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুল জব্বার চৌধুরী হাইকোর্টের নির্বাচন স্থগিত আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টের চেম্বার জর্জ আদালতে আপিল করেন। আপিলটি চেম্বার জর্জ আদালতে দীর্ঘ শুনানির পর সুপ্রিম কোর্টে পূর্নাঙ্গ বেঞ্চে প্রেরণ করে। ১৮ এপ্রিল প্রধান বিচারপ্রতি নেতৃত্বে ৭জন বিচার প্রতি নিয়ে গঠিত পূর্নাঙ্গ বেঞ্চে দীর্ঘ শুনানির পর স্থগিত আদেশ বাতিল করেন।

সেই প্রেক্ষিতে ১৩ জুন চন্দনাইশ উপজেলা পরিষদের স্থগিত দুই ভোটকেন্দ্রের পূর্ণভোট গ্রহণের তারিখ ঘোষণা করে পরিপত্র জারি করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক, পটিয়া ও চন্দনাইশ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার মো. কামাল হোসেন ।


আরো সংবাদ

রাজধানীতে ইয়াবাসহ গ্রেফতার ৫ পুলিশ সদস্য রিমান্ডে নবম ওয়েজবোর্ডে রোয়েদাদ সুবিধা সঙ্কুচিত করার প্রতিবাদ এমইউজে খুলনার নবম ওয়েজবোর্ড রোয়েদাদ ঘোষণায় প্রধানমন্ত্রীকে বিএফইউজের ধন্যবাদ ভিসির ছেলের ফোনালাপের রেকর্ড শুনলেই সবকিছু পরিষ্কার হয়ে যাবে : সাদ্দাম হোসেন জাফর উদ্দিন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ৪ সচিবকে সিনিয়র সচিব পদে পদোন্নতি কাফরুলে স্কুলভবন থেকে লাফিয়ে ছাত্রের আত্মহত্যার চেষ্টা টঙ্গীতে প্রধানমন্ত্রীর জন্মোৎসবের বিলবোর্ড অপসারণ নিয়ে তোলপাড় পেঁয়াজের বাজারে আগুন : কেজিতে বেড়েছে ২৫ টাকা বশেমুরবিপ্রবির ভিসির পদত্যাগ দাবিতে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি ডুজার আওয়ামী লীগ সম্পাদকমণ্ডলীর সভা কাল

সকল