২২ মে ২০১৯

উত্তপ্ত ভেনিজুয়েলা : বিভক্ত বিশ্ব

ডোনাল্ড ট্রাম্প, নিকোলাস মাদুরো ও রজব তাইয়েব এরদোগান - ছবি : সংগ্রহ

তেলসমৃদ্ধ দেশ ভেনিজুয়েলায় রাজনৈতিক সঙ্কট ক্রমশ ঘনিভূত হচ্ছে। দেশটিতে নতুন মেয়াদে দায়িত্ব নিয়েছেন প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো, অন্য দিকে বুধবার পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠ বিরোধী দলীয় নেতা জুয়ান গুয়াইডো নিজেকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ঘোষণা করেছেন।

৩৫ বছর বয়সী গুয়াইডোকে সমর্থন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। অন্যদিকে তুরস্কসহ বেশ কিছু দেশ অবস্থান নিয়েছে প্রেসিডেন্ট মাদুরোর পক্ষে। প্রতিবেশী দেশগুলো বিভক্ত হয়ে পড়েছেদুই শিবিরে। কিছু দেশ নিরপেক্ষ  অবস্থান নিয়েছে। সেনাবাহিনী সমর্থন করছে মাদুরোকে।

গত বছর অনুষ্ঠিত দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচন বয়কট করেছিল বিরোধী দল। যে কারণে নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন তুলছে অনেকে। এদিকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট হিসেবে গুয়াইডোকে স্বীকৃতি দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। পাশাপাশি ব্রাজিল, কলম্বিয়া, গুয়েতেমালা, কোস্টারিকা পেরুর মতো প্রতিবেশী দেশও তাকে সমর্থন দিয়েছে।

আর এতেই বিষয়টি নিয়ে নতুন জটিলতা দেখা দিয়েছে দক্ষিণ আমেরিকার দেশটিতে। এর জবাবে প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো যুক্তরাষ্ট্রের সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা দিয়ে দেশটির কূটনীতিকদের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে দেশ ত্যাগের নির্দেশ দিয়েছেন।

বেশ কয়েকদিন ধরেই রাজধানী কারাকাসে প্রবল বিক্ষোভ চলছে বিরোধী সমর্থকদের। পাল্টা বিক্ষোভ করছে মাদুরো সমর্থকরাও। এসময় সংঘর্ষে ১৩জন নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।ৎ

এদিকে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান প্রেসিডেন্ট হিসেবে নিকোলাস মাদুরোকে সমর্থন জানিয়েছেন। এরদোগানের মুখপাত্র ইবরাহিম কালিন টুইটারে লিখেছেন, ‘মাদুরো, ভাই আমাদের, শক্ত থাকুন। তুরস্ক আপনার পাশে আছে- এরদোগান এমন কথা টেলিফোনে বলেছেন নিকোলাস মাদুরোকে।’

বলিভিয়া ও কিউবার মতো প্রতিবেশী দেশ মাদুরোকে সমর্থন দিয়েছে। মেক্সিকো বলেছে তারা সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচিত ব্যক্তিতে সমর্থন দেবে। এর মানে হচ্ছে তারাও মাদুরোর পক্ষেই রয়েছে। উরুগুয়েসহ কিছুদেশ নিরপেক্ষ অবস্থান নিয়েছে। তারা দেশটিতে শান্তি কামনা করেছে, উভয় পক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন শান্ত থাকতে।

এদিকে ভেনিজুয়েলার সেনাবাহিনী প্রেসিডেন্ট মাদুরোর পক্ষে অবস্থান নিয়েছে। প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ভ্লাদিমির পাদরিনো প্রেসিডেন্ট হিসেবে মাদুরোর প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন। বুধবার তিনি টুইটারে বলেছেন, দেশের সেনাবাহিনী এমন কাউকে স্বীকার করে না যে নিজেকে প্রেসিডেন্ট দাবি করবে কিংবা স্বার্থন্বেষী কেউ চাপিয়ে দেবে।

এর মাধ্যমে মূলত যুক্তরাষ্ট্রের ভুমিকাকে প্রত্যাখান করেছেন তিনি। পাশাপাশি তিনি বলেছেন, সেনাবাহিনী দেশের সংবিধান ও স্বার্বভৌমত্ব রক্ষায় কাজ করবে। সূত্র : আল জাজিরা, বিবিসি, আনাদোলু।


আরো সংবাদ

পেশাজীবীদের সম্মানে প্রধানমন্ত্রীর ইফতার ৬ মাস পর কারামুক্ত বিএনপি নেতা শেখ রবিউল আলম নারী ও শিশু নির্যাতন রোধে তিন মন্ত্রণালয়কে সমন্বিতভাবে কাজ করার পরামর্শ বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন ২ জুলাই ৩ টাকার বালিশ তুলতে খরচ ৫ টাকা? রুমিন ফারহানার প্রার্থিতা বৈধ কৃষকেরা অধিকার থেকে বঞ্চিত : মাওলানা আতাউল্লাহ শাহজালাল বিমানবন্দরে সোয়া ৩ কোটি টাকার স্বর্ণসহ একজন গ্রেফতার পশ্চিম রাজাবাজারের জলাবদ্ধতা নিরসনের দাবি আওয়ামী লীগ-বিএনপির তরুণ নেতাদের এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ স্পিকারের সাথে সাক্ষাৎ জাতিসঙ্ঘ প্রতিনিধিদলের

সকল




agario agario - agario