২২ নভেম্বর ২০১৮

গলাচিপায় বখাটের উৎপাতে এক মাস ধরে স্কুলে যাওয়া বন্ধ মেয়েটির

-

পটুয়াখালীল গলাচিপায় বখাটেদের হুমিকর মুখে এক মাস যাবত বিদ্যালয় যেতে পারছে না বকুলবাড়িয়া ইউনিয়নের পাতাবুনিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির এক ছাত্রী।

ওই ছাত্রীর পরিবারের অভিযোগ, প্রতিকার চেয়ে পুলিশ প্রশাসনের কাছে অভিযোগ দেয়ার পরও প্রকাশ্য ঘুরে বেড়াচ্ছে বখাটেরা। বখাটের হুমকিতে আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন তারা।

উপজেলার বকুলবাড়িয়া ইউনিয়নের ছোনখোলা গ্রামের ওই ছাত্রীটির পরিবারিক সূত্র জানায়, ওই এলাকার বখাটে বাচ্চু খান, নজরুল ইসলাম, সুমন দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন সময় বিদ্যালয় আসা-যাওয়ার পথে কুপ্রস্তাব দিত। কয়েকদিন আগে ওই ছাত্রী বিদ্যালয় থেকে বাড়ি যাওয়া পথে বখাটেরা রাস্তায় একা পেয়ে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। এ সময় ওই ছাত্রীকে এলাকাবাসী বখাটের হাত থেকে উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে যায়।

ঘটনাটি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু হানিফকে লিখিত ভাবে জানালে তিনি থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানিয়ে গলাচিপা থানায় অভিযোগ দাখিল করেন। কিন্তু অজ্ঞাত কারণে পুলিশ বখাটেদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

পরে এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা পটুয়াখালী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে অভিযোগ দাখিল করেন।

ছাত্রীটির বাবা জানান, ‘আদালতে অভিযোগ দেয়ার পর বখাটেদের উৎপাত আরো বেড়ে গেছে। ইতিমধ্যে আমার বড় ছেলেকে বখাটেরা মারধর করেছে। আমাকে ও পরিবারকে প্রতিনিয়ত হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছে। বখাটেদের ভয়ে আমার মেয়ের একমাস যাবত বিদ্যালয় যাওয়া বন্ধ রয়েছে।’

বিদ্যালয়ের প্রধান শিকক আবু হানিফ ঘটনার সত্যতার কথা স্বীকার করে বলেন, ‘আমি এলাকা লোকজন নিয়ে বখাটেদের বুঝানোর চেষ্টা করেছি। কিন্তু তারা কারো কথাই কর্ণপাত করে না।’

গলাচিপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: জাহিদ হোসেন জানান, আদালতে নির্দেশ অনুযায়ী মামলা নেয়া হয়েছে, তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরো সংবাদ