২২ জুন ২০১৮

কাঁঠালিয়ায় নির্বাচন কর্মকর্তাসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা

-

স্মার্টকার্ড বিতরণে প্রতারণা করে অর্থ আদায়ের অভিযোগে ঝালকাঠির কাঁঠালিয়া উপজেলা নির্বাচন অফিসারসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ঝালকাঠির সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে বৃহস্পতিবার কাঁঠালিয়া উপজেলার জাঙ্গালিয়া গ্রামের মো. রিয়াজুল ইসলাম বাদী হয়ে দন্ডবিধির ৪২০/৪০৬/৫০৬ ধারায় এ মামলা দায়ের করেন।
আদালত অভিযোগ আমলে নিয়ে কাঁঠালিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জয়ন্তী রানী চক্রবর্তী, ডাটাএন্ট্রি অপারেটর রেজাউল জমাদ্দার, এম.এল.এস.এস মজিবর রহমান ও কাঁঠালিয়ার আওরাবুনিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান লিটনের বিরুদ্ধে সমন জারির আদেশ দেন। আগামী ৫ জুলাই তাদেরকে আদালতে হাজির হতে বলা হয়েছে।
মামলার অভিযোগে প্রকাশ গত ১০ মে থেকে ১২ মে পর্যন্ত কাঁঠালিয়া উপজেলার ৬ নম্বর আওরাবুনিয়া ইউনিয়নে নাগরিকদের মধ্যে স্মার্টকার্ড বিতরণের নির্ধারিত তারিখ ছিল।
উপজেলায় স্মার্টকার্ড রয়েছে ৭৫ হাজার ৩২১ জনের। বিতরণ করা হয়েছে ৫৯ হাজার । বিতরণের সময় যারা নতুন কার্ড নিতে এসেছেন তাদের প্রত্যেকের কাছ থেকে ২৩০ টাকা করে আদায় করা হয়। এ ছাড়া যাদের পুরোনো জাতীয় পরিচয়পত্র হারিয়ে গেছে তাদের কাছ থেকে ৩৪৫ টাকা করে আদায় করা হয়। এখনও অনেককে কার্ড দেওয়া হয়নি। এভাবে স্মার্টকার্ড বিতরণের নামে কাঁঠালিয়া উপজেলার নাগরিকদের কাছ থেকে উল্লিখিত চারজন হাতিয়ে নেন প্রায় ৫০ লাখ টাকা।
এবিষয়ে মামলার বাদী রিয়াজুল ইসলাম গত ৪ জুন ঝালকাঠি জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে আসামীরা ক্ষিপ্ত হয়ে বাদীকে জীবন নাশের হুমকি দেন।
মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী মুহঃ শামীম আলম বলেন, আদালতের বিচারক মো. সেলিম রেজা বাদীর অভিযোগ আমলে নিয়ে সকল আসামীর বিরুদ্ধে সমন জারির আদেশ দিয়েছেন।


আরো সংবাদ