esans aroma gebze evden eve nakliyat Ezhel Şarkıları indir Entrumpelung wien Installateur Notdienst Wien webtekno bodrum villa kiralama
২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

বানিয়াচংয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিদ্যালয়ের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

-

হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলায় এক ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিদ্যালয়ের আসবাবপত্র ক্রয়ের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ওঠেছে। স্থানীয় সরকার প্রকৌশলীর এলজিএসপি প্রকল্পের বরাদ্দের টাকা আত্মসাৎ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
অভিযুক্ত এরশাদ আলী বানিয়াচং উপজেলার ৬ নম্বর কাগাপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। তিনি ক্ষমতাসীন দলের যুব সংগঠন ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং এলাকার প্রভাবশালী লোক।
গত বছরের আট অক্টোবর নয়া দিগন্তে ‘চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়েছিল। ওই সংবাদের অভিযোগের বিষয়বস্তু ছিল অভিযুক্ত চেয়ারম্যান কর্তৃক সরকারি খেয়াঘাটের তিন বছরের ইজারার টাকা আত্মসাৎ ও বিধিবহির্ভূতভাবে খেয়াঘাট ইজারা প্রদান।
এ ছাড়াও ২০১৭-১৮ অর্থবছরে একই বিদ্যালয়ের আসবাবপত্র ক্রয় বাবদ আরো এক লাখ টাকা দেয়া হলেও ওই টাকারও কোনো হদিস পাওয়া যায়নি।
এ ব্যাপারে একতা উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মান্নান চোকদার জানান, ‘বিগত তিন বছরের মধ্যে এলজিএসপির বরাদ্দের কোনো উন্নয়ন কাজ করা হয় নাই।’ তবে চেয়ারম্যান বলছেন, কিছু অর্থ বরাদ্দ আছে, যা দিয়ে বিদ্যালয়ের কাজ করানো হবে।
ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মকবুল হোসেন জানান, ‘বিগত তিন বছরের মধ্যে বিদ্যালয়ের কোনো আসবাবপত্র ক্রয় করা হয়নি। তবে মাটি ভরাটের সামান্য কিছু কাজ করানো হয়েছে।’
ইউপি চেয়ারম্যান এরশাদ আলী দুই রকম কথা বলেছেন। তিনি প্রথমে বলেন, ‘এক লাখ টাকার মাটি ভরাট করানো হয়েছে।’ পরে বলেন, ‘আরো এক লাখ টাকার আসবাবপত্র ক্রয় করা হয়েছে।’
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: মামুন খন্দকার বলেন, ‘প্রধান শিক্ষক জানিয়েছেন তিন বছরের মধ্যে বিদ্যালয়ের কোনো আসবাবপত্র ক্রয় করা হয়নি। বিষয়টি আমি অবগত হয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যাবস্থা নেয়া হবে।’

 


আরো সংবাদ




short haircuts for black women short haircuts for women Ümraniye evden eve nakliyat