১৮ আগস্ট ২০১৯

প্রেমিকের পরকীয়া : স্ত্রীর স্বীকৃতি না পেয়ে তরুণীর কেরোসিন ঢেলে আত্মহত্যা

স্ত্রীর স্বীকৃতি না পেয়ে তরুণীর আত্মহত্যা - ছবি : সংগ্রহ

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে স্ত্রীর স্বীকৃতি না পেয়ে শাহেনূর আক্তার (২০) নামে এক তরুণী গায়ে কেরোসিন ঢেলে আত্মহত্যা করেছেন। সোমবার দুপুরে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এর আগে রোববার বিকেলে স্ত্রীর স্বীকৃতি না পেয়ে উপজেলার চরফলকন আইয়ুবনগর এলাকায় ওই তরুণী নিজ গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেন। নিহত শাহেনূর চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলার সোনাগাজী এলাকার জাফর আলমের মেয়ে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, উপজেলার লুধুয়া ফলকন এলাকার মনর আলীর ছেলে রিক্সাচালক মো. সালাউদ্দিন আইয়ুব নগর এলাকায় শ্বশুর বাড়িতে স্ত্রী ও দুই সন্তান নিয়ে ঘরজামাই হিসেবে থাকছেন। দেড় বছর আগে রং নম্বরের সূত্র ধরে মোবাইল ফোনে তার সঙ্গে শাহেনূর নামে ওই তরুণীর পরিচয় হয়। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। ঘটনার দিন রোববার ওই তরুণী চট্টগ্রাম থেকে সালাউদ্দিনের শ্বশুর বাড়িতে এসে দাবি করেন, এক বছর আগে তারা বিবাহের বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন। কিন্তু সালাউদ্দিন তাকে স্ত্রীর মর্যাদা দিচ্ছে না।

বিষয়টি নিয়ে ঝামেলা তৈরি হলে স্থানীয় ইউপি সদস্য হাফিজ উল্যাহসহ এলাকার লোকজন ওই তরুণীকে বিয়ের কাগজপত্র নিয়ে আসতে বলেন। পরে ওই তরুণী রিকশায় করে স্থানীয় বাজারে গিয়ে কেরোসিন কিনে আনেন এবং সালাউদ্দিনের শ্বশুর বাড়ির পাশের একটি সয়াবিন ক্ষেতে গিয়ে নিজের শরীরে আগুন ধরিয়ে দেন।

এ সময় স্থানীয় লোকজন ছুঁটে গিয়ে পানি দিয়ে আগুন নেভায়। ততক্ষণে তার শরীরের অধিকাংশ পুড়ে যায়। পরে ওই ইউপি সদস্যসহ স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে অবস্থার অবনতি ঘটলে রাতেই তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের বার্ন ইউনিটে প্রেরণ করা হলে সোমবার দুপুরে তার মৃত্যু হয়।

কমলনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) মুহাম্মদ আলমগীর হোসেন জানান, শরীরের প্রায় ৭৫ শতাংশ পুড়ে যাওয়ায় ওই তরুণীর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। তদন্ত করে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরো সংবাদ




bedava internet