২৫ মার্চ ২০১৯

বর্তমান বিশ্বের প্রবীণতম জীবিত নারী

প্রবীণতম জীবিত নারী
বর্তমান বিশ্বের প্রবীণতম জীবিত নারী জাপানের তানাকা - ছবি: সংগৃহীত

বর্তমান বিশ্বের প্রবীণতম জীবিত নারী হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছেন জাপানি নারী কেন তানাকা। বর্তমানে ১১৬ বছরের কিছুটা বেশি বয়সী এ নারীকে গিনেজ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডের পক্ষ থেকে সরকারি ভাবে এ কথা নিশ্চিত করা হয়েছে।

আট ভাইবোনের মধ্যে বাবা-মায়ের সপ্তম সন্তান কেন তানাকা। ১৯০৩ সালের ২ জানুয়ারি তার জন্ম।

১৯২২ সালে হাদি তানাকার সাথে বিয়ে হয় তার। নিজের চার সন্তান ছাড়াও আরো এক সন্তানকে দত্তক নিয়েছেন তিনি। পাঁচ সন্তানের এই জননী আজো নিজের কাজ নিজেই করেন।

তিনি খেলতে পছন্দ করেন বোর্ড খেলা ওথেলো। বাস করেন দক্ষিণ-পশ্চিম জাপানের ফুকুওকায়।

কোনো ধরনের আলসেমি না করে শীত-গ্রীষ্ম-বর্ষা সব সময়ই ঘড়ি ধরে ভোর ৬টায় উঠে পড়েন তিনি। নিজের কাজ সেরে অবসরে চলে গণিতের চর্চা।

এর আগে জীবিত সবচেয়ে বয়স্ক ব্যক্তির রেকর্ডও ছিল এক জাপানি নারীর। চিও মিয়াকো নামে ওই নারীর মৃত্যু হয় ১১৭ বছর বয়সে, ২০১৮ সালের জুলাইয়ে।

মিয়াকোর আগের সবচেয়ে বয়স্ক ব্যক্তির রেকর্ডও ছিল আরেক জাপানির।

আরো পড়ুন :
মারা গেলেন রাশিয়ার সবচেয়ে বয়স্ক নারী
নয়া দিগন্ত অনলাইন, ২২ জানুয়ারি ২০১৯
রাশিয়ার সবচেয়ে বয়স্ক নারী নানু শাওভা ১২৮ বছর বয়সে মারা গেছেন। দেশটির কাবারদিনো বালকারিয়ার নর্থ ককেশিয়ান রিপাবলিকের বাসিন্দা ছিলেন তিনি। সোমবার স্থানীয় প্রশাসন একথা জানিয়েছে। খবর তাসের।

রাশিয়া বুক অব রেকর্ডস অনুযায়ী, কাবারদিনো-বালকারিয়ার বকসান জেলার জায়ুকোভো গ্রামের শতবর্ষী নানু শাওভা রাশিয়ার সবচেয়ে বয়স্ক নারী ছিলেন। তিনি ১২৮ বছর বয়সে মারা যান।

এক প্রেস বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মে মাসে তার বয়স ১২৯ বছর হতো। বাকসান জেলা প্রশাসন তার পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছে।’

নানুকে ২০১৭ সালে রাশিয়া বুক অব রেকর্ডস সনদ দেয়া হয়।

বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক টেস্ট ক্রিকেটার
নয়া দিগন্ত অনলাইন, ৩১ অক্টোবর ২০১৮
বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক টেস্ট ক্রিকেটার এলিন অ্যাশ মঙ্গলবার ১০৭ বছরে পদার্পন করেছেন। খেলোয়াড়ি জীবনে সাতটি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন ইংল্যান্ডের এই নারী ক্রিকেটার।

১৯৩৭ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে টেস্টে অভিষিক্ত হয় অ্যাশের। ওই ম্যাচেই ২৩.০০ গড়ে ১০ উইকেট সংগ্রহ করেন তিনি।

একজন বিশেষজ্ঞ বোলার হওয়া সত্ত্বেও দ্বিতীয় বিশ্বকাপের কারণে দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচটি খেলার জন্য তাকে অপেক্ষা করতে হয়েছে আরো ১২ বছর।

১৯৪৯ সালে তিনি আবার টেস্ট ম্যাচ খেলা শুরু করেন। এ সময় চারটি ম্যাচে অংশ নিলেও সংগ্রহ করতে পারেননি কোনো উইকেট।

২০১১ সালে প্রথম কোনো মহিলা টেস্ট ক্রিকেটার হিসেবে ১০০ বছরে পা রাখেন অ্যাশ।

এই মুহূর্তে ৯৫ বছর বয়স নিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক পুরুষ টেস্ট ক্রিকেটারের আসনে আছেন দক্ষিণ আফ্রিকার জন ওয়াটকিনস।


আরো সংবাদ




iptv al Epoksi boya epoksi zemin kaplama Daftar Situs Agen Judi Bola Net Online Terpercaya Resmi

Hacklink

Canlı Radyo Dinle hd film izle instagram takipçi satın al ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme

instagram takipçi satın al