২২ জুলাই ২০১৮

বরিশালে বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় ৪ কাউন্সিলর নির্বাচিত

-

বরিশাল সিটি করপোরেশন (বিসিসি) নির্বাচনে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন ২০ দলীয় জোটের শরিক দল খেলাফত মজলিশের মেয়র প্রার্থী অধ্যাপক (অব) এ কে এম মাহবুব আলম। এছাড়া ১৭ জন সাধারণ ওয়ার্ড এবং দুইজন মহিলা ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থীসহ ১৯ কাউন্সিলর প্রার্থীও মনোনয়ন প্রত্যাহারের আবেদন করেছেন।

এর ফলে তিনজন আওয়ামী লীগ মনোনীত সাধারণ এবং ১ জন বিএনপি সমর্থিত সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ড কাউন্সিলরসহ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ৪ জন কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন।

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত কাউন্সিলররা হলেন, ১৫নং ওয়ার্ডে লিয়াকত হোসেন লাবলু , ১৬ নং ওয়ার্ডে মোশাররফ আলী খান বাদশা এবং ১৯ নং ওয়ার্ডে গাজী নইমুল হোসেন লিটু বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। এরা সবাই আওয়ামী লীগ সমর্থিত ।

এছাড়া ১০, ১১ ও ১২নং ওয়ার্ডের সমম্বয়ে গঠিত মহিলাদের জন্য সংরক্ষিত ৪ নং আসনের তিন প্রার্থীর মধ্যে একজনের প্রার্থিতা বাছাইয়ে বাতিল এবং আরেকজন সোমবার প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নেয়ায় বিএনপি সমর্থিত আয়েশা তৌহিদা লুনাও বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন

মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে সোমবার (৯ জুলাই) দুপুরে নগরীর নথুল্লাবাদ বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন আঞ্চলিক নির্বাচন অফিসে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে স্ব-শরীরে উপস্থিত হয়ে প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের আবেদন করেন।

চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা অনুযায়ী মঙ্গলবার ১০ জুলাই ৬ জন মেয়র প্রার্থী, ৯৪ জন সাধারণ কাউন্সিলর এবং সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডের ৩৫ জন কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেন রিটার্নিং কর্মকর্তা। এরপরই শুরু হয় আনুষ্ঠানিক প্রচার-প্রচারণা। আগামী ৩০ জুলাই ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

বরিশালের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মুজিবুর রহমান এসব তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘মেয়র প্রার্থী এ কে এম মাহবুব আলম লিখিত আবেদনে ব্যক্তিগত কারণে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের কথা উল্লেখ করেছেন।’

অন্যদিকে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ সময় সোমবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত মেয়র প্রার্থী মাহবুব আলম ছাড়াও সাধারণ ওয়ার্ডের ১৭ জন এবং মহিলাদের জন্য সংরক্ষিত ওয়ার্ডের দুজন কাউন্সিলর প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের আবেদন জমা দেন।

এর আগে তফসিল ঘোষণার পর ২০ দলীয় জোটের শরিক খেলাফত মজলিস মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক একেএম মাহবুব আলমকে বিসিসি নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী ঘোষণা করে মনোনয়নপত্র জমা দেন। এরপর খেলাফত মজলিসের সঙ্গে সমঝোতার জন্য বিএনপির পক্ষ থেকে উদ্যোগ নেওয়া হয়।

কয়েক দফা বৈঠক শেষে সমঝোতার প্রেক্ষিতে গত শনিবার রাতে মেয়র পদ থেকে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের সন্মত হন খেলাফত মজলিসের মেয়র প্রার্থী একেএম মাহবুব আলম। এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার তিনি মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন।

এ ব্যাপারে খেলাফত মজলিশের মহানগর সভাপতি একেএম মাহবুব আলম বলেন, ‘কোনও ব্যক্তিগত স্বার্থ বা চাপের মুখে নয়, জোটের কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দেশ, জাতি ও জোটের স্বার্থে ২০ দলীয় জোটের একক মেয়র প্রার্থিতা নিশ্চিত করতে বিএনপির প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ারের সমর্থনে আমার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছি।’


আরো সংবাদ

‘মাহমুদুর রহমানের ওপর আক্রমণ বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি’ সাকিব তামিমের অর্ধশতকে বড় সংগ্রহের ইঙ্গিত বাংলাদেশের মাহমুদুর রহমানের উপর হামলার সময় দর্শকের ভূমিকায় ছিল পুলিশ মসজিদে নববীর সাবেক ইমাম ও মুসাইদ আত তাইয়ারকে গ্রেফতার মাহমুদুর রহমানের ওপর হামলা লজ্জাজনক: ইউট্যাব জুহি কে সালমান খানের আনুষ্ঠানিক বিয়ের প্রস্তাব, এবং.. মাহমুদুর রহমানকে সন্ত্রাসীদের হাতে দিয়েছেন কোর্টের ওসি : ফখরুল মঞ্জুর হত্যা মামলায় এরশাদসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন অস্ত্রবিরতি লঙ্ঘন করে গাজায় ফের ইসরাইলি হামলা গণমাধ্যমে ছাত্রশিবিরকে জড়িয়ে ভিত্তিহীন খবর প্রকাশের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ রাবিতে ভর্তি পরীক্ষা ২২ ও ২৩ অক্টোবর, আবেদন শুরু ১ সেপ্টেম্বর

সকল