১৭ জুলাই ২০১৯

বৈচিত্রের শক্তিতে শক্তিশালী হবে অস্ট্রেলিয়া : প্রথম মুসলিম নারী সিনেটর

বৈচিত্রের শক্তিতে শক্তিশালী হবে অস্ট্রেলিয়া : প্রথম মুসলিম নারী সিনেটর - সংগৃহীত

অস্ট্রেলিয়ার প্রথম মুসলিম নারী সিনেটর হিসেবে যোগদান করেছেন মেহেরিন ফারুকি। দেশটির চলমান বর্ণবাদ বিতর্কের মধ্যেই বুধবার তিনি নিয়োগ পেয়েছেন।  মেহেরিন পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত অস্ট্রেলিয়ান।

সিনেটর হওয়ার পর গণমাধ্যমে দেয়া দেয়া এক সাক্ষাৎকারে মেহেরিন ফারুকি বলেন ‘বৈচিত্রের শক্তিতে আরও শক্তিশালী হবে অস্ট্রেলিয়ার ভবিষ্যৎ।’

প্রথমদিনেই আরেক সিনেটর ফ্রেসার অ্যানিংয়ের মুসলিম অভিবাসন বিরোধী বক্তব্য নিয়ে উত্তাল ছিল সংসদ। মেহেরিন ফ্রেসার অ্যানিংয়ের বর্ণবাদী মন্তব্য সম্পর্কে বলেন, ‘এর মতো খারাপ আর কিছু হতে পারে না।’

মেহেরিন গ্রিনস পার্টি থেকে নিউ সাউথ ওয়েলসের প্রতিনিধিত্ব করছেন। একটি শূন্যপদ পূরণে নিউ সাউথ ওয়েলস থেকে নির্বাচিত গ্রিন পার্টির এ সংসদ সদস্যকে বুধবার সিনেট সদস্য হিসেবে নির্বাচিত করা হয়।

১৯৯২ সালে পরিবারের সাথে অস্ট্রেলিয়ায় যান মেহরিন। রাজনীতিতে প্রবেশের আগে পরিবেশ ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ডক্টরেট করেন। ২০১৩ সালের পার্লামেন্ট নির্বাচনের মাধ্যমে এমপি হন তিনি।

আগামী সপ্তাহে তিনি শপথ নেবেন বলে জানা গেছে। গণহত্যা সংক্রান্ত ইস্যু ব্যবহার করে সমালোচিত ফ্রেসার অ্যানিংয়ের কঠোর সমালোচনা করে আসছিলেন মেহরিন।

সিনেট সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর সংসদে প্রথম বক্তব্যে বুধবার তিনি বলেন, অ্যানিং লাখ লাখ অস্ট্রেলিয়ানের মুখে ঘৃণা ও বর্ণবাদের বমি উদগিরিত করছেন। আমি একজন মুসলিম অভিবাসী। আমি সিনেটর হচ্ছি। ফ্রেশার ম্যানিং তো এখানে কাঁচকলাটাও করতে পারবেন না।

 


আরো সংবাদ

gebze evden eve nakliyat instagram takipçi hilesi