২৪ মে ২০১৯

রোজাদারকে জুস খাইয়ে স্বর্ণালঙ্কার লুট

রোজাদারকে জুস খাইয়ে স্বর্ণালঙ্কার লুট - প্রতীকী ছবি

ইফতারের সময় রোজাদারকে জুসের সাথে চেতনানাশক ওষুধ খাইয়ে একই পরিবারের চারজনকে অজ্ঞান করে নগদ টাকাসহ পাঁচ লক্ষাধিক টাকার স্বর্ণালঙ্কার লুটে নিয়েছে দুষ্কৃতিকারীরা। শনিবার (১১মে) সন্ধ্যায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার কালীকচ্ছ মধ্যপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

পরে অজ্ঞান অবস্থায় চারজনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। তারা হলেন- খোরশেদ আলম (৬৫), আসমা বেগম (২৬), সাহারা খাতুন (৬০) ও জজবানু (৪০)।

ভূক্তভোগী পরিবারের স্বজন মোঃ জাহাঙ্গীর মিয়া জানান, শনিবার ইফতারের আগমূহুর্তে বোরকা পরিহিত দুইজন নারী এ বাড়িতে এসে পরিবারের লোকদের সাথে ইফতার করার আগ্রহ প্রকাশ করেন। এসময় তাদের হাতে চারটি জুসের বোতল ছিল। তখন ওই দুই নারী জানান- তারা আত্মীয়ের বাড়িতে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে ইফতারের সময় হয়ে যাওয়ায় তারা এই বাড়িতে ঢুকে পড়েছেন।

ওই দুই নারীর কথায় সরল বিশ্বাসে এ পরিবারের লোকজন তাদেরকে নিয়ে ইফতার করেন এবং তাদের নিয়ে আসা জুসও পরিবারের লোকেরা পান করেন। একপর্যায়ে পরিবারের চার সদস্য অজ্ঞান হয়ে পড়লে দুস্কৃতিকারীরা ঘরের আলমারি ও বিভিন্ন ড্রয়ার খুলে নগদ টাকাসহ পাঁচ লক্ষাধিক টাকার স্বর্ণালঙ্কার লুটে নেয়।

পরে প্রতিবেশী লোকজন এ পরিবারের সদস্যদের সাড়া শব্দ না পেয়ে রাতে বাড়িতে ঢুকে দেখেন সবাই অজ্ঞান অবস্থায় মেঝেতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে আছেন। এরপর স্বজনরা তাদেরকে অজ্ঞান অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে যান।

চিকিৎসক জানিয়েছেন, চেতনানাশক ওষুধ খাওয়ার ফলে তাদের এই অবস্থা হয়েছিল। তবে এখন তারা শঙ্কামুক্ত।

সরাইল থানার এএসআই গোপীনাথ এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। অজ্ঞান চারজন হাসপাতালে ভর্তি আছেন। এ ঘটনায় ভূক্তভোগী পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।


আরো সংবাদ

Instagram Web Viewer
agario agario - agario