২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

অভিবাসন নিয়ে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ

‘ফ্যামিলি বিলংস টুগেদার’ শীর্ষক বিক্ষোভ কর্মসূচীতে যুক্তরাষ্ট্রের হাজারো অভিবাসী পরিবার, মানবাধিকার কর্মী, ধর্মীয় নেতা, তারকা ব্যক্তিত্বসহ অনেকেই অংশ নেন। - ছবি: এএফপি

যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসী শিশুদেরকে তাদের পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন রাখার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছেন শত শত মানুষ। শনিবার দেশটির ৫০ টি অঙ্গরাজ্যের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। সবচেয়ে বড় বিক্ষোভ হয় রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসি ও নিউইয়র্ক সিটিতে।

এছাড়া হোয়াইট হাউসের সামনেও বিক্ষোভ হয়। দেশটির মানবাধিকার কর্মী থেকে শুরু করে ধর্মীয় নেতারা প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে তার নতুন অভিবাসন নীতি থেকে সরে আসার আহবান জানান। বিবিসি

শনিবারের বিক্ষোভকারীদের স্লোগান ছিল, ‘পরিবারের সদস্যরা একত্র হওয়ার অধিকার রাখে’। এছাড়া বিক্ষোভকারীরা বিতর্কিত অভিবাসন এজেন্সি আইসিই বন্ধ করার দাবি জানান।

মেক্সিকো সীমান্তে আটক হওয়া অভিভাকদের থেকে শিশুদের আলাদা করে রাখছে ট্রাম্প প্রশাসন। যদিও সমালোচনার মুখে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নির্বাহী আদেশে সেই প্রক্রিয়া স্থগিত করেন। আদালতে জমা দেওয়া এক নথিতে জানা গেছে, শিশুদের মা-বাবার সঙ্গে রাখা হবে। তবে তাদের আটকে রাখা হবে।

তবে আলাদা হওয়া ২ হাজার ৩৪২ শিশুর ক্ষেত্রে ট্রাম্পের বর্তমান নির্দেশনা কার্যকর হবে কিনা সেই বিষয়টি এখনও পরিস্কার নয়। গত ৫ মে থেকে ৯ জুন পর্যন্ত এদের আটক করে আলাদা রাখা হয়।

এরপর ক্যালিফোর্নিয়ার আদালতের তিনজন বিচারপতি শিশুদের অভিভাকদের সাথে একত্র রাখার নির্দেশ দেন।

শনিবারে বিক্ষোভে অংশ নেওয়া বেশিরভাগই ছিলেন নারী। এর আগের দিন শুক্রবার কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেট ভবন তথা ক্যাপিটল ভবনে অবস্থান নেন নারীরা। সেখান থেকে প্রায় ৬শ’জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

 


আরো সংবাদ