esans aroma gebze evden eve nakliyat Ezhel Şarkıları indir Entrumpelung wien Installateur Notdienst Wien webtekno bodrum villa kiralama
২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

বিশ্বের সবচেয়ে দামি ডিভোর্স

জেফ বেজোস ও ম্যাকেঞ্জি - ছবি : সংগৃহীত

প্রায় তিন লাখ কোটি টাকায় বিয়ে বিচ্ছেদের ব্যাপারে সম্মত হয়েছেন বিশ্বের শীর্ষ ধনী জেফ বেজোস ও তার স্ত্রী ম্যাকেঞ্জি। এর মাধ্যমে বিয়ে বিচ্ছেদের আগের সব রেকর্ড ভেঙে ফেলেন তারা। গতকাল বৃহস্পতিবার তারা আনুষ্ঠানিকভাবে বিবাহবিচ্ছেদের কথা ঘোষণা করেন।

বৃহস্পতিবার এক টুইট বার্তায় ম্যাকেঞ্জি জানান, জেফ বেজোসের সাথে সহযোগিতার ভিত্তিতে বিয়ে বিচ্ছেদের এই প্রক্রিয়া শেষ করতে পেরে তিনি খুশি। এ প্রক্রিয়া চলাকালে একে-অপরের কাছ থেকে এবং আরও যাদের সহযোগিতা পাওয়া গেছে, তাদের সবার কাছে তিনি কৃতজ্ঞ।

ম্যাকেঞ্জির টুইটে বেজোস রিটুইট করে লিখেছেন, সকলের ভালোবাসা ও উৎসাহ পেয়ে আমরা একটা পর্যায়ে পৌঁছাতে পেরেছি। যা আপনারা ভালোভাবে বুঝতে পারছেন। এ জন্য আমি সবার প্রতি কৃতজ্ঞ।

পৃথক আরেক টুইটে জেফ বেজোস জানান, ম্যাকেঞ্জি একজন অসাধারণ সঙ্গী, বন্ধু ও মা। আমি জানি ভবিষ্যতে আমি তার থেকে আরো অনেক কিছু শিখব। এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে তার সহযোগিতার জন্য আমি কৃতজ্ঞ। এখন আমরা বন্ধু এবং আমাদের সন্তানদের অভিভাবক হিসেবে থাকবো।

বেশ কিছুদিন ধরেই বিশ্বের শীর্ষ ধনীর স্থানটি দখল করে রাখা আমাজনের প্রধান নির্বাহী জেফ বেজোস তার কোম্পানির ১৬ দশমিক তিন শতাংশ শেয়ারের অধিকারী। যার অর্থমূল্য মোটামুটি ১৪৩০০ কোটি ডলার। বিয়ে বিচ্ছেদের চুক্তি অনুযায়ী ওই শেয়ারের চার শতাংশ পাবেন ম্যাকেঞ্জি। এর মাধ্যমে তিনি বর্তমানে আমাজনের প্রায় তিন হাজার ছ’শো কোটি ডলার শেয়ারের মালিক হচ্ছেন।

এ বছরের জানুয়ারিতেই ২৫ বছরের সম্পর্কের ইতি ঘটানোর পরিকল্পনার কথা জানিয়েছিলেন ম্যাকেঞ্জি। জেফ বেজোসও সেই টুইট শেয়ার করেছিলেন।

বর্তমানে জেফের বয়স ৫৫ বছর। অন্যদিকে লেখক হিসেবে পরিচিত ম্যাকেঞ্জির বয়স ৪৮। ৪৮ বছর বয়সী ম্যাকেঞ্জি বেজোস একজন গল্পকার। ‘দি টেস্টিং অব লুথার অলব্রাইট’ এবং ‘ট্র্যাপস’ নামে দুটো বই প্রকাশিত হয়েছে তার। তাদের ঘরে রয়েছে চার সন্তান রয়েছে। 

২৫ বছর আগে বিয়ে করেছিলেন জেফ ও ম্যাকেঞ্জি। সে সময়েই অর্থাৎ ১৯৯৪ সালেই অনলাইন-রিটেল সংস্থা আমাজন তৈরি করেছিলেন জেফ। সম্প্রতি মাইক্রোসফট ও অ্যাপলকে হারিয়ে পৃথিবীর শীর্ষ ধনীকোম্পানি হিসেবে উঠে আসে আমাজন। বর্তমানে আমাজনের সম্পত্তির পরিমাণ আট হাজার নয়শো কোটি ডলার। এর আগে সবচেয়ে ব্যয়বহুল বিচ্ছেদ হয়েছিল আর্ট ডিলার অ্যালেক ওয়াইল্ডেনস্টাইন ও তার স্ত্রী জোসেলিনের মধ্যে। তারা ৩৮০ কোটি ডলারে বিচ্ছেদে রাজি হয়েছিলেন।

এ বিয়ে বিচ্ছেদের খোরপোশ হিসাবে ম্যাকেঞ্জি তিন হাজার ৫০০ কোটি ডলার মূল্যের শেয়ারের মালিক হয়েছেন। সেটা তিনি সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট এবং স্পেস এক্সপ্লোরেশন ফার্ম ব্লু অরিজিনে বিনিয়োগ করতে চান। এই দুই সংস্থাও জেফের। ২০১৩ সালে ওয়াশিংটন পোস্ট কিনেছিলেন জেফ।

এদিকে এ ঘটনায় বেজোসকে এখন শীর্ষ ধনীর মুকুট হারাতে হবে। সেক্ষেত্রে হয়ত ধনীদের তালিকায় আবার শীর্ষস্থানে ফিরবেন মাইক্রোসফট প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস।

বিশ্বখ্যাত মার্কিন সাময়িকী ফোর্বস জানায়, ডিভোর্সের মাধ্যমে যে টাকার মালিক হচ্ছেন ম্যাকেঞ্জি, তাতে তিনি পরিণত হচ্ছেন বিশ্বের তৃতীয় শীর্ষ ধনী নারীতে। অবশ্য ওয়াশিংটন রাজ্যের নিয়ম অনুযায়ী তিনি যদি বিচ্ছেদের ক্ষেত্রে বেজোসের সম্পদের আধাআধি ভাগ চাইতে পারতেন। সেক্ষেত্রে শীর্ষ নারী ধনীর তালিকায় তার নাম থাকতো ১ নম্বরেই।


আরো সংবাদ




short haircuts for black women short haircuts for women Ümraniye evden eve nakliyat