১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

‘সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী গ্রেপ্তারে অনুমতি লাগবে’

-

‘সরকারি চাকরি আইন, ২০১৮’-এর খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। আইনে ফৌজদারি ও দুর্নীতির মামলায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের গ্রেপ্তার করতে সরকারের পূর্বানুমতির বিধান যুক্ত করা হয়েছে।

আজ সোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ওই সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সভা শেষে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।

শফিউল আলম বলেন, ‘ছয়টি বিধিমালা দ্বারা সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগ, পদোন্নতি, পদায়ন, শৃঙ্খলাবিধিসহ আনুষঙ্গিক কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে। এ-সংক্রান্ত কোনো পূর্ণাঙ্গ আইন নেই। সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা ও পূর্ণাঙ্গ আইনের প্রয়োজনীয়তার সাপেক্ষে নতুন আইনটি করা হচ্ছে।’

প্রস্তাবিত আইনের ৪১ ধারা উল্লেখ করে শফিউল আলম জানান, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা হলে অভিযোগপত্র দেওয়ার আগে সরকারের অনুমোদন ছাড়া তাকে গ্রেপ্তার করা যাবে না।

সচিব আরো জানান, দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) আইনেও কারো বিরুদ্ধে মামলা হলে অভিযোগপত্র দেওয়ার আগে সরকারের অনুমোদন লাগবে।

শফিউল আলম জানান, উন্মুক্ত প্রতিযোগিতা হবে সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের নিয়োগের ভিত্তি। যদি কোনো সরকারি কর্মকর্তা বিদেশের নাগরিকত্ব গ্রহণ করে, তাহলে তার চাকরি থাকবে না।


আরো সংবাদ

Hacklink

ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme