১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

চীন-মার্কিন পাল্টাপাল্টি শুল্কারোপ কার্যকর

দীর্ঘ দিন ধরে চলমান চীন-মার্কিন বাণিজ্য যুদ্ধের অংশ হিসেবে ক্ষমতাধর এই দেশ দু’টির মধ্যে আমদানিকৃত সব পণ্যে পাল্টাপাল্টি শুল্কারোপের সিদ্ধান্ত রোববার ১ সেপ্টেম্বর থেকে কার্যকর হয়েছে। বিশ্লেষকদের মতে, নতুন এই সিদ্ধান্তে এরই মধ্যে আবার বাণিজ্য যুদ্ধ শুরু হল।

এখন থেকে এশিয়ার পরাশক্তি চীনের প্রায় সাড়ে ১২ কোটি ডলারের পণ্যে মোট ১৫ শতাংশ হারে শুল্ক কার্যকর করবে যুক্তরাষ্ট্র। যার মধ্যে বেশির ভাগই স্মার্ট স্পিকার, ব্লুটুথ, হেডফোনসহ বিভিন্ন ধরনের ফুটওয়্যার ও ইলেকট্রনিক পণ্য। তাছাড়া বাকি পণ্যগুলোর ওপর আরোপিত শুল্ক কার্যকর হবে আগামী ডিসেম্বর মাস থেকে।

যদিও পাল্টা জবাব হিসেবে, প্রথমবারের মতো যুক্তরাষ্ট্রের অপরিশোধিত জ্বালানি খাতে চীন প্রশাসনের আরোপিত ৫ শতাংশ শুল্ক আজ থেকেই বাস্তবায়িত হচ্ছে। বেইজিং বলছে, যুক্তরাষ্ট্রের সাথে চলমান দ্বন্দ্বে সম্ভাব্য হুমকি মোকাবেলায় ইতোমধ্যে নিজেদের প্রস্তুতি সম্পন্ন করে রেখেছে জিন-পিং প্রশাসন। তাছাড়া অর্থনৈতিক ধস ঠেকাতেও নেয়া হয়েছে নানামুখী উদ্যোগ।

এ দিকে মিনিস্ট্রি অব কমার্সের চাইনিজ অ্যাকাডেমি অব ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড অ্যান্ড ইকোনমিক কো-অপারেশন মডার্ন সাপ্লাই চেন ইনস্টিটিউট পরিচালক লিন মেং বলেছেন, ‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অতিরিক্ত শুল্কারোপের ফলে চীনা পণ্য সরবরাহ পদ্ধতিতে যে হুমকি দেখা দিয়েছে, এবার তা মোকাবিলায় দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা নিয়েছে বেইজিং।’

তিনি বলেন, ‘মূলত তারই অংশ হিসেবে বিভিন্ন পণ্য আমদানিতে বিকল্প উৎসের সন্ধান করছে বেইজিং। তাছাড়া মার্কিন পণ্যে আমাদের ৫ শতাংশ শুল্কারোপ তো আছেই। একই সাথে চীনা পণ্য রফতানিতে অন্যান্য দেশের সাথেও চুক্তি করা হচ্ছে।’

অন্য দিকে শুক্রবার (৩০ আগস্ট) মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছিলেন, ‘ক্ষমতাধর এই দেশ দু’টির মধ্যে চলমান বাণিজ্যিক পার্থক্য দূর করতে এই সেপ্টেম্বর মাসজুড়ে বেশ কয়েক দফায় আলোচনা হবে। যার ফলে উভয়পক্ষ শিগগিরই একটি সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য পৌঁছাতে পারবে।


আরো সংবাদ

আয়কর আপিল ট্রাইব্যুনালে জেলা জজ নিয়োগ দেয়া হবে : আইনমন্ত্রী ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপালের জামিন নাকচ খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে মৎস্যজীবী দলের মানববন্ধন দুর্নীতিগ্রস্ত ব্যাংক কর্মকর্তাদের তালিকা পাঠানোর নির্দেশ অধিক সার ব্যবহার পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর : কৃষি মন্ত্রী যথাযথ সেবা পেলে মানুষ কর দিতে উৎসাহিত হবে : এলজিআরডি মন্ত্রী নিরাপদ অভিবাসনের লক্ষ্য পূরণই আমাদের অঙ্গীকার প্রতিবন্ধীদের অধিকার সুরক্ষা আইন ২০১৩ বাস্তবায়নের আবেদন সাইটসের্ভাসের ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে আ’লীগের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটির সম্মেলন করার নির্দেশ হাসপাতালে নবজাতক কন্যা ফেলে বাবা-মা উধাও ঢাবিতে ‘ইয়ুথ ইমপ্যাক্ট : আনলিশিং দ্য পাওয়ার অব ইয়ুথ’ শীর্ষক সেমিনার শুরু

সকল