১৮ জুলাই ২০১৯

১৪ বছরের স্কুলছাত্র হবে গভর্নর!

১৪ বছরের স্কুলছাত্র হবে গভর্নর! - সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রে আগামী নভেম্বরে মধ্যবর্তী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। ওই নির্বাচনকে সামনে রেখে ভারমন্ট অঙ্গরাজ্যে প্রাথমিক নির্বাচনে ১৪ বছর বয়সী এক স্কুলছাত্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এতো অল্প বয়সেই এমন একটি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাই অবাক করেছে সবাইকে।

জানা গেছে, ইথান সনর্বন নামের এই কিশোর ভারমেন্টের পরবর্তী গভর্নর হতে চান। বয়স অল্প হলেও বেশ পরিপক্ক তিনি।সনবর্ন বলছেন, সবাই যতটা ভেবেছিল আমার প্রচারণায় বয়স ততটা প্রভাব ফেলেনি। যেখানেই আমি যাই না কেন আমার বার্তাটা বয়সের সীমা ছাপিয়ে গেছে।

যুক্তরাষ্ট্রে ভারমন্ট ও কানসাস অঙ্গরাজ্যের গর্ভনর প্রার্থীদের ক্ষেত্রে কোনো বয়সসীমা নেই। এ কারণে নির্বাচনে অংশ নিতে পারছেন তিনি। প্রাথমিক নির্বাচনে চারজন ডেমোক্রেটিক প্রার্থীর বিরুদ্ধে লড়বেন সনবর্ন। সনবর্ন বলেন,  নতুন প্রজন্মের নেতৃত্ব আমাদের অঙ্গরাজ্যের জন্য আরো ভালো কাজ করতে পারবে বলে মনে হয়েছে আমার। 

তার নির্বাচনী প্রচারণায় আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণ, স্বাস্থ্যসেবার সংস্কার, অর্থনৈতিক উন্নয়ন এবং শিক্ষা গুরুত্ব পেয়েছে। সনবর্ন বলেন, নতুন প্রজন্মের নেতৃত্ব আমাদের অঙ্গরাজ্যের জন্য আরো ভালো কাজ করতে পারবে। তাড়াছা ২০১৮ সাল হচ্ছে এমন একটি বছর যেখানে সব স্তরের মানুষ, যে অংশের মানুষ সাধারণত রাজনীতিতে জড়ান না, তারাও এবার নির্বাচন করছেন এবং আমিও তাদেরই একজন।

মালয়েশিয়ায় ২৫ বছর বয়সে মন্ত্রী হলেন সাইদ সাদিক
নিউইয়র্ক টাইমস, ০৩ জুলাই ২০১৮

মাত্র ২৫ বছর বয়সেই মালয়েশিয়ার মন্ত্রী হলেন সাইদ সাদিক সাইদ আবদুল রহমান। দেশের সর্বকনিষ্ঠ মন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার পর এক বিবৃতিতে সাইদ সাদিক বলেন, যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রী হিসেবে তাকে নিয়োগ দেয়ার বিষয়টি এটাই প্রমাণ করে যে, সরকার তরুণদের নেতৃত্বকে স্বাগত জানিয়েছে। তিনি বলেন, সরকার বিশ্বাস করে দেশের তরুণদের ভাগ্য এবং তাদের ভবিষ্যৎ তাদের নিজেদের মাধ্যমেই নির্ধারিত হবে। 

তরুণ মন্ত্রী আরো বলেন, এ নিয়োগের মাধ্যমে দেশের ভবিষ্যতের চালিকাশক্তি নির্ধারণে তরুণেরা আরো বেশি সুযোগ পাবেন। সোমবার যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রী পদে শপথ নিয়েছেন এ তরুণ। এত অল্প বয়সে মন্ত্রী পদে নিয়োগ পেয়ে বেশ প্রশংসিত হচ্ছেন সাইদ সাদিক। তবে অনেকেই আবার প্রশ্ন তুলেছেন একটি মন্ত্রণালয়কে নেতৃত্ব দেয়ার মতো যোগ্যতা তার আছে কি না।

৭ বছরের কম বয়সে কুরআনে হাফেজা সুহাইমা
১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৬

সাত বছরের কম বয়সে আয়েশা সিদ্দিকা সুহাইমা পবিত্র কুরআনে হাফেজা হয়েছে। সে ঢাকার টিকাটুলির মারকাজুল হাফেজা ইন্টারন্যাশনাল বালিকা মাদরাসার ছাত্রী। তার বাবা কারি সালামাতুল্লাহ ওই মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক এবং মা হাফেজা আবেদা সুলতানাও অত্র মাদরাসার শিক্ষিকা পরিচালিকা।

বাবা-মার নিবিড় তত্ত্বাবধানে সে এই বয়সে কুরআনে হাফেজা হয়। তার বাবা-মা নিয়মিত উৎসাহ অনুপ্রেরণা জুুগিয়েছেন। তার গ্রামের বাড়ি কক্সবাজার জেলার মহেষখালী থানার মুন্সীরডেইল গ্রামে। সে সবার কাছে দোয়া প্রার্থী। 

 


আরো সংবাদ

gebze evden eve nakliyat instagram takipçi hilesi