২৩ মে ২০১৯

ভারতে লোকসভা নির্বাচনের তৃতীয় দফার ভোট গ্রহণ চলছে

আজ ভোট দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি - ছবি : সংগৃহীত

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের তৃতীয় দফার ভোট গ্রহণ করা হচ্ছে আজ মঙ্গলবার। ভোট গ্রহণের সাত দফার মধ্যে আজই সবচেয়ে বেশি আসনে ভোট নেয়া হচ্ছে। দেশের ১৩টি রাজ্য এবং দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের ১১৭টি আসনে আজ ভোট নেয়া হচ্ছে। গুজরাট এবং কেরালার সমস্ত আসনের পাশাপাশি রাজ্যের আরও কিছু আসনেও ভোট আজ।

শুধু বেশি আসনে ভোট হওয়াই নয় প্রার্থী তালিকার দিক থেকেও এই দফাটি বিশেষ কিছু। গুজরাটের গান্ধীনগর থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। পাশাপাশি কেরালার ওয়ানড কেন্দ্র থেকে দাঁড়িয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। গত লোকসভা নির্বাচনে যে সমস্ত জায়গায় বিজেপির ফল তুলনামূলকভাবে খারাপ হয়েছিল আজ সে সব জায়গাতেই ভোট।

আজ গুজরাটে ২৬টি আসনে এবং কেরালার ২০টি আসনে ভোট হবে। এছাড়া উল্লেখ্যযোগ্য আসনের মধ্যে রয়েছে আসামের চারটি, বিহারের পাঁচটি, ছত্রিশগড়ে সাতটি, উত্তরপ্রদেশের দশটি, পশ্চিমবঙ্গের পাঁচটি, গোয়ার দুটি আসন, জম্মু-কাশ্মিরের একটি আসন।

আজকের ভোটে তারকা প্রার্থীদের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও বিজেপি শীর্ষ নেতা অমিত শাহ ছাড়াও রয়েছেন সমাজবাদী পার্টির প্রাক্তন প্রধান মুলায়ম সিং যাদব, আজম খান এবং বিজেপির জয়াপ্রদা।

আজ কাশ্মিরের অনন্তনাগ আসনের প্রথম পর্যায়ের ভোট। এই কেন্দ্রে আরও দুদিন ভোট নেওয়া হবে। স্বাধীনতার পর এই প্রথম ভারতের কোনও একটি লোকসভা কেন্দ্রে তিনবারে ভোট নেয়া হচ্ছে। ওই আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন কাশ্মিরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি। তার বিরুদ্ধে আছেন কংগ্রেসের জি এ মীর এবং ন্যাশনাল কনফারেন্সের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি হুসেন মাসুদী।

এবারই প্রথম গুজরাটের গান্ধীনগর আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। এতদিন এই কেন্দ্র থেকে নির্বাচন করতেন লাল কৃষ্ণ আদবানী।

আজ তৃতীয় দফার এ ভোটে ১৮.৫৬ কোটি ভোটার ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। আজকের ভোট শেষ হলে দেশের ৬টি রাজ্যের ৩০০ আসনে ভোট পর্ব সমাপ্ত হবে।

 

আরো পড়ুন : বিজেপিকে ভোট দিয়ে আঙ্গুল কেটে ফেললেন ভোটার
নয়া দিগন্ত অনলাইন, ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ১৯:৪১

ভারতের উত্তর প্রদেশের বুলান্দশেহর এলাকার ভোটার পবন কুমার বৃহস্পতিবার ভোট দেওয়ার পর নিজের তর্জনী কেটে ফেলে হৈচৈ ফেলে দিয়েছেন। আঙুলে ব্যান্ডেজ বাঁধা ২৫ বছরের এই দলিত যুবকের ভিডিও ফুটেজ সোশাল মিডিয়ায় ঝড় তুলেছে।

পবন কুমার বলেন, তিনি ভোট দিতে গিয়েছিলেন হিন্দু জাতীয়তাবাদী দল বিজেপি বিরোধী মোর্চার শরীক বহুজন সমাজ পার্টি বা বিএসপির প্রার্থীকে। কিন্তু ভোটকেন্দ্রে ঢুকে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে নানা প্রতীক দেখে বিভ্রান্ত হয়ে পড়েন। ভুল করে ভোট দিয়ে ফেলেন বিজেপিকে।

এরপর ভুল বুঝতে পেরে অনুশোচনা এবং ক্রোধে কেটে ফেলেন তার তর্জনীর ওপরের কিছু অংশ। ভারতে ভোট দেওয়ার পর ভোটারদের তর্জনীর ওপর দিকে অমোচনীয় কালির দাগ দিয়ে দেওয়া হয়। কালির দাগ দেওয়া আঙ্গুলের অংশটি ছুরি দিয়ে কেটে ফেলেন পবন কুমার।

তার পছন্দের দল বিএসপির নির্বাচনী প্রতীক হাতি। আর ক্ষমতাসীন হিন্দু জাতীয়তাবাদী বিজেপির প্রতীক পদ্মফুল। সামাজিক গণমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিও ফুটেজে পবন কুমারকে বলতে শোনা যায়, "আমি ভোট দিতে চেয়েছিলাম হাতি মার্কায়, কিন্তু ভুল করে ফুল মার্কায় চাপ দিয়ে ফেলি।"

পবন কুমার দলিত সম্প্রদায়ের মানুষ, আর দলিতরাই বহুজন সমাজ পার্টির প্রধান ভোটব্যাংক।

পবনের ভাই কৈলাস চন্দ্র বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, তার ভাই প্রথমবারের মত ভোটার হয়ে খুবই খুশী ছিল। "কিন্তু ভুল যায়গায় ভোট দিয়ে ফেলেছে তা বোঝার পর থেকেই তর্জনীর দিকে তাকিয়ে রাগে ফেটে পড়ছিল। তারপর একসময় আঙ্গুলটি কেটে ফেলে। সোশাল মিডিয়াতে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায় একটি টয়লেটের পাশে আঙ্গুলে ব্যান্ডেজ বাঁধা এক যুবক দাঁড়িয়ে। তার পায়ের নীচে একটি ছুরি।


আরো সংবাদ




agario agario - agario