১৬ অক্টোবর ২০১৯

আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বরগুনায় বসতঘর-দোকান ভাংচুর

উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বরগুনায় ৪০ বছরের ভোগ দখলীয় বসত ও দোকান ঘর ভাংচুর করেছে। বরগুনা জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার, বরগুনা পৌর মেয়র শাহাদাত হোসেনের নেতৃত্বে বীর মুক্তিযোদ্ধা পঙ্গু মুক্তিযোদ্ধা আঃ রবের দোকান ও বসত ঘর ভাংচুর করে শনিবার।

পঙ্গু মুক্তিযোদ্ধা আঃ রব জনান, ১৯৮২ সালে মহামান্য রাষ্ট্রপতি ১০ শতাংশ জমি দেওয়ার জন্য বরগুনা প্রশাসককে নির্দেশ দেন। তৎকালীন জেলা প্রশাসক বরগুনা মাছ বাজার পূর্বপাশে ৯ শতাংশ জমি বুঝিয়ে দেন। এক শতাংশ জমি এখন পর্যন্তও বুঝিয়ে দেননি। সেই থেকে জমিতে ঘর নির্মাণ করে বসবাস করে আসছি। জীবিকা নির্বাহের জন্য ঘরের সামনে দোকান দিয়ে ব্যবসা করে আসছি। কিন্তু বরগুনা পৌর মেয়রের অন্য দৃষ্টিতে আমার দোকান ও বসত ঘর ভাংচুর করে প্রশাসন। এতে প্রায় ৭ (সাত) লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি করেন।

তিনি আরও বলেন, এই জমিতে মহামান্য হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা আছে, হাইকোর্ট মামলা নং ৩৮৬৯/১৬ শেষ আদেশ ৩১ অক্টোবর-২০১৭ চলমান, এবং ভায়োলশন মামলা নং-৩৩/১৮ চলমান ২৩ জানুয়ারী ২০১৮। উচ্চ আদালতের এ নিষেধাজ্ঞা পরও অমান্য করে ভাংচুর করেছে প্রশাসন। তিনিও তার পরিবার বর্তমানে হুমকির মুখে আছে। যে কোন সময় তাদের বড় ধরনের ক্ষয় ক্ষতি হতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি। পঙ্গু মুক্তিযোদ্ধা আঃ রব মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সহযোগীতা চাচ্ছেন।


আরো সংবাদ




astropay bozdurmak istiyorum