২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

দাগনভূঞায় ছাত্রলীগ-স্বেচ্ছাসেবকলীগ সংঘর্ষ

-

ফেনীর দাগনভূঞায় ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবকলীগের দুই নেতার অনুসারীদের মধ্যে সংঘর্ষে ব্যবসায়ীসহ কমপক্ষে ৭ জন আহত হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ১৩ রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে পুলিশ। শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় এ প্রতিবেদন লেখার সময়ও এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছিল।

পুলিশ, দলীয় সূত্র ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আবু নাসের চৌধুরি আসিফ ও দাগনভূঞা পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক সাইফুল ইসলামের অনুসারীদের মাঝে দাগনভূঞা বাজার এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গত দুইদিন ধরে উত্তেজনা চলছিল। শনিবার বিকেল ৪টার দিকে স্থানীয় একটি মাঠে ফুটবল খেলা দেখতে গিয়ে বিবাদে জড়িয়ে পড়ে ছাত্রলীগের দুই কর্মী।

বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয় সওদাগর বাড়ি ও জগৎপুরের বেশকিছু বাসিন্দা এসে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। খবর পেয়ে আসিফ ও সাইফুল নিজ নিজ অনুসারিদের নিয়ে সেখানে গেলে উভয় পক্ষে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এক পক্ষ অপর পক্ষের উপর ইট, লাঠি, ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। এসময় ইটের আঘাতে বাজারের ব্যাবসায়ী আবুল বাশার আহত হন। তিনি একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

সংঘর্ষে কমপক্ষে ৭ জন আহত হয়েছেন বলে জানায় দলীয় একাধিক সূত্র। তবে এরা গোপনে চিকিৎসা নেয়ায় তাদের নাম জানা যায়নি। পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশ ১৩ রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে।

এ বিষয়ে কথা বলতে প্যানেল মেয়র ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা সাইফুল ইসলাম এবং ছাত্রলীগ নেতা আসিফকে মুঠোফোনে বার বার চেষ্টা করা হলেও তাদের পাওয়া যায়নি।

দাগনভূঞা থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ বলেন, পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিতে ফাঁকা গুলি চালায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকলেও এলাকায় উত্তেজনা রয়েছে বলে তিনি স্বীকার করেন। তিনি বলেন, বাজারে বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।


আরো সংবাদ