২১ জুলাই ২০১৯

দৌলতদিয়ায় ফেরি সঙ্কট ভোগান্তিতে ট্রাক চালকেরা চার দিন ধরে মেরামতে ৪ ফেরি

-

ব্যস্ততম দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে যাত্রী ও যানবাহন পারাপারে কাগজ কলমে ২০টি ফেরি থাকলেও কার্যত রয়েছে ১৫টি। বাকি পাঁচটি ফেরির মধ্যে যান্ত্রিক ত্রুটিজনিত কারণে চার দিন ধরে মেরামতে রয়েছে চারটি। আর বড় একটি ফেরি পাঠানো হয়েছে মাওয়া ঘাটে।
রাজধানীর সাথে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের প্রায় ২১টি জেলার অন্যতম যোগাযোগমাধ্যম দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুট দিয়ে প্রতিদিন আড়াই থেকে তিন হাজার যানবাহন পারাপার হয়। তাতে প্রতিদিন গড়ে চার-পাঁচ লাখ টাকা রাজস্ব আয় হয় সরকারের; কিন্তু দীর্ঘ দিন যানবাহনের তুলনায় ফেরি সঙ্কট রয়েছে এই নৌরুটে। আর দীর্ঘ ২০-২৫ বছর চলাচল করতে করতে ইঞ্জিন দুর্বল হয়ে পড়ায় প্রায়ই ফেরিগুলো অকেজে হয়ে পড়ছে। ফেরি বন্ধ ও সঙ্কটের কারণে এ রুটে যানজট এখন নিত্যদিনের ঘটনা। যানজট থেকে রক্ষা ও যাত্রীদের রোষানলে পড়ার ভয়ে বিআইডব্লিউটিসি কর্তৃপক্ষ যাত্রী ভোগান্তির বিষয়টি বিবেচনা করে বাস ও ব্যক্তিগত ছোট গাড়িগুলো অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পারাপার করছে, যে কারণে নৌরুট পারাপারে দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হচ্ছে পণ্যবাহী ট্রাক চালক ও শ্রমিকদের। চারটি ফেরি বিকল এবং একটি ফেরি মাওয়া ঘাটে পাঠানোর কারণে ট্রাক চালকদের এ ভোগান্তি হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিআইডব্লিøউটিসি কর্মকর্তারা।
বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয়ের তথ্যমতে, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ১১টি বড়, সাতটি ছোট ও মাঝারি ফেরি রয়েছে দু’টি। এর মধ্যে তিনটি বড় ও একটি মাঝারি সাইজের ফেরি মেরামতে রয়েছে। এ ছাড়াও বীরশেষ্ঠ হামিদুর রহমান নামের বড় আরেকটি ফেরি রয়েছে মাওয়া ঘাটে, যে কারণে দৌলতদিয়া ও পাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকায় থেমে থেমে দীর্ঘ হচ্ছে অপেক্ষমাণ যানবাহনের সারি।
বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয়ের বাণিজ্য বিভাগের সহকারী ব্যবস্থাপক সফিকুল ইসলাম জানান, দৌলতদিয়া- পাটুরিয়া নৌরুটের ২০টি ফেরির মধ্যে ১৫টি ফেরি যাত্রী ও যানবাহন পারাপারে চলাচল করছে, যে কারণে পাটুরিয়া ফেরিঘাটে অপেক্ষমাণ রয়েছে দুই শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক। বাস ও ছোট গাড়ির সাথে সিরিয়াল অনুযায়ী কিছু কিছু পণ্যবাহী ট্রাকও পারাপার করা হচ্ছে। আর মেরামতে থাকা দু’টি ফেরি শিগিগিরই ঘাটে আসবে। এতে যানজট কমবে বলে জানান এই কর্মকর্তা।


আরো সংবাদ




gebze evden eve nakliyat instagram takipçi hilesi