১৬ অক্টোবর ২০১৯

পাহারা বসিয়ে তরুণীকে গণধর্ষণ!

তরুণীকে রাস্তা থেকে ধরে নিয়ে যায় ধর্ষকরা - নয়া দিগন্ত

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় এক গৃহপরিচারিকাকে (১৯) তিন বখাটে মিলে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ওই ধর্ষিতা রোববার রাতে এজাহারনামীয় তিনজন ও অজ্ঞাতনামা আরো দুইজনকে আসামি করে গণধর্ষণের মামলা দায়ের করেছেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ওই ধর্ষিতা গৃহপরিচারিকা পার্শ্ববর্তী দেবত্র গ্রামের জনৈক ব্যক্তির ঘরে দীর্ঘদিন ধরে ঝিয়ের কাজ করে আসছিল। প্রতিদিন ওই বাড়িতে আসা-যাওয়ার পথে স্থানীয় সাতঘর এলাকার বাসিন্দা আফজাল খানের ছেলে সুমন (২২), সালাম হাওলাদারের ছেলে ইমরান (২০) ও জিয়াম হাওলাদারের পুত্র রাজু (২৫) দীর্ঘদিন ধরে তাকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এতে ওই গৃহপরিচারিকা রাজী না হওয়ায় আসামিরা তার ওপর ক্ষিপ্ত হয়।

এর জের ধরে গত শুক্রবার সন্ধ্যারাতে নিজের বাড়ি থেকে কর্মস্থলে যাওয়ার উদ্দেশে গৃহপরিচারিকা রওয়ানা হলে পথিমধ্যে আগে থেকে ওঁৎপেতে থাকা আসামিরা জোরপূর্বক ধরে পার্শ্ববর্তী সাতঘর সরকারি ক্লিনিকের ছাদের ওপর নিয়ে যায়। এরপর ওড়না দিয়ে মুখ বেঁধে ওই তিনজন ও অজ্ঞাত আরো দুজন সহযোগীদের নিয়ে পালাক্রমে গণধর্ষণ করে। ধর্ষণের সময় ধর্ষকরা পাহারা বসিয়ে একের পর এক ধর্ষণ করে।

এরপর ধর্ষকরা ওই মেয়েটিকে নিয়ে ক্লিনিকের ছাদে অবস্থান করলে গভীর রাতে প্রতিবেশী জনৈক ব্যক্তি মাছ ধরতে যাওয়ার সময় টর্চ লাইটের আলোতে আসামিদের দেখতে পান। এসময় আসামিরা ধর্ষিতাকে ফেলে পালিয়ে যায়।

মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আব্দুল্লাহ মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান চলছে।


আরো সংবাদ




astropay bozdurmak istiyorum