নিত্যদিন

বানর, হাঙর ও ধোপার গাধা

সুদূর সেই প্রাচীনকালে ঘটেছিল অন্যরকম এই ঘটনা।
এক যে ছিল বানর, আর ছিল এক হাঙর। তারা দু’জনে খুবই ভালো বন্ধু। একে অন্যের সুযোগ-সুবিধা, ভালো-মন্দের দিকে খেয়াল রাখে সব সময়। বানরের নাম কীমা। হাঙরের নাম ছিল পাপা। দুই বন্ধুকে সবাই বলত মানিকজোড়। একজন ডাঙার প্রাণী। অপরজন বাস করে অতল সাগরে। দুইজন দুই ভুবনের বাসিন্দা। তাতে কোনো সমস্যা হয়নি। সমুদ্দুরের পাড়ে বড়সড় ঝাঁকড়া একটা ফলগাছে বানরের আস্তানা। সেই ফলগাছের অর্ধেকটা স্থলভাগে পড়েছে। বাকি অর্ধেক ডালপালা সাগরের পানি ছুঁই ছুঁঁই করে সারাক্ষণ। ভাটার সময়ে সামান্য একটুখানি জাগে। আবার জোয়ারের সময় অনেকটুকু তলিয়ে যায়।
ফলগাছটা আসলে একধরনের সুস্বাদু বাদামের গাছ। বানর রোজ সকালে এই মজাদার বাদাম দিয়ে নাশতা করে। পেটপুরে বাদাম খায়। প্রায়ই হাঙর এসে হানা দেয়। বানরকে পাপা বলে,
প্রিয় দোস্ত আমার, এক কাজ করো না কেন। কিছু বাদাম ছুড়ে দাও না আমার কাছে। মজা করে খেয়ে দেখি। রোজ রোজ একলা একলা সব বাদাম সাবাড় করে ফেলা কি ভালো? (চলবে)

 

আরো সংবাদ