১৮ আগস্ট ২০১৯

অতিবৃষ্টিতে কমবে ডেঙ্গু?

বৃহস্পতিবারের বৃষ্টিতে রাজধানীতে সৃষ্ট জলাবদ্ধতা - ছবি : নয়া দিগন্ত

বৃহস্পতিবার দিনভর থেমে থেমে বৃষ্টিতে রাজধানীর অনেক এলাকাতেই সৃষ্টি হয়েছে জলাবদ্ধতা। নগরবাসীর দুর্ভোগেরও কমতি ছিল না। অনেক রাস্তায় কোমর সমান পানি জমেছিল। নগরবাসীর এতো দুর্ভোগ আর কষ্টের মধ্যেও আনন্দের সংবাদ হচ্ছে অতি বৃষ্টিতেই কিন্তু ডেঙ্গুর প্রকোপ কমতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে। আর তেমনটি হলে দূর হবে নগরবাসীর ডেঙ্গু আতংক। অর্থাৎ নগরীর জলাবন্ধতা নাগরিক জীবনের জন্য দুর্ভোগ বয়ে আনলেও ডেঙ্গুর বাহক এডিস মশার আবাসস্থল নষ্ট হবে এই অতিবৃষ্টির কারণে।

ঢাকার মহাখালীতে অবস্থিত স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সী অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের সহকারি পরিচালক ডা: আয়েশা আক্তার বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নয়া দিগন্তকে জানান, বাড়ির সামনে কিংবা রাস্তার পাশে কোনো কিছুর মধ্যে জমে থাকা পানিতেই এডিস মশা বংশ বৃদ্ধি করে। অতিবৃষ্টির কারণে জমে থাকা পানিতে থাকা এডিশ মশার ডিম নষ্ট হয়ে যায়। এছাড়া অতিবৃষ্টিতে রাস্তার পাশ নিচু থাকায় জমে থাকা পানিতেও প্রবাহ তৈরি হয়। এটাও ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণের জন্য সহায়ক ভূমিকা রাখবে।

সাম্প্রতিক সময়ে এডিস মশাবাহিত ডেঙ্গুর ভয়াবহ বিস্তারে দেশজুড়ে শুরু হয়েছে ব্যাপক ডেঙ্গুজ্বরের প্রকোপ। যার ফলে ডেঙ্গু নিয়ে জনমনে কাজ রয়েছে উদ্বেগ, আতঙ্ক আর অস্থিরতা।

এই রোগ ভয়াবহ আকারে ছড়ানোর কারণ কী, এডিস মশা ও ডেঙ্গু কিভাবে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে এবং তাৎক্ষণিক করণীয় সম্পর্কে কথা বলেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক, কীটতত্ত্ববিদ ও বিজ্ঞানী ড. কবিরুল বাশার।

তিনি জানান, এ বছর ফেব্রুয়ারি মাসে বৃষ্টি হওয়ায় এডিস মশার বিস্তার এতটা ব্যাপকভাবে হয়েছে। ১৯৫৩ সালের পরে এবারই ফেব্রুয়ারি মাসে সবচেয়ে বেশি বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। এডিস মশার একটি ইন্টারেস্টিং ক্যারেক্টারেস্টিক আছে। এ মশার ডিম ধানের বীজের মতো। শুকনা অবস্থায় ৬ মাস থাকতে পারে। এর মধ্যে ডিম নষ্ট হবে না। আগের বছরের ডিম অর্থাৎ অক্টোবর মাসে যে ডিমটা এডিস মশা ছেড়েছে এর চারমাস পর যখন ফেব্রুয়ারিতে পানি পেয়েছে তখন এডিস মশার বড় গ্রুপ ঢাকা শহরে জন্ম হয়েছে। এরপর মার্চ-এপ্রিল মাসে যখন থেমে থেমে বৃষ্টি হলো তখন এডিস মশার বিস্তার বা সংখ্যাটা বেড়ে গেল ব্যাপকভাবে। তবে অতিবৃষ্টিতে এই মশার ডিম বা লার্ভা নষ্ট হবে।

অর্থাৎ রাজধানীতে যদি একটানা কয়েকদিন অতিবৃষ্টি হয় তাহলে এডিস মশার উপদ্রপ কমে আসবে।

ডেঙ্গু নিয়ে বিশেষজ্ঞ পরামর্শ :

 


আরো সংবাদ




bedava internet