২৩ মে ২০১৯

আবাসিক হোটেল থেকে নারীসহ যুবলীগ নেতা আটক

আবাসিক হোটেল থেকে আপত্তিকর অবস্থায় নারীসহ আটক যুবলীগ নেতা মোঃ রাসেল চাপরাশি - নয়া দিগন্ত

একটি আবাসিক হোটেল থেকে নারীসহ এক যুবলীগ নেতাকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃত যুবলীগ নেতার নাম মোঃ রাসেল চাপরাশি। বরগুনা জেলার পাথরঘাটা পৌর শহরের একটি আবাসিক হোটেল থেকে নারীসহ তাকে আটক করা হয়। আটককৃত রাসেল একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের ফিল্ড অফিসার হিসেবে কর্মরত বলে জানা গেছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে তাকে আটক করে পুলিশ।

যুবলীগ নেতা রাসেল চাপরাশিকে আবাসিক হোটেল থেকে আটকের সময় এক নারীকেও আটক করা হয়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে যৌন উত্তেজক তিন বোতল ঔষধ ও একটি নিারপদ প্যান্থার (কনডম) উদ্ধার করে পুলিশ। আটককৃত রাসেল পাথরঘাটা পৌর শহরের ৩নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি ও একই এলাকার মৃত মিন্টু চাপরাশির ছেলে।

পাথরঘাটা থানা পুলিশের এসআই মোঃ মনিরুজ্জামান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারি পাথরঘাটার একটি আবাসিক হোটেলে এক নারীসহ যুবলীগ নেতা রাসেল অবস্থান করছে। পরে সেখানে অভিযান পরিচালনা করে আপত্তিকর অবস্থায় তাকে ও একটি ওই নারীকে পাওয়া যায়। এরপর দুজনকেই আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। পরে তাদেরকে প্রসিকিউশনের মাধ্যমে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

আরো পড়ুন : সাভারে যুবলীগ নেতা ও ভাইদের বিরুদ্ধে তরুনীকে ধর্ষণের অভিযোগ

সাভার (ঢাকা) সংবাদদাতা, (৩১ আগস্ট ২০১৭)

সাভারের বিরুলিয়া ইউনিয়নের বাগ্নিবাড়ির ভোমকা এলাকায় গতকাল বৃহস্পতিবার এক তরুনীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে এক যুবলীগ নেতা ও তার ভাইদের বিরুদ্ধে। পরে সন্ধ্যা ৬টা ২০মিঃ ওই তরুনীকে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয়।

পরে রাতে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি)পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্েরর জরুরী বিভাগের ডাঃ সামছুর রহমান।

ধর্ষণের শিকার তরুনীর এক মামাতো ভাই জানান- তার ফুফাতো বোন (১৭) গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে তার বন্ধু শরীফকে নিয়ে বাগ্নিবাড়ির ভোমকা এলাকায় বেড়াতে যায়। তখন শরীফকে মারধর করে তাড়িয়ে দিয়ে ফুফাতো বোনকে চোখ বেঁধে জঙ্গলে নিয়ে ধর্ষণ করেছে বিরুলিয়ার আক্রাইনের বাসিন্দা ও সাভার থানা কমিটির সহ-সভাপতি যুবলীগ নেতা মহসিন মন্ডল, তার ছোট ভাই জুয়েল মন্ডল, খালাত ভাই হামিদ মন্ডল, চাচাত ভাই তানভির মন্ডল ও কালিয়াকৈর এলাকার পারভেজ। ধর্ষণের শিকার ওই তরুনী জানান, তাকে ও তার বন্ধুকে মারধর করে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করেছে।

সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবার ও পরিকল্পনা কর্মকর্তা আমজাদুল হক জানান- প্রাথমিক ভাবে আমরা ধর্ষণের আলামত পেয়েছি।

ধর্ষণের শিকার তরুনীর এক মামাতো ভাই জানান- তার ফুফাতো বোন (১৭) গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে তার বন্ধু শরীফকে নিয়ে বাগ্নিবাড়ির ভোমকা এলাকায় বেড়াতে যায়। তখন শরীফকে মারধর করে তাড়িয়ে দিয়ে ফুফাতো বোনকে চোখ বেঁধে জঙ্গলে নিয়ে ধর্ষণ করেছে বিরুলিয়ার আক্রাইনের বাসিন্দা ও সাভার থানা কমিটির সহ-সভাপতি যুবলীগ নেতা মহসিন মন্ডল, তার ছোট ভাই জুয়েল মন্ডল, খালাত ভাই হামিদ মন্ডল, চাচাত ভাই তানভির মন্ডল ও কালিয়াকৈর এলাকার পারভেজ।


আরো সংবাদ




agario agario - agario