১৭ অক্টোবর ২০১৮

শতভাগ সমর্পণকারীরা আবার পেনশনে ফিরে এলেন

শতভাগ সমর্পণকারীরা আবার পেনশনে ফিরে এলেন - ছবি : সংগৃহীত

অবশেষে সরকারের শতভাগ পেনশন সমর্পণ বা বিক্রিকারীদের আবার পেনশনের আওতায় ফিরিয়ে আনা হলো। যেসব সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী ১৫ বছর আগে পেনশন সমর্পণ করেছেন তারাই কেবল এ সুবিধার আওতায় আসবেন। গতকাল অর্থমন্ত্রণালয় থেকে জারি করা এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এই পেনশন প্রতি বছর ৫ ভাগ হারে বৃদ্ধিও (ইনক্রিমেন্ট) পাবে। সরকারের এ সিদ্ধান্ত ১ জুলাই ২০১৭ থেকে কার্যকর হবে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে। 

অর্থমন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ১৯৯৪ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত মোট এক লাখ ৭ হাজার ৬৫২ জন তাদের শতভাগ পেনশন সমর্পণ করেছেন। এদের মধ্যে ১৯ হাজার ৫৩৮ জনের অবসরের বয়স ১৫ বছর অতিক্রান্ত হয়েছে। এদের পেনশনের আওতায় নিয়ে আসায় সরকারকে ব্যয় করতে হবে ১৪৬ কোটি টাকা। 

প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘শতভাগ পেনশন সমর্পণকারী অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারীগণের অবসর গ্রহণের তারিখ হতে ১৫ বছর সময় অতিক্রান্তের পর তাদের পেনশন পুনঃস্থাপন করা হবে। কর্মচারীর এলপিআর/পিআরএল যে তারিখে শেষ হয়েছে তার পরদিন থেকে উক্ত ১৫ বছর সময় গণনা করা হবে। আর যিনি এলপিআর/পিআরএল ভোগ করেননি তার ক্ষেত্রে অবসর গ্রহণের তারিখ হতে উক্ত ১৫ বছর সময় গণনাযোগ্য হবে।’

কী পদ্ধতি ও নিয়মে এই পেনশন নির্ধারণ করা হয়েছে, তাও প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ‘ধরা যাক সংশ্লিষ্ট কর্মচারীর এলপিআর শেষ হয়েছে ২০০২ সালের ৩০ জুন। তার অবসরের পর হতে ১৫ বছর সময় অতিক্রান্ত হয়েছে ২০১৭ সালের ১ জুলাই। উক্ত কর্মচারী যদি ১ নং গ্রেডভুক্ত হন তা হলে জাতীয় বেতন স্কেল, ১৯৯৭ অনুযায়ী তার বেতন ১৫ হাজার টাকা (নির্ধারিত হওয়ায় তার মাসিক নিট পেনশনের পরিমাণ হবে (১৫,০০০ ী ৮০%) স্ট ২ = ৬,০০০ টাকা। জাতীয় বেতন স্কেল, ২০০৫ অনুযায়ী মাসিক ১০০১ টাকা হতে তদূর্ধ্ব পরিমাণ নিট পেনশন গ্রহণকারীর মাসিক পেনশন ২৫% হারে বৃদ্ধি হওয়ায় তার মাসিক নিট পেনশন হবে ৬,০০০ + (৬০০০ ী ২৫%) = ৭,৫০০ টাকা। আবার জাতীয় বেতন স্কেল, ২০০৯ অনুযায়ী ৬৫ বছর ঊর্ধ্ব বয়সের পেনশনভোগীর নিট পেনশনের পরিমাণ ৫০% বৃদ্ধি হওয়ায় তার মাসিক নিট পেনশন হবে ৭,৫০০ + (৭,৫০০ ী ৫০%) = ১১,২৫০ টাকা। 

একইভাবে জাতীয় বেতন স্কেল, ২০১৫ অনুযায়ী ৬৫ বছর ঊর্ধ্ব বয়সের অবসরভোগীর নিট পেনশনের পরিমাণ ৫০% বৃদ্ধি হওয়ায় ১-০৭-২০১৭ তারিখে তার মাসিক নিট পেনশন হবে ১১,২৫০ + (১১,২০৫ ী ৫০%) = ১৬,৮৭৫ টাকা। সুতরাং ২০০২ সালের ৩০ জুন বা তার পূর্বে এলপিআর শেষ হয়েছে ১ নম্বর গ্রেডের এমন শতভাগ পেনশন সমপর্ণকারী অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারীর ০১-০৭-২০১৭ তারিখে মাসিক নিট পেনশন হবে ১৬,৮৭৫ টাকা। 

প্রজ্ঞাপনে আরো উল্লেখ করা হয়েছে, ‘নিয়মিত পেনশনারগণের ন্যায় শতভাগ পেনশন সমর্পণকারী অবসরভোগীগণের ও ন্যূনতম মাসিক পেনশন হবে ৩ হাজার টাকা। শতভাগ পেনশন সমর্পণকারী অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারীর ১-৭-২০১৭ তারিখে বা তার পরবর্তী সময়ে (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) যে পেনশন নির্ধারিত হবে তার ওপর প্রতি বছর ১ জুলাই তারিখে ৫ ভাগ হারে বার্ষিক ইনক্রিমেন্ট দেয়া হবে। উদাহরণ হিসেবে বলা হয়েছে, ১ নম্বর গ্রেডের কর্মচারীর ১-০৭-২০১৭ তারিখে মাসিক নিট পেনশনের পরিমাণ ১৬,৮৭৫ টাকা। প্রতি বছর ১ জুলাই তারিখে ৫% হারে বার্ষিক ইনক্রিমেন্ট প্রদেয় হওয়ায় ১-০৭-২০১৮ তারিখে তার মাসিক নিট পেনশন হবে ১৬,৮৭৫ + (১৬,৮৭৫ ী ৫%) = ১৭,৭১৮.৭৫ টাকা। এই সুবিধা ১ জুলাই ২০১৭ থেকে কার্যকর হবে এবং তার পূর্বের কোনো আর্থিক সুবিধা প্রদেয় হবে না বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়।


আরো সংবাদ