২৪ মে ২০১৯

লক্ষ্মীছড়ি থেকে লাশ হয়ে সিরাজগঞ্জে ফিরলেন মঞ্জুর আলম

নিহত মঞ্জুর আলম - নয়া দিগন্ত

সিরাজগঞ্জ জেলার উল্লাপাড়া উপজেলার কয়রা হোরপাড়া গ্রামের জাহেদ প্রমানিকের ছেলে মঞ্জুর আলম (৫০)। জীবিকার টানে পরিবার পরিজন ছেড়ে কয়েকশ’ মাইল পাড়ি দিয়ে শ্রমিকের কাজে যোগ দিয়েছিলেন খাগড়াছড়ির লক্ষ্মীছড়িতে। বাড়ি ফিরলেন পরদিনই, কিন্তু লাশ হয়ে। রোববার রাত ১টার দিকে নিহতের লাশ লক্ষ্মীছড়ি থানা থেকে পাঠিয়ে দেয়া হয় এ্যাম্বুলেন্সে সিরাজগঞ্জের উদ্দেশ্যে। লাশ বুঝে নেন চাচাতো ভাই আসাদুল ইসলাম। ঘটনার দিন বেলা ১১ টার দিকে নিজ বাড়ি থেকে এসে কাজে যোগ দিয়েছিলেন। লক্ষ্মীছড়ি থানা সংলগ্ন নির্মাণাধীণ ব্রিজের ওয়েলডিং মেশিনের কাজ করার সময় বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে নির্মাণ শ্রমিক মঞ্জুর আলম’র করুন মৃত্যু হয়। শনিবার সন্ধ্যা পৌনে ৭ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
নির্মাণ কাজের ঠিকাদারের নিজস্ব প্রকৌশলী তন্ময় আহমেদ তপু এ প্রতিনিধিকে জানান, সাইডে পরে থাকা বাড়তি রড সরাতে গিয়ে ওয়েলডিং মেশিনে রড ছিটকে পড়লে বিদ্যুৎ শক করে তার মৃত্যু হয়।
জানা যায়, লক্ষ্মীছড়ি-মানিকছড়ি সড়কের লক্ষ্মীছড়ি থানা সংলগ্ন প্রায় ১০০ মি: নির্মাণাধীন ব্রিজের দ্বিতীয় গার্ডার এর নির্মাণ করতে ১০০০ কি: (২২০ ভোল্ট) জেনারেটরের মাধ্যমে ওয়েলডিং এর কাজ করছিল শ্রমিক মঞ্জুর আলম (৫৫)। এ সময় পিলার ক্রসের সময় জেনারেটরের তারে জড়িয়ে যায়। টের পেয়ে দ্রুত পাশের শ্রমিকরা উদ্ধার করে প্রথমে লক্ষ্মীছড়ি উপজেলা হাসপাতালে নেয়া হলেও ডাক্তার দ্রুত চমেক হাসপাতালে রেফার করে। পরে রাত সাড়ে ৯টার দিতে এ্যাম্বুলেন্স ফেরত আসে লক্ষ্মীছড়িতে। লক্ষ্মীছড়ি হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. আতাউর রহমান সাংবাদিকদের জানান, হাসপাতালে আসার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।
লক্ষ্মীছড়ি থানার অফিসার্স ইনচার্জ আব্দুল জব্বার এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, একটি সাধারণ ডায়রি করা হয়েছে। পরিবারের ইচ্ছাতেই লাশ পোষ্ট মর্টেম করা হয়নি।
উল্লেখ্য লক্ষ্মীছড়ি-মানিকছড়ি সড়কে প্রায় ৬৮ কোটি টাকা ব্যয়ে রানা বিল্ডারর্স নামে কুমিল্লার কচুয়া উপজেলার জাকির এন্টারপ্রাইজ ৫ টি ব্রিজ নির্মাণ কাজ করছেন।


আরো সংবাদ

Instagram Web Viewer
agario agario - agario