২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

যে ‘ভুলে’ স্বর্ণ হাতছাড়া হলো বাকীর

আব্দুল্লাহ হেল বাকী
আব্দুল্লাহ হেল বাকী - সংগৃহীত

‘স্বর্ণের একদম কাছে থেকে ফিরে এসেছি, একটা সুযোগ ছিল। আমি সন্তুষ্ট’, গোল্ড কোস্টে কমনওয়েলথ গেমসে ১০ মিটার এয়ার রাইফেলে রুপা জেতার পর এভাবে নিজের অনুভূতির কথা প্রকাশ করেন আব্দুল্লাহ হেল বাকী।

শেষ পর্বের আগের দুই রাউন্ডে এক নম্বরে ছিলেন বাকী। কীভাবে স্বর্ণ পদক হাতছাড়া হল তার কাছ থেকে?

বাকী বলেন, ‘শুরুতে আমি কোনো চাপে ছিলাম না। শেষ শটেও আমার লিড ছিল, ১০.১ করতে পারলেও হয়তো জিতে যেতাম। তবে যা হয়নি তা নিয়ে আর ভাবছি না।’

শেষ শটের আগের রোমাঞ্চটা কেমন ছিল? এমন প্রশ্নের জবাবে রুপাজয়ী বাকী বলেন, ‘প্রতিপক্ষ যখন শট শেষ করে তখনই আমি স্কোরে একবার চোখ বুলিয়েছিলাম, এটা আমি আগেই জানতাম যে আমাকে কত পেতে হবে।’

‘এটা শ্যুটিংয়ের মূলনীতির বিরুদ্ধে কোচ জানলে নিশ্চিত তিরস্কার করবেন আমাকে। শ্যুটিংয়ে এটা একদমই উচিত না।’

‘এই ভুলটার কারণেই হয়তো পিছিয়ে গেছি। সেখানেই চাপ নিয়ে ফেলেছি যে এতো পয়েন্ট পেতেই হবে।’

২৪৪.৭ স্কোর নিয়ে ইভেন্ট শেষ করেছেন ২৮ বছর বয়সী এই বাংলাদেশী শ্যুটার।

২৪৫ স্কোর নিয়ে স্বর্ণ পেয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার ডেইন স্যাম্পসন। আর ২২৪.১ পয়েন্ট নিয়ে ব্রোঞ্জ পেয়েছেন ভারতের রবি কুমার।

২০১৪ কমনওয়েলথ গেমসেও এই ইভেন্টে রুপা জিতেছিলেন মি. বাকী।

এবারের আসরের এই সাফল্য তিনি নিজেকেই উৎসর্গ করেছেন। তিনি বলেন, আমি নিজেই চেষ্টা করেছি। এই খেলার জন্য পড়াশুনা বা বিয়েশাদী কিছুই করা হয়নি।

জাতীয় পর্যায়ে ১০ মিটার এয়ার রাইফেল ইভেন্টে টানা চারবার স্বর্ণপদক পেয়েছেন মি. বাকী।

১৯৯০ সালে অকল্যান্ডের আসরে প্রথম সোনা জিতেছিল বাংলাদেশ। আতিকুর রহমান ও আব্দুস সাত্তার নিনির হাত ধরে এসেছিল ১০ মিটার এয়ার পিস্তলের দলগত সেরার পদকটি।

২০০২ সালে ম্যানচেস্টারের আসর থেকে বাংলাদেশকে দ্বিতীয় সোনা এনে দিয়েছিলেন আসিফ হোসেন খান। ১০ মিটার এয়ার রাইফেলের সেরা হয়েছিলেন তিনি।

সূত্র: বিবিসি


আরো সংবাদ