১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

ভাণ্ডারিয়ায় বিভিন্ন সড়কের বেহাল দশা

-

পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া উপজেলার ভাণ্ডারিয়া-কাউখালী সংযোগ সড়কসহ উপজেলার বেশ কয়েকটি সড়ক সংস্কারের অভাবে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে রয়েছে। ফলে যানবাহনসহ পথচারীদের দুর্ভোগ চরমে উঠেছে।
সরেজমিন দেখা যায়, এসব সড়কে কার্পেটিং উঠে গিয়ে বড় বড় খানাখন্দের সৃষ্টি হয়েছে। এ ছাড়া ড্রেনেজ সমস্যার কারণে পানি জমে কিছু কিছু নবনির্মিত সড়কেও একই অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। ভাণ্ডারিয়া উপজেলার পৌর শহরের লক্ষীপুরা মহল্লার কলেজ সড়ক হয়ে ভাণ্ডারিয়া-কাউখালী সংযোগ সড়কটি দীর্ঘ এক যুগ ধরে বেহাল দশা। এলজিইডি নির্মিত এ সড়কের অধিকাংশ কার্পেটিং উঠে গেছে। চলতি বছর এ সড়কটি সংস্কারের উদ্যোগ নিলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঠিক পরিমাপের অভাবে কাজটি আবার বন্ধ হয়ে যায়।
এ ব্যপারে ভাণ্ডারিয়া পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী মো: শহিদুজ্জামান আকন্দ জানান, শিগগিরই এ সড়কটি সংস্কারের জন্য দরপত্র আহ্বান করা হবে।
বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন সরদারপাড়া এলাকার এলজিইডি নির্মিত সড়কে কার্পেটিং উঠে গিয়ে খানাখন্দের সৃষ্টি হয়েছে। অন্য দিকে উপজেলার টিঅ্যান্ডটি সড়কের কার্পেটিং উঠে গিয়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে গেছে। এ সড়ক থেকে শহরের পণ্য পরিবহনের জন্য ভারী যানবাহন চলাচল করায় বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে।
পথচারী মনির হোসেন বলেন, এ সড়কটি বর্তমানে ধান চাষের উপযোগী। এ সড়ক থেকে চলাচল করতে গিয়ে প্রতিনিয়ত যানবাহন উল্টে কেউ না কেউ আহত হচ্ছেন।
এ ব্যাপারে এলজিইডির উপজেলা প্রকৌশলী জতির্ময় মোহন্ত বলেন, শিগগিরই এ সড়কের সংস্কার কাজ শুরু হবে। ওয়ার্ক অর্ডার দেয়া হয়েছে।
দক্ষিণ ভাণ্ডারিয়া কামিনি প্রভা স্কুল সংলগ্ন সড়কে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে বিভিন্ন স্থান দেবে গেছে। ভাণ্ডারিয়া-নৈকাঠী সড়কের পৌর শহরের লক্ষ্মীপুরা মহল্লার নাসিম হাওলাদারের বাড়ির সামনের সড়কে ভাঙন দেখা দিয়েছে। এ সড়কের একটি অংশ খালে ভেঙে গেছে। বর্তমানে এ সড়ক থেকে ঝুঁকি নিয়ে যানবাহন চলাচল করছে। ভাণ্ডারিয়া-মাটিভাঙ্গা সড়কের প্রায় দুই কিলোমিটার সড়ক সংস্কারের অভাবে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।
এ দিকে উপজেলা নদমূলা-শিয়ালকাঠী ইউনিয়নের পোনা নদী তীরবর্তী এলাকায় এলজিইডি নির্মিত হেরিংবন সড়কটির বিভিন্ন স্থান দেবে গিয়ে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এ এলাকার একমাত্র এ সড়কটি ভেঙে যাওয়ায় জনসাধারণে চলাচলে দুর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে। নদমূলা বাজার থেকে মাঝিবাড়ী বাজার পর্যন্ত সড়কটির বিভিন্ন স্থানে কার্পেটিং উঠে গেছে। এলাকাবাসী আঞ্চলিক মহাসড়কের সাথে এ সংযোগ সড়কটি সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে ভাণ্ডারিয়া উপজেলা প্রকৌশলী জতির্ময় মোহন্ত জানান, এলজিইডির আওতাধীন ভাঙাচোরা সব সড়ক সংস্কারের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সব সড়ক সংস্কার করা হবে।


আরো সংবাদ

সকল




Hacklink

ofis taşıma

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme