বেটা ভার্সন

অতিরিক্ত ভাড়া ও যাত্রী হয়রানি শিমুলিয়া ঘাটে গাড়ি পারাপারে দীর্ঘ সারি

-

ঈদকে ঘিরে মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়া ঘাট এলাকায় যাত্রী ও যানবাহনের চাপ বৃদ্ধি পেয়েছে। বেড়েছে অতিরিক্ত ভাড়া ও যাত্রী হয়রানি।
গতকাল বুধবার ভোর থেকেই প্রিয় মানুষের সাথে ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করতে যাওয়া মানুষ যার যার গন্তব্যে যাত্রা শুরু করেছেন। ঘাটে প্রায় সাত শতাধিক যানবাহন পারাপারের অপোয়। বেলা বাড়ার সাথে সাথে যানবাহনের সাড়ি দীর্ঘ হবে বলে জানিয়েছে বিআইডব্লিউটিসি কর্তৃপ।
বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) গিয়াসউদ্দিন পাটোয়ারী বলেন, রোববার ভোর থেকেই যাত্রী ও যানবাহনের চাপ বাড়তে শুরু করেছে। ঘাট এলাকায় ছোট বড় মিলিয়ে সাত শতাধিক যানবাহন পারাপারের অপোয় রয়েছে। এর মধ্যে মোটরসাইকেল ও ছোট গাড়ির সংখ্যাই বেশি। ২০টি ফেরি দিয়ে এসব যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। এক সাথে এতবেশি গাড়ি আসার কারণে একটু সময় লাগছে।
তিনি জানান, সকাল থেকে প্রায় এক হাজার মোটরসাইকেল ও প্রাইভেট কার পার হয়েছে। যাত্রীবাহী যানবাহনগুলোকে আগে প্রাধান্য দিয়ে পারাপার হতে দেয়া হচ্ছে। যাত্রীদের যানবাহনের চাপ কম থাকলে পণ্যবাহী যানবাহন যাতায়াত করছে। শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে ২০টি ফেরি চলাচল করছে চারটি ঘাট দিয়ে।
বেনাপোলগামী যাত্রী মিথুন সাহা অপু বলেন, সকালে ২০০ টাকা দিয়ে স্পিড বোটে পার হয়েছিলাম। বোটগুলোতে অতিরিক্ত ভাড়া ও যাত্রী নিচ্ছে। লঞ্চ ও সিবোট ঘাট এলাকায় যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড়।
দীর্ঘ সময় গাড়িতে অপো ও ফেরি ছাড়তে বেশি সময় লাগায় ােভ প্রকাশ করেছেন অনেক যাত্রী।

 


আরো সংবাদ