২৪ জানুয়ারি ২০১৯

মিয়ানমারের প্রশংসার পর সমালোচনায় বিদ্ধ টুইটার প্রধান

টুইটারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জ্যাক ডরসি - সংগৃহীত

রোহিঙ্গা মুসলিম জনগোষ্ঠীর উপর হত্যাকাণ্ড ও জাতিগত নিধনযজ্ঞ পরিচালনায় অভিযুক্ত মিয়ানমারকে পর্যটনের কেন্দ্র হিসেবে ভূয়সী প্রশংসা করেছেন টুইটারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জ্যাক ডরসি। আর তাএর সাথে সাথেই সমালোচনার মুখে পড়েছেন তিনি।

পর পর কয়েকটি টুইটে জ্যাক ডরসি মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলে তার ভ্রমণের অভিজ্ঞতা লেখেন। গত মাসে মেডিটেশনের জন্য মিয়ানমার ভ্রমণ করেন বলে এইসব টুইট বার্তায় জানান তিনি।

নিজের ভ্রমণ অভিজ্ঞতা তুলে ধরার পাশাপাশি জ্যাক ডরসি সবাইকে মিয়ানমার ভ্রমণের পরামর্শ দিয়ে লেখেন,‘দেশটি খুবই সুন্দর। সেখানে লোকজন দারুণ আনন্দে থাকে এবং খাবারও অসাধারণ। আমি দেশটির রেঙ্গুন, মানদালাই ও বেগান নগরী ভ্রমণ করেছি।’

কিন্তু ডরসি মিয়ানমারের সংখ্যালঘু মুসলিম রোহিঙ্গাদের দুর্ভোগের বিষয়টি উপেক্ষা করেছেন বলে সমালোচনা করেছেন অনেকেই।

গত বছর মুসলিম রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে ব্যাপক দমনাভিযান শুরু করে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। তারা হাজার হাজার নিরীহ রোহিঙ্গাকে হত্যা করার পাশাপাশি রোহিঙ্গা নারীদের ধর্ষণ, তাদের ঘরবাড়ি, জমির ফসলসহ সকল কিছু পুড়িয়ে দেয় এবং নিজেদের ভিটেমাটি ছেড়ে রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে পালিয়ে আসতে বাধ্য করে। এরপর থেকেই আন্তর্জাতিক মানিবাধিকার সংস্থাগুলোসহ, জাতিসঙ্ঘ ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় মিয়ানমারকে অভিযুক্তকরে দেশটির তীব্র সমালোচনা করে আসছে। পাশাপাশি মিয়ামারের কার্যতঃ প্রধান অং সান সুচির নোবেল পুরস্কারও কেড়ে নেয়ার দাবি করা হয়।

জ্যাক ডরসির সমালোচনা করে এক টুইটার ব্যবহারকারী টুইটারে বলেন,বিশেষ করে এই সময়ে বিনা পয়সায় তাদের (মিয়ানমার) জন্য পর্যটনের বিজ্ঞাপন করা নিন্দনীয়।

পাশাপাশি সমসাময়িক ঘটনাবলীকে অবজ্ঞা করা ও কোন সময়ে কোন কথাটা বলা ঠিক বা ভুল সে কাণ্ডজ্ঞান ডরসির নেই বলেও মন্তব্য করেন আরেক টুইটার ব্যবহারকারী।

অন্য আরেকজন টুইটার ব্যবহারকারী লেখেন,‘ডরসি অত্যন্ত দায়িত্বজ্ঞানহীন পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি কি তার সাইটে পোস্ট হওয়া খবর আর প্রতিবাদগুলোও দেখেন না?’

সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার সাংবাদিক মোহাম্মদ জামজুম বলেন, ডরসির টুইট দেখে তিনি একেবারেই বাকরুদ্ধ হয়ে গেছেন।

এদিকে বিবিসি জানায়, ডরসি এসব সমালোচনার কোনো জবাব দেননি। তবে এর আগে ডরসি বলেছিলেন, তার টুইটের প্রতিক্রিয়াগুলোর দিকে খেয়াল রাখবেন তিনি।


আরো সংবাদ