২২ নভেম্বর ২০১৯

জঙ্গলে অসামাজিক কাজের সময় মাদক-নারীসহ হাতেনাতে ধরা পড়ল ৩ যুবলীগ নেতা

বরিশালের উজিরপুরে অসামাজিক কার্যকলাপ ও ইয়াবা সেবনকালে আওয়ামী লীগ-যুবলীগ নেতা, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি এবং এক নারীসহ চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর) রাত ১২টার দিকে উপজেলার গুঠিয়া ইউনিয়নের দাসেরহাট গ্রামের একটি জঙ্গলের মধ্যে থাকা পরিত্যক্ত ঘর থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তাদের নিকট থেকে ইয়াবা সেবনের সরঞ্জামাদিসহ আট পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

তাদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়েরের পর শুক্রবার (৮ নভেম্বর) দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, সাবেক উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক আওয়ামী লীগ নেতা আতাহার হোসেন খান (৪৫), দাসেরহাট জেডএ খান মাধ্যমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি স্থানীয় যুবলীগ নেতা জাহাঙ্গীর হাওলাদার (৩৫), স্থানীয় যুবলীগ নেতা চিহ্নিত মাদক বিক্রেতা সাইফুল ইসলাম (৩২) ও ডহরপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদের মেয়ে স্বামী পরিত্যক্তা মাইশা আক্তার মুন্নী।

পুলিশ জানিয়েছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে থানা পুলিশ খবর পায় গুঠিয়ার রৈভদ্রাদি গ্রামের জঙ্গলের মধ্যে একটি পরিত্যক্ত ঘরে ইয়াবা সেবন ও অসামাজিক কার্যকলাপ চলছে। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় রাত ১২টার দিকে ওই জঙ্গলে অভিযান চালায় থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মানিকসহ অন্যান্যরা।

তখন জঙ্গলে থাকা স্থানীয় নান্না মুন্সির ওই পরিত্যক্ত ছোট্ট ঘরের মধ্যে ইয়াবা সেবনরত অবস্থায় ওই চারজনকে আটক করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে আট পিস ইয়াবা ও ইয়াবা সেবনের বিভিন্ন সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে উজিরপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিশির কুমার পাল জানান, ‘ইয়াবাসহ চার জন আটকের ঘটনায় এসআই মিজানুর রহমান বাদী হয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা দায়ের করেছে। একই সাথে গ্রেফতারকৃতদের ওই মামলায় শুক্রবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।’

স্থানীয় একাধিক বাসিন্দারা জানিয়েছেন, ‘গ্রেফতার হওয়া এই গ্রুপটি এর আগে স্থানীয় দাসেরহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও জেড.এ.খান মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভবনের প্রায় রাতেই মাদকের বড় আসর বসাতো। যা চলতো গভীর রাত পর্যন্ত।

এছাড়াও এই গ্রুপটি মাদক সেবনের পাশাপাশি আশপাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ইয়াবা এনে গুঠিয়ার চিহ্নিত মাদক বিক্রতাদের দিয়ে গ্রামে ছড়াচ্ছে। তবে এরা সকলে স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী হওয়ায় কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পায়নি। সম্প্রতি কিছুদিন আগে তারা স্থানীয় এক সাংবাদিকের উপর হামলা চালিয়ে আহত করেছিলো।’
উল্লেখ্য, গ্রেফতারকৃত যুবলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি জাহাঙ্গীর হাওলাদার কয়েকমাস আগেও ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে ছিলো। তাদের বিরুদ্ধে সেই মামলা আদালতে চলমান রয়েছে।


আরো সংবাদ

আজানের মধুর আওয়াজ শুনতে ভিড় অমুসলিমদের (২৫৪৫৭)ধর্মঘট প্রত্যাহার : কী কী দাবি মেনে নিয়েছে সরকার (২০৯৩৪)মানবতাকে জয়ী করেছে পাকিস্তান : রাবিনা ট্যান্ডন (১৯৪৬৭)কম্বোডিয়ায় কাশ্মির ইস্যুতে বক্তব্য, প্রতিবাদ করায় ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বের করা হলো বিজেপি নেতাকে (১৯১৮৮)ব্যাংকে ফোন দিয়ে তদবির করে ‘ছাত্রলীগ সভাপতি’ আটক (৯৮৭১)আবারো রুশ-চীনা অস্ত্র কিনবে ইরান, আশঙ্কা যুক্তরাষ্ট্রের (৯৭৬৩)৪ ভারতীয়কে জাতিসঙ্ঘের সন্ত্রাসী তালিকাভূক্ত করবে পাকিস্তান (৯৫৮৪)৩৫ বর্গ কিলোমিটার এলাকা নিয়ে নেপাল-ভারত তুমুল বিরোধ (৯৩৪৩)গৃহশিক্ষক বিয়েতে বাধা দেয়ায় ছাত্রীর আত্মহত্যা (৯০৫০)ইলিয়াস কাঞ্চনকে যে কারণে সহ্য করতে পারেন না বাস-ট্রাক শ্রমিকরা (৯০১৪)