২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

কুড়িগ্রামে নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি, বন্যার আশঙ্কা

-

উজান থেকে নেমে আসা ঢলে কুড়িগ্রামের ধরলা, তিস্তা ও ব্রহ্মপুত্রসহ সব নদনদীর পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। এদিকে নদী ভাঙন শুরু হওয়ায় গত মঙ্গলবার দুপুরে জেলা সদরের ভোগডাঙ্গা ইউনিয়নের ভাঙন এলাকার মানুষজন নদী তীরবর্তী এলাকায় ভাঙনরোধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মানববন্ধন করেছে।
নদনদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার ভোগডাঙ্গা ইউনিয়নের সাতভিটা, নানকার, নন্দদুলালের ভিটা, মডেল কলেজ, পাটেশ্বরী বাজার এলাকায় ব্যাপক ভাঙন দেখা দিয়েছে। সেই সাথে জেলার ৯টি উপজেলার চরাঞ্চল ও নদী তীরবর্তী নি¤œাঞ্চলে পানি ঢুকে পড়েছে।
এদিকে পানি বৃদ্ধির ফলে নি¤œাঞ্চলের অনেক সবজিক্ষেত ডুবে গেছে। এতে কৃষকরা হতাশ হয়ে পড়েছে।
কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্র জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় কুড়িগ্রামের ১৬টি নদনদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। ধরলা নদীর পানি বিপদসীমা ছুঁই ছুঁই করছে।
ভাঙনকবলিত এলাকার জামিনা, আলেয়া, ছকিনা বলেন, ‘ঘরবাড়ি হারিয়ে আমরা এখন রাস্তায় আছি। জমাজমি, গাছপালা, সবে পানিত ভাসি গেইছে, এখন আমরা কোথায় থাকি।’
ভোগডাঙ্গা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান বলেন, হঠাৎ করে ধরলা নদীর পানি বৃদ্ধিতে আমার ইউনিয়নে পাঁচটি গ্রামে ভাঙন দেখা দিয়েছে। সরকারের সহযোগিতা কামনা করছি।
জেলা প্রশাসন জানায়, কুড়িগ্রামে বন্যা মোকাবেলায় সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে।


আরো সংবাদ