২১ জানুয়ারি ২০২০

হংকংয়ে আন্দোলন : একজনের গায়ে আগুন, অপরজনকে গুলি

খুব কাছে থেকে গুলি করার এ ভিডিও ফেসবুকে স্ট্রিম করা হয় - ছবি : বিবিসি

হংকংয়ে সোমবার সহিংস বিক্ষোভের সময় একজনের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়া এবং আরেকজনকে খুব কাছে থেকে পুলিশের গুলি করার ঘটনা ঘটেছে।

অগ্নিদগ্ধ লোকটি এখন সংকটজনক অবস্থায় হাসপাতালে, তবে গুলিবিদ্ধ ব্যক্তির দেহে অস্ত্রোপচারের পর তার জীবনাশংকা নেই বলে ডাক্তাররা জানিয়েছেন।

দুটি ঘটনারই ভিডিও অনলাইনে ছড়িয়ে পড়েছে।

হংকংয়ের বাণিজ্যিক এলাকার ১২ মাইল দূরে মা ওন শান এলাকায় একদল বিক্ষোভকারীর মধ্যে ঝগড়ার এক পর্যায়ে অজ্ঞাতনামা এক ব্যক্তির দেহে দাহ্য তরল পদার্থ ঢেলে দেয়া হয়।

ভিডিওতে দেখা যায় সবুজ পোশাক পরা লোকটি অন্য বিক্ষোভকারীদের বলছে, ‘তোমরা কেউই চীনা নও’। তখন অন্যরা জবাব দিচ্ছে ‘তুমি গ্রেটার বে এরিয়ায় চলে যাও’ - যা হংকং সীমান্তের ওপারে চীনা মূল ভূমির একটি অংশ।

এর পর লোকটির গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়। ভিডিও ফুটেজে তার সারা গায়ে দাউ দাউ করে আগুন জ্বলতে দেখা যায়।

পুলিশ কর্মকর্তা জনৎসে বলছেন, এটা ছিল একটা স্তম্ভিত হবার মতো ঘটনা।

তিনি জানান, তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে, এবং তার অবস্থা সংকটজনক।

অন্যদিকে এক বিক্ষোভকারীর ওপর পুলিশের গুলির ঘটনাটি ঘটে সোমবার সকালবেলা।

মাত্র তিন-চার ফুট দূর থেকে বিক্ষোভকারীর গায়ে গুলি করার দৃশ্যটি ফেসবুকে লাইভ স্ট্রিম করা হয়।

এতে দেখা যায়, একজন পুলিশ কর্মকর্তার সাথে একজন লোকের ধস্তাধস্তি হচ্ছে, এবং এর মধ্যেই কর্মকর্তাটি তার পিস্তল বের করে।

ঠিক তখনই কালো পোশাক এবং মুখোশ পরা আরেক জন লোক তার দিকে এগিয়ে এলে পুলিশ কর্মকর্তাটি খুব কাছে থেকে তাকে গুলি করে।

গুলিবিদ্ধ লোকটিকে পরে হাসপাতালে নেয়া হয় এবং তার দেহে অস্ত্রোপচার করার পর তার অবস্থা আশংকামুক্ত বলে জানা গেছে।

পুলিশ কর্মকর্তাটি আরো দু রাউন্ড গুলি ছুঁড়লেও তা কারো গায়ে লাগেনি। শহরের অন্য দুটি জায়গায় পুলিশ কর্মকর্তারা বন্দুক বের করলেও গুলি ছোঁড়েনি। তবে ‘পুলিশকে বেপরোয়াভাবে আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করার আদেশ দেয়া হয়েছে’ এমন খবর অস্বীকার করেন কর্মকর্তারা।

আজ হংকংয়ের কেন্দ্রস্থলে বাণিজ্যিক এলাকা ছাড়াও একটি বিশ্ববিদ্যালয় ও পাতাল রেল স্টেশনেও পুলিশ-বিক্ষোভকারী সংঘর্ষ হয়।

সোমবার এ্যালেক্স চৌ নামে একজন বিক্ষোভকারী সহিংসতায় নিহত হয়।

হংকংয়ে পাঁচ মাস ধরে চলমান বিক্ষোভ সাম্প্রতিককালে ক্রমশই সহিংস হয়ে উঠছে।

সূত্র : বিবিসি


আরো সংবাদ




krunker gebze evden eve nakliyat