বিবিধ

৩৫ বছরে সফল জাকারবার্গ

মার্ক জাকারবার্গ

মার্ক এলিয়ট জাকারবার্গ ১৯৮৪ সালের ১৪ মে নিউ ইয়র্কের হোয়াইট প্লেইনস এলাকায় মনোচিকিৎসক ক্যারেন ও দন্তচিকিৎসক এডওয়ার্ড জাকারবার্গের ঘরে জন্মগ্রহণ করেন। বর্তমান প্রযুক্তি বিশ্বে তরুণ এ উদ্যোক্তা আলোচিত ব্যক্তিত্ব। গত ১৪ মে ৩৪ বছর পূর্ণ করে ৩৫ বছরে পা দিয়েছেন সফল এই উদ্যোক্তা। বিশ্বের সফল উদ্যোক্তা ও বিলিয়নেয়ার জাকারবার্গের মোট সম্পদের পরিমাণ সাত হাজার ৪০০ কোটি ডলার। এ পর্যন্ত প্রতিদিন গড়ে ৫৯ লাখ ৭০ হাজার ডলার জাকারবার্গের সম্পদে যুক্ত হয়েছে।

জাকারবার্গের শিক্ষাজীবন কেটেছে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে। বলা হয়, শিক্ষাজীবন শেষ না করেই তিনি বিশ্ববিদ্যালয় ছেড়েছিলেন। তিনি মূলত একজন কম্পিউটার প্রোগ্রামার ও সফটওয়্যার ডেভেলপার। ২০০৪ সালের জানুয়ারিতে ছাত্র অবস্থায় কয়েকজন সহপাঠী মিলে ‘দ্য ফেসবুক’ নামে ভার্চুয়াল যোগাযোগের প্লাটফর্ম প্রতিষ্ঠা করেন জাকারবার্গ। একই বছরের ৪ ফেব্র“য়ারি মাধ্যমটির পথচলা শুরু। যদিও পরে নাম পরিবর্তন করে শুধু ফেসবুক করা হয়েছিল। প্রযুক্তি খাতের তরুণ এ উদ্যোক্তাকে এর পর আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি।

ফেসবুক প্রতিষ্ঠায় জাকারবার্গের উদ্দেশ্য ছিল ভার্চুয়াল জগতে একজন আরেকজনের সাথে সম্পৃক্ত থাকা এবং নতুন বন্ধু তৈরি করা। পাশাপাশি বিভিন্ন বার্তা দেয়া ও বিভিন্ন বিষয়ে তথ্য জানানো। প্রথমদিকে সাইটটির কার্যক্রম শুধু হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যেই সীমিত ছিল। তখন থেকেই ধীরে ধীরে সাইটটির জনপ্রিয়তা বাড়তে থাকে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম হিসেবে শ্রেষ্ঠত্বের তকমা এখন ফেসবুকের। পথচলা শুরুর পর বিভিন্ন সময়ে যুক্ত হয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ, মেসেঞ্জার, ইনস্টাগ্রামের মতো বেশ কিছু জনপ্রিয় সেবার অ্যাপ।

আরো সংবাদ