বঙ্গোপসাগরে সফল মিসাইল উৎপেণ

শেষ হলো নৌবাহিনীর বার্ষিক সমুদ্রমহড়া ‘সমুদ্র ঘূর্ণি’

চট্টগ্রাম ব্যুরো

বঙ্গোপসাগরে সফলভাবে মিসাইল উৎপেণের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর বার্ষিক সমুদ্রমহড়া ‘সমুদ্র ঘূর্ণি’ গতকাল শেষ হয়েছে। শিামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ প্রধান অতিথি হিসেবে নৌবাহিনীর জাহাজ ‘বঙ্গবন্ধু’ থেকে সমাপনী দিনের মহড়া প্রত্য করেন। এ সময় নৌবাহিনী প্রধান ভাইস এডমিরাল এম ফরিদ হাবিব উপস্থিত ছিলেন। এর আগে প্রধান অতিথি জাহাজে এসে পৌঁছলে কমান্ডার বিএন ফিট রিয়ার এডমিরাল এম খালেদ ইকবাল এবং বানৌজা বঙ্গবন্ধুর অধিনায়ক ক্যাপ্টেন জাহাঙ্গীর আদিল সামদানি তাকে স্বাগত জানান। এ সময় নৌবাহিনীর একটি সুসজ্জিত দল জাহাজে প্রধান অতিথিকে গার্ড অব অনার প্রদান করে।
নৌবাহিনীর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে ১৫ দিনব্যাপী আয়োজিত এ মহড়ায় প্রত্যভাবে নৌবাহিনীর উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ফ্রিগেট, করভেট, ওপিভি, মাইনসুইপার, পেট্রোলবোট, গানবোট, মেরিটাইম পেট্রোল এয়ার ক্রাফট ও হেলিকপ্টার ছাড়াও নৌবাহিনীর সব ঘাঁটি ও স্থাপনা অংশগ্রহণ করে। এ ছাড়া বাংলাদেশ কোস্টগার্ড, সেনা ও বিমানবাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট মেরিটাইম সংস্থা এ মহড়ায় অংশগ্রহণ করে। মোট তিনটি ধাপে অনুষ্ঠিত এ মহড়ার উল্লেখযোগ্য দিকের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত ছিল নৌবহরের বিভিন্ন কলাকৌশল অনুশীলন, সমুদ্র এলাকায় পর্যবেণ, অনুসন্ধান ও উদ্ধার অভিযান, লজিস্টিক অপারেশন, ল্যান্ডিং অপারেশন, উপকূলীয় এলাকায় অবস্থিত নৌ স্থাপনার প্রতিরা মহড়া প্রভৃতি।
মহড়া শেষে শিামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ চট্টগ্রাম নৌ অঞ্চলের সব কর্মকর্তা ও নাবিকের উদ্দেশে বক্তব্য রাখেন। তিনি সফল মহড়ার জন্য সব নৌসদস্যকে অভিনন্দন জানান এবং নৌসদস্যদের পেশাগতমান, দতা ও কর্মনিষ্ঠার প্রশংসা করেন।
নৌমহড়ার সমাপনী দিনে অন্যান্যের মধ্যে উচ্চপদস্থ সামরিক ও বেসামরিক ব্যক্তি, নৌ সদর দফতরের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার ও পদস্থ নৌ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.