২১ নভেম্বর ২০১৮

মহেশখালীতে অস্ত্র গুলিসহ বিপুল সংখ্যক অস্ত্র তৈরীর সরঞ্জাম উদ্ধার

-

কক্সবাজারের দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীর কালারমারছড়ার দুর্গম পাহাড়ি অঞ্চলে স্থাপিত দুইটি অস্ত্র তৈরীর কারখানা থেকে শনিবার দিবাগত রাতে বিপুল সংখ্যক অস্ত্র, গুলি এবং অস্ত্র তৈরীর সরঞ্জামসহ দুই কারিগরকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৭ এর সদস্যরা। এসময় অস্ত্র তৈরীর কারখানা দুটি গুঁড়িয়ে দেয়া হয়।

অস্ত্রগুলো হচ্ছে দেশীয় তৈরী ৭টি একনলা বন্দুক, ১২টি এসবিবিএল, ১টি ইবিএল, ২৪ রাউন্ড গুলি ও বিপুল সংখ্যক অস্ত্র তৈরীর সরঞ্জাম।

গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছেন- মোহাম্মদ আবদুল হাকিম (৩৮) ও মো.শহিদুল্লাহ (৩১)।

র‌্যাব ৭-এর কোম্পানি কমান্ডার মেজর মেহেদী হাসান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার বিকেলে আমরা কালারমারছড়া বাজারে অভিযান চালিয়ে সেখান থেকে দুইজনকে আটক করি। পরে তাদের দেয়া তথ্য মতে অস্ত্রের কারখানার সন্ধানে দুর্গম পাহাড়ে সারারাত ধরে চলে অভিযান। অভিযান শেষ হয় সকাল ৬টার দিকে। গ্রেফতারকৃতদের যথাযথ আইনী প্রক্রিয়ায় থানা পুলিশে দেয়া হবে।

উল্লেখ্য, মহেশখালীর চারদিক সাগর ও নদী বেষ্টিত হওয়ায় অবৈধ অস্ত্র পরিবহন সহজতর বলে একাধিক সূত্রে প্রকাশ। এ কারণে র‌্যাব-পুলিশের অভিযানের মাঝেও বার বার মহেশখালীর গহীন অরণ্যে গড়ে উঠে অস্ত্র তৈরীর কারখানা। গত পাঁচ বছরে অন্তত ২০টি অস্ত্র তৈরীর কারখানা গুঁড়িয়ে দেয়া হয়েছে মহেশখালীর বিভিন্ন স্থানে। তবু অস্ত্র তৈরী এবং বিক্রি থামছে না। এসব অস্ত্র তৈরী হয়ে মহেশখালী থেকে বিভিন্ন স্থানে চলে যায় অবৈধ অস্ত্রধারীদের হাতে।


আরো সংবাদ