১৭ নভেম্বর ২০১৮

জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহেই বিচারপতি নিয়োগ দিতে পারেন ট্রাম্প

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প - ছবি: এএফপি

আগামী ১০ জুলাইয়ের আগেই অবসরে যাচ্ছেন মার্কিন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি অ্যান্থনি কেনেডি। তাই আগামী ৯ জুলাই সুপ্রিম কোর্টে নতুন বিচারপতি নিয়োগ দেয়া হতে পারে। আর এজন্য ট্রাম্প পাঁচ জনকে পছন্দ করে রেখেছেন যাদের মধ্যে দুই জন নারী রয়েছে বলেও জানান তিনি। বিবিসি

শুক্রবার সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এ পরিকল্পনার কথা জানান ট্রাম্প। 

হোয়াইট হাউসের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ইউরোপ সফরে যাওয়ার আগেই সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি হিসেবে কাউকে মনোনয়ন দিতে পারেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

নতুন কাউকে মনোনয়ন দিলে সুপ্রিম কোর্টে রক্ষণশীল বিচারপতির সংখ্যা আরো বাড়বে। সুপ্রিম কোর্টে ৯ বিচারপতির মধ্যে ৫ জনই রক্ষণশীল।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সুপ্রিম কোর্টে বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ দিলেও সিনেটের চূড়ান্ত অনুমোদন নিতে হবে। যদিও সিনেটে রিপাবলিকানদের প্রতিনিধি ডেমোক্রেটদের থেকে কম।

 

আরো পড়ুন: অ্যান্থনি কেনেডির অবসর, সুপ্রিম কোর্টকে কবজায় নিচ্ছেন ট্রাম্প


বিবিসি

আগামী ৩১ জুলাই অবসরে যাচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিমকোর্টের বিচারপতি অ্যান্থনি কেনেডি 
যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি অ্যান্থনি কেনেডি অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন। এর ফলে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সুপ্রিম কোর্টে রিপাবলিকান বিচারপতিদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিশ্চিত করার সুযোগ পেলেন। বিবিসি

বৃহস্পতিবার বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম জানায় যে, রক্ষণশীল রিপাবলিকানরা বিভিন্ন সময় লিবারেল ডেমোক্র্যাটদের নানা বিষয়ে কোণঠাসা করতে পেরেছে। এর মধ্যে সমকামী বিয়ে, গর্ভপাত অধিকারের মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো রয়েছে।

বিচারপতি কেনেডি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে লেখা চিঠিতে বলেন, সর্বোচ্চ আদালতে কাজ করতে পেরে আমি কৃতজ্ঞ।

৮১ বছর বয়সী বিচারপতি কেনেডি আগামী ৩১ জুলাই অবসর নিতে যাচ্ছেন বলে চিঠিতে উল্লেখ করেন। সুপ্রিম কোর্টে তিনিই দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বয়স্ক বিচারপতি।

যুক্তরাষ্ট্রের মানুষের জীবনে সুপ্রিম কোর্ট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। বিতর্কিত আইন, কেন্দ্রীয় সরকার ও অঙ্গরাজ্যগুলোর মধ্যে বিবাদ ইত্যাদি বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দিয়ে থাকেন। এ ছাড়া কারো মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হবে কি না, তারও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসে আদালত থেকে।

 


আরো সংবাদ